• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ২৮ বৈশাখ ১৪২৮ ২৮ রমজান ১৪৪২

ছুটির দিনে বেড়েছে বিকিকিনি

সংবাদ :
  • আবদুল্লাহ আল জোবায়ের

| ঢাকা , রোববার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২০

image

জাতীয় শহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে শুক্রবার ছুটির দিনে জমজমাট ছিল অমর একুশে গ্রন্থমেলা। এদিন বইমেলা প্রাঙ্গণে মানুষের ঢল নামে। বইমেলার দুই অংশেই (বাংলা একাডেমি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) তিল ধারণের ঠাঁইটুকু ছিল না। সর্বত্র ছিল মানুষের বিচরণ। একুশে ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে এদিন মেলায় সবচেয়ে বেশি বই বেচাকেনা হয়েছে। গতকাল ছিল অমর একুশে গ্রন্থমেলার ২১তম দিন। গতকাল মেলায় লোকসমাগম আগের দিনের চেয়ে কম হলেও মেলার শুরুর দিকের দিনগুলোর চেয়ে বিক্রি অনেক ভালো ছিল।

সরেজমিন গ্রন্থমেলার বাংলা একাডেমি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশ ঘুরে দেখা যায়, ছুটির দিন থাকায় সকাল ১১টায় বইমেলার দ্বার খোলে। সকাল থেকেই প্রচুর বইপ্রেমী ও দর্শনার্থী মেলায় আসতে থাকে। একুশে ফেব্রুয়ারির মতো গতকাল মেলায় জনস্রোত তেমন না থাকলেও একেবারে নগণ্য ছিল না। মেলা এখন শেষের দিকে। আর তাই শুরুর দিকে সময় করে উঠতে না পারা বইপ্রেমীরা এখন ছুটে আসছেন মেলায়।

ছুটির দিন থাকায় গতকাল বেলা ১১টা থেকে গ্রন্থমেলায় ছিল শিশুপ্রহর। চলে দুপুর ১টা পর্যন্ত। গতকাল বেলা ১২টায় বইমেলায় গিয়ে দেখা যায়, শিশুপ্রহর উপলক্ষে মেলার শিশু চত্বরে প্রচুর ভিড়। সবাই যেন শেষ মুহূর্তের কেনাকাটা করতেই বইমেলায় এসেছেন। মেলায় বই বিক্রি ভালো হওয়ায় খুশি বিক্রেতারাও। শুধু বই বিকিকিনি নয়, সিসিমপুরে খেলাধুলায় মেতে ছিল শিশুরা। প্রগতি পাবলিশার্সের বিক্রয়কর্মী রাব্বি বলেন, মেলায় আজ বড় বড় পাঠকের সঙ্গে অনেক ক্ষুদে পাঠকেরও আগমন ঘটেছে। সবাই ইচ্ছেমতো পছন্দের বই কিনছেন। ক্ষুদে এসব পাঠককে দেখলে অনেক ভালো লাগে। তাছাড়া বিক্রিও আজ অনেক ভালো।

বিকেলে বইমেলায় গিয়ে দেখা যায়, মেলা প্রাঙ্গণে মানুষের সমাগম গতকালের তুলনায় অনেক কম হলেও একেবারে নগন্য নয়। বিকেলে মানুষের আগমনের সঙ্গে সঙ্গে মেলায় বই বিক্রিও বাড়তে থাকে। এতে খুশি প্রকাশক ও বিক্রয়কর্মীরা। ঐতিহ্য প্রকাশনীর বিক্রয়কর্মী জনি বলেন, মেলা শেষ হতে আর মাত্র কয়েকটা দিন বাকি। প্রতিবছর এ সময়টাতে মেলায় মানুষের আগমন বেশি থাকে। পাশাপাশি বই বিক্রিও শেষের এ সময়টাতে বাড়ে। আমার মনে হয় এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। শোভা প্রকাশের বিক্রয়কর্মী আমজাদ বলেন, আমাদের স্টলে ২১ ফেব্রুয়ারির দিন বই বেশি বিক্রি হয়েছে। গতকাল মানুষের আনাগোনা আগের দিন (শুক্রবার) থেকে কিছুটা কমলেও বিক্রি একদম খারাপ ছিল না। রোদেলা প্রকাশনীর বিক্রয়কর্মী মোহাম্মদ সানী বলেন, মেলায় বিক্রি মোটামুটি ভালো। বিগত দিনগুলোর চেয়ে এখন মেলায় পাঠক সমাবেশ বেড়েছে। মেলার প্রথম পক্ষে (প্রথম ১৫ দিন) দর্শনার্থীদের সংখ্যা বেশি থাকলেও এখন শেষ পক্ষে এসে দর্শনার্থীদের সঙ্গে সঙ্গে মেলায় পাঠকদের আনাগোনা বেড়েছে।

এদিকে, গতকাল বিকেলে বন্ধুদের সঙ্গে মেলায় আসেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেম বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী আনিকা তাবাসসুম। তিনি বলেন, একুশে ফেব্রুয়ারির দিন মেলায় অনেক ভিড় হয়। তাই আজ আসলাম। মেলার পরিবেশ অনেক সুন্দর। এখানে এলেই মনে হয় কোন উৎসবে এসেছি। এক অন্যরকম ভালো লাগা কাজ করে। বন্ধুদের নিয়ে এসেছি; কিছুক্ষণ ঘুরবো। এরপর বই কিনে চলে যাব।