• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ২৮ বৈশাখ ১৪২৮ ২৮ রমজান ১৪৪২

ব্যাঙ্গালোরে আটকে আছে তিন শতাধিক বাংলাদেশি

    সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
  • | ঢাকা , শুক্রবার, ০৩ এপ্রিল ২০২০

করোনাভাইসের কারণে ভারতের ব্যাঙ্গালোরে চিকিৎসা করাতে এসে তিন শতাধিক বাংলাদেশি আটকে পড়েছেন। আর্থিক সংকটে তারা এখন দিশাহারা। তারা ভারতে এসেছেন কেউ পিতার, কেউ স্ত্রীর, কেউ ভাইয়ের চিকিৎসার জন্য। এরমধ্যে অনেকের আবার চিকিৎসা শেষ হয়ে গেছে কয়েকদিন আগেই। প্রত্যেক রোগীর সঙ্গে রয়েছেন পরিবারের একাধিক সদস্য। দিল্লি, চেন্নাই ও কলকাতায়ও অনেকে আটকে আছেন বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে গত ৩০ মার্চ ভারতের ‘আনন্দবাজার পত্রিকা’ একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘আটকে ব্যাঙ্গালোরেতে, পকেট ফাঁকা মাথায় হাত বাংলাদেশিদের।’ কলকাতায় বাংলাদেশ ডেপুটি হাইকমিশন সূত্র দিয়ে আনন্দবাজার জানিয়েছে, চেন্নাই, বেঙ্গালোর, কলকাতা ও দিল্লিতে আটকেপড়া বাংলাদেশের নাগরিকদের একটি তালিকা তৈরি করা হয়েছে। সবাইকে ধৈর্য্য ধরে থাকতে বলা হচ্ছে। বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রের বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, চেন্নাই ও বেঙ্গালোরে আটক বাংলাদেশিদের চার্টার্ড বিমানে ঢাকায় ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার তোড়জোড় শুরু হয়েছে। এ বিষয়ে ভারতের ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে তাদের কথাবার্তা চলছে। কিন্তু আটকে পড়া বাংলাদেশিরা বলছেন ভিন্ন কথা। তাদের সঙ্গে হাই কমিশন থেকে তেমন যোগাযোগ রক্ষা করা হচ্ছে না। দুয়েক জনের সঙ্গে যোগযোগ রক্ষা করা হলেও বাংলাদেশ হাই কমিশনের কাছে কোনো তহবিল নেই, যা দিয়ে তাদের দেশে ফিরিয়ে আনবে।

জানা গেছে, বর্তমানে তিন শতাধিক বাংলাদেশি বেঙ্গালোরে আটকে রয়েছেন। আটকেপড়া বাংলাদেশিরা সবাই দেশে ফিরতে চাইলেও- সরকার বা হাইকমিশনের সহযোগিতা ছাড়া এখন তা অসম্ভব। ভারত থেকে সমস্ত আন্তর্জাতিক বিমানের ফ্লাইট বন্ধ। অনেক রোগী থাকায় বিমান ছাড়া তারা বাংলাদেশে ফিরতেও পারবেন না। এ অবস্থায় তারা প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন, যাতে বিশেষ বিমানে করে তাদের ফিরিয়ে আনা হয়।

এদিকে বাংলাদেশ হাইকমিশনের হটলাইনে যোগাযোগ করলে তারা সঠিকভাবে কথা বলতে চায় না। তারা কোনমতে লকডাউন সময় পার করতে চায়। লকডাউন ছেড়ে দিলে হয়তো সবাই নিজেদের মতো চলে আসবে। এমন অভিযোগ করছেন আটকে পড়া বাংলাদেশিরা।

জানা গেছে, হাইকমিশনের পক্ষ বলা হয়েছে খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। কিন্তু বাস্তবে তাদের কাছে কোন খাবার পৌঁছায়নি। হাইকমিশনের একজন জানিয়েছে বাস রিজার্ভ করে কলকাতায় আনা হবে। কিন্তু অধিকাংশ রোগী হওয়ায় তারা বাসে আসতে পারবে না। তাদের বিমানযোগে বেঙ্গালোর থেকে কলকাতায় আনতেই মাথাপিছু সাড়ে ১২ হাজার রুপী চাওয়া হচ্ছে বাংলাদেশ হাইকমিশন থেকে। সাধারণত এখানে বিমান ভাড়া ৩ হাজার ৬০০ থেকে ৫ হাজার রুপীর মধ্যে। যদি কোন অফার থাকে, তাহলে বিমান ভাড়া ৩ হাজার রুপী পর্যন্ত হয়ে যায়। তাছাড়া এই মুহূর্তে তাদের কাছে এত টাকাও নেই।

ব্যাঙ্গালোরে আটকে পরা বাংলাদেশিদের একজন বিজয় কৃষ্ণ। তিনি গতকাল সংবাদকে বলেন, ‘ভারতের ব্যাঙ্গালোরে শুধু ড. দেবী শেঠীর নারায়ণা হৃদয়ালয়া হাসপাতালের আসেপাশেই কমপক্ষে তিন শত বাংলাদেশি গত ১৪ দিন ধরে আটকে আছেন। তাদের আরও ১৯ দিন এ অবস্থায় থাকতে হবে, তারপরে কি হবে সেটাও জানি না। এদের অনেকেরই টাকা পয়সা শেষ বা শেষের পথে, কেউ কেউ টাকা থাকলেও ঠিকমতো বাজার করতে পারছে না। আগামী দিনগুলো কিভাবে থাকবে কি খাবে, কিভাবে দেশে ফিরবে এই চিন্তায় ব্যাকুল। অনেকেই শেষ সম্বল দিয়ে বিমানের টিকিট কেটেছেন, ফ্লাইট বাতিল হলেও টাকা ফেরত পাওয়া যাচ্ছে না। বলছে ফ্লাইট চালু হলে এডজাস্ট করা হবে। টিকিটের টাকাটা ফেরত পেলেও সেটি দিয়ে এই লোকগুলো অন্তত কয়েক দিন বেঁচে থাকতে পারত। হোটেল মালিকরা যেকোনো মুহূর্তে হোটেল বন্ধ করে দিতে পারে। হোটেল বন্ধ হয়ে গেলে আমদের এই থাকার জায়গাটুকুও হারাতে হবে। সবসময় ভয়াবহ এক আতঙ্কের মধ্যে আছি আমরা। এরমধ্যে অনেকের ভিসার মেয়াদও শেষ হয়ে যাচ্ছে। সার্জারি হওয়া রোগীগুলো চিন্তায় চিন্তায় অস্থির। আরও অসুস্থ হয়ে যাচ্ছে।’

ফুফাতো ভাই সাব্বিরকে নিয়ে আগরতলা হয়ে বেঙ্গালোর গিয়েছিলেন বাংলাদেশের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার স্বপন মিঞা। ১৭ মার্চ একটা হাসপাতালে তার কোমরে জটিল অস্ত্রোপচার হয়েছে। ছেড়ে দিয়েছে ২৬ মার্চ। চিকিৎসা খরচ মিটিয়ে হাতে যা রয়েছে, হোটেল ভাড়া মেটালে ফেরার টাকা থাকে না। সব এজেন্সি বন্ধ থাকায় দেশ থেকে টাকাও আসছে না। ক্লান্ত গলায় স্বপন বলেন, ‘কী হবে বুঝতে পারছি না! বাংলাদেশ হাইকমিশনের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলাম। তারাও আশার আলো দেখাতে পারেননি।’

এদিকে চিকিৎসাসহ বিভিন্ন কারণে ভারতে গিয়ে আটকেপড়া বাংলাদেশিদের জন্য হটলাইন খুলেছে নয়া দিল্লিতে অবস্থিত বাংলাদেশ হাইকমিশন। আটকাপড়াদের দেশে ফেরাতে সময় লাগতে পারে জানিয়েছে হাইকমিশন। পাশাপাশি কোন ধরনের সমস্যা হলে হটলাইনে যোগাযোগ করতে বলেছে কমিশন। গতকাল এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব কথা জানানো হয়।

হটলাইনগুলো হলো- নয়াদিল্লি (+৯১৮৫৯৫৫৫২৪৯৪), কলকাতা (+৯১৯০৩৮৯২৩৮৩৭৩, +৯১৮২০৪০৫৯৮), মুম্বাই (+৯১৯৮৩৩১৫৯৯০), গোয়াহাটি (+৯১৬৫৭৮৯৩৯৩০৯) ও আগরতলায় (+৯১৮১১৯৯১০৯২৮)। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘এসব নম্বরে হোয়াটসঅ্যাপে বার্তা বা এসএমএস পাঠাতে পারেন। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে গোটা বিশ্ব এক সংকটময় সময় অতিক্রম করছে। এ সময় আমাদের সচেতন, সহনশীল ও সংবেদনশীল হতে হবে। ভারতে অবস্থিত বাংলাদেশ মিশনগুলো, যে কোন প্রয়োজনে আপনাদের পাশে রয়েছে। করোনাভাইরাসের বিস্তাররোধে স্বাগতিক দেশের নিয়মাবলী নিয়ে মেনে চলুন। অন্যদেরও মেনে চলতে উৎসাহিত করুন।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, সম্প্রতি করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে ভারত সরকার ঘোষিত লকডাউনের ফলে যেসব বাংলাদেশি ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলে আটকা অবস্থায় আছেন, তাদের ফেরাতে সময় লাগতে পারে। বাংলাদেশিদের নিজ ব্যয়ে নিরাপদে ও সাশ্রয়ীভাবে স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের সম্ভাব্যতা বাংলাদেশ সরকারও যত্মসহকারে যাচাই করছে, যা প্রক্রিয়াগত কারণে কিছুটা সময়সাপেক্ষ হতে পারে।

  • মশক নিধনে জাতীয় কমিটি হবে স্থানীয় সরকার

    স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম জানিয়েছেন, মশক

  • সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের মাস্ক ব্যবহারের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

    প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) ছড়িয়ে পড়ার প্রেক্ষিতে দায়িত্ব পালনকালে

  • ভিডিও বার্তায় কৃষিমন্ত্রী

    ফসলের উৎপাদন বাড়াতে সার্বিক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে

    আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা

  • করোনা ঠেকাতে

    রিকশা ও অটোরিকশা গ্যারেজ বন্ধ করে দিচ্ছে পুলিশ

    নভেল করোনাভাইরাসের মহামারীর মধ্যে সংক্রমণের বিস্তার রোধে সাধারণ ছুটিতে ঘরে থাকার নির্দেশনা

  • দেশে করোনা পরিস্থিতির প্রকৃত চিত্র ফুটে উঠছে না বিএনপি

    গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বাসভবন ‘ফিরোজা’য় পুলিশের নিরাপত্তা দেয়ার দাবি জানিয়েছে

  • রাজধানীতে ওষুধের দোকানে মাথায় গামছা মুখে মাস্ক পরে ডাকাতি নিজস্ব বার্তা পরিবেশক গত বুধবার রাত সাড়ে ১২টা থেকে ১টা, করোনাভাইরাসের কারণে চারদিকে সুনসান নীরবতা। সড়কের আশপাশে কেউ নেই। হঠাৎ একটি ট্রাক ব্যাক গিয়ার দিয়ে এসে থামল রাজধানী মোহাম্মদপুরের কলেজগেট এলাকার বিল্লাহ ফার্মার সামনে। সবার মাথায় গামছা বাঁধা, মুখে পরা মাস্ক। মুহূর্তেই দুইজন চাপাতি ও একজন রড নিয়ে ওষুধের দোকানে প্রবেশ করে। তখন ওষুধ কিনতে এসেছিলেন মো. আরমান নামের এক ক্রেতা। কিছু বোঝার আগেই আরমানকে চাপাতির উল্টা পাশ দিয়ে মারতে শুরু করে। ফার্মেসির ভেতরে ছিলেন মালিক নাহিদ বিল্লাহ ও ইউসিবিএল ব্যাংকের এটিএম বুথের সিকিউরিটি মো. সোহাগ। হঠাৎ এসেই কাস্টমারকে চাপাতি দিয়ে মারতে শুরু করলে কিছুই বুঝে উঠতে পারেননি নাহিদ বিল্লাহ ও সোহাগ। একসময় আরমান, সোহাগ ও নাহিদকে মারতে মারতে দোকানের পেছনে নিয়ে যায়। আরমানের পকেটের মানিব্যাগ ও মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। ফার্মেসিতে থাকা ল্যাপটপ নগদ টাকা নিয়ে দ্রুত চলে যায়। মাত্র ২ মিনিটের মধ্যেই ডাকাতি করে চলে যায় তারা। এমনটিই দেখা যায় দোকানের সিসি ক্যামেরার ফুটেজে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে ক্রেতা মো. আরমান বলেন, আমি ওষুধ কেনার জন্য ফার্মেসিতে আসি। আমার পকেটে থাকা মানিব্যাগ ও মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। এখনও আমার ভয়ে গা কাঁপছে। ইউসিবিএল এটিএম বুথের সিকিউরিটি মো. সোহাগ বলেন, তিনজন ফার্মেসিতে ঢোকে, দুইজনের হাতে চাপাতি একজনের হাতে রড ছিল। সবার মুখে মাস্ক পরা। কিছু বুঝে ওঠার আগেই চাপাতি দিয়ে ক্রেতাকে মারতে থাকে। আমি বললাম, কী হয়েছে ভাই থামেন। এ কথা বলতে বলতে আমাদের চাপাতির ভয় দেখিয়ে দোকানের পেছনে নিয়ে যায়। অন্য দুইজন ল্যাপটপ ও ক্যাশের টাকা নিয়ে নেয়। গ্লাসের নিচে দৃশ্যমান ১০০ টাকার নোট ছিল সেটাও গ্লাস ভেঙে নিয়ে যায়। ফার্মেসির মালিক নাহিদ বিল্লাহ বলেন, তিনজন ফার্মেসিতে ঢুকে কাস্টমারকে চাপাতি দিয়ে মারতে শুরু করে। আমাদের দোকানের পেছনে নিয়ে গেল। ক্যাশে থাকা টাকা ও ল্যাপটপ নিয়ে গেল। আমরা দৌড়ে বের হলাম কিন্তু ততক্ষণে ট্রাক চলে গেছে। হোন্ডা নিয়ে শ্যামলী পুলিশ বক্স পর্যন্ত গেলাম পেলাম না। পরে মোহাম্মদপুর থানা পুলিশ ও র?্যাব-২ এর একটি টহল দল আসে। গতকাল বিকেলে মোহাম্মদপুর থানায় মামলা করেন নাহিদ। মোহাম্মদপুর থানার ওসি আবদুল লতিফ বলেন, আমি জেনে আপনাকে জানাব। র?্যাব-২-এর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আমরা ঘটনাটি জানতে পেরেছি। ইতোমধ্যে সিসি ফুটেজ সংগ্রহ করে কাজ শুরু করেছি। এ বিষয়ে তেজগাঁও বিভাগের উপপুলিশ কমিশনার বিপ্লব বিজয় তালুকদার বলেন, ফার্মেসির মালিক মামলা করেছে। উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। এ ছুটি ৯ এপ্রিল তথা শুক্রবার ও শনিবার মিলিয়ে ১১ এপ্রিল পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েছে। লম্বা এ ছুটি করোনাভাইরাসের আতঙ্কে অনেকেই ঢাকা ছেড়ে গ্রামের বাড়িতে পাড়ি জমিয়েছেন। এতে এখন অনেকটাই ফাঁকা ঢাকা। সন্ধ্যার পরপরই ঢাকার রাস্তায় মানুষের উপস্থিতি খুব একটা চোখে পড়ে না।

    মাথায় গামছা মুখে মাস্ক পরে ডাকাতি

    গত বুধবার রাত সাড়ে ১২টা থেকে ১টা, করোনাভাইরাসের কারণে চারদিকে সুনসান নীরবতা।

  • সড়কে জীবাণুনাশক পানি ছিটিয়েছে ট্যাংকলরী অ্যাসোসিয়েশন

    newsimage

    বাংলাদেশ ট্যাংকলরী ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে গত বুধবার ঢাকার প্রধান প্রধান সড়কে প্রায়

  • করোনা

    কর্মহীনদের সহায়তায় ডিএসসিসির হটলাইন চালু

    করোনাভাইরাসের প্রভাবে কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের সহায়তা পৌঁছে দিতে হটলাইন চালু করেছে

  • জিপিও ডাকঘর খোলা ৫ এপ্রিল থেকে

    দেশব্যাপী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলা এবং এর ব্যাপক বিস্তার রোধকল্পে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা

  • যশোরে

    যুবককে কুপিয়ে হত্যা

    ১০ আসামি গ্রেফতার

    যশোর শহরের খড়কি এলাকায় পূর্ব বিরোধের জের ধরে আল-আমিন (৩২) নামে এক

  • চট্টগ্রাম মহানগরীতে

    অ্যাডিস মশার প্রজনন ধ্বংস ওষুধ ছিটাচ্ছে ১৬৪ পরিচ্ছন্নকর্মী

    চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) পরিচ্ছন্ন কর্মীদের মশা ও অ্যাডিস মশার প্রজনন স্থান ধ্বংস

  • কাপ্তাইয়ে

    দুর্বৃত্তদের গুলিতে যুবলীগ নেতা নিহত

    রাঙ্গামাটির কাপ্তাই উপজেলার চিৎমরম ইউনিয়নের হেডম্যান পাড়ায় দুর্বৃত্তদের গুলিতে ওয়ার্ড যুবলীগের সহ-সভাপতি