• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮ ২০ জিলহজ ১৪৪২

বাজেট প্রশংসিত

বিএনপির সমালোচনা বিদ্বেষপ্রসূত : কাদের

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

| ঢাকা , শনিবার, ০৫ জুন ২০২১

বিএনপির বাজেট সমালোচনা তাদের অন্ধ বিদ্বেষপ্রসূত কথামালার চাতুরী দাবি করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, করোনার সংকটকালীন বাস্তবমুখী, সময়োপযোগী, ব্যবসা ও বিনিয়োগবান্ধব এবং সাধারণ মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের নিশ্চয়তা দিয়ে বাজেট পেশ করা হয়েছে। বাজেট সর্ব মহলে প্রশংসিত হয়েছে। গতকাল রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের প্রাথমিক সদস্য সংগ্রহ অভিযানের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়া, উত্তরের সাধারণ সম্পাদক এসএম মান্নান কচি প্রমুখ।

বিএনপি না থাকায় উপনির্বাচনে মনোনয়নের দৌড় বেড়েছে

ঢাকা-১৪, কুমিল্লা-৫ এবং সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচনে প্রার্থিতার বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, উপনির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করবে না শুনে আওয়ামী লীগে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের দৌড়-ঝাঁপ বেড়ে গেছে। তিনি বলেন, পায় আর না পায় সবাই প্রার্থী হতে চায়। কারণ বিএনপি নেই শুনেছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, নেত্রীর (আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) সঙ্গে নির্দিষ্ট কোন ব্যক্তির বিষয়ে আলোচনা হয়নি। সাধারণ একটি গাইডলাইন দিয়ে তিনি বলেছেন, ‘আমি ত্যাগী ও পরীক্ষিত কাউকে মনোনয়ন দেব। যারা জনগণের কাছে অধিকতর গ্রহণযোগ্য এবং দুঃসময়ে ছিলেন।’ গোয়েন্দা ও দলীয় রিপোর্টসহ নেত্রীরও নিজস্ব টিম মাঠপর্যায়ে খোঁজখবর নিচ্ছে জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, আগামী ১২ জুন মনোনয়ন বোর্ডের সভায় চূড়ান্ত করা হবে। ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতাদের মনোনয়ন দেয়া হবে।

পার্টির ইঞ্জিন ঢাকাকে সচল করতে হবে

ওবায়দুল কাদের বলেন, ঢাকার সিটির অসংখ্য কমিটি দুইজনের। অসংখ্য কর্মী কাজ করেন। সন্ধ্যার পর বাড়ি ফিরলে স্ত্রী ও মা-বাবা জিজ্ঞেস করলে পরিচয় বলতে পারে না। পরিচয় তারা আওয়ামী লীগ করে। অথচ পদ পড়ে আছে, কিন্তু দেয়ার কেউ নেই। যারা এই পরিচয় দেয়া থেকে বঞ্চিত করছেন, তারা সংগঠনকে বঞ্চিত করছেন। এই ঢাকা মহানগর উত্তরে ১৩০০-১৫০০ ইউনিট কমিটি রয়েছে। তিনি বলেন, নেতৃত্ব সৃষ্টি হবে কর্মীদের থেকে। তিনি বলেন, ঢাকা শহর হলো পার্টির ইঞ্জিন। ইঞ্জিন যদি না চলে বগি চলবে? একে সচল করতে হবে। এটাই আওয়ামী লীগের প্রাণ- যোগ করেন তিনি।

ঢাকার কমিটিতে স্থানীয়দের প্রাধান্য

সংগঠন গতিশীল করার বিষয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক বলেন, জেলা-উপজেলার মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটিগুলোর সম্মেলন শীঘ্রই শুরু করব। মহানগর উত্তরের সদস্য সংগ্রহের জন্য ২৭টি টিম করা হয়েছে। তিনি বলেন, ঢাকা মহানগরের কমিটি করার ক্ষেত্রে স্থানীয়দের প্রাধান্য দেয়া হবে। চিহিৃত চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী, ভূমিদস্যু, মাদাকাসক্ত এবং যারা স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তি, এদের কোনভাবে আওয়ামী লীগের সদস্য করা যাবে না। এটা আমরা বারবার বলেছি। আবারও স্মরণ করিয়ে দিচ্ছি।

জোয়ারে ভেসে আসা লোক দরকার নেই

ওবায়দুল কাদের বলেন, কাউকে খুশি ও দল ভারি করার জন্য দায়িত্বপ্রাপ্তরা যদি বিতর্কিত লোকদের টেনে আনে, তাহলে তাদেরও শাস্তির আওতায় আনতে হবে। প্রত্যেকটা টিমকে জবাবদিহি করতে হবে। যাদের সদস্য পদ দেয়া হবে, তাদের পরিচয়, ব্যাকগ্রাউন্ড পুরোপুরি জানতে হবে। হঠাৎ করে জোয়ারের সঙ্গে ভেসে এসে ক্ষমতার সঙ্গে আওয়ামী লীগ, আর কাজেকর্মে ভিন্ন, এই ধরনের লোকের দরকার নেই। ত্যাগীদের কোণঠাসা করলে দল কোণঠাসা হয়ে পড়ে। দুঃসময়ে তারাই পাশে থাকে। সুসময়ের কোকিলরা তখন সটকে পড়ে।