• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ১১ শ্রাবন ১৪২৮ ১৫ জিলহজ ১৪৪২

মশার ওষুধ ছিটানোয় গাফিলতি সহ্য করা হবে না স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

    সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
  • | ঢাকা , বুধবার, ২৪ জুন ২০২০

মশার ওষুধ ছিটানোতে কারও কোন গফলতি সহ্য করা হবে না উল্লেখ করে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারী থেকে শুরু করে জনপ্রতিনিধি সবাইকে জবাবদিহিতার মধ্যে থাকতে হবে। দায়িত্বশীল পদে বসে অতিরিক্ত কথা না বলে দায়িত্ব নিয়ে মানুষের বসবাসের জন্য স্বস্তিদায়ক পরিবেশ তৈরিতে কাজ করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনে দিনরাত নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন, তাই পদ দখল করে বসে না থেকে মানুষের জন্য, মানুষের কল্যাণে কাজ করতে হবে। অ্যাডিস মশা নিধনে অত্যন্ত গুণগত মানসম্পন্ন কীটনাশক আমদানি করায় এ বছরের শুরু থেকে অ্যাডিস মশার প্রকোপ অনেক কমেছে। ময়লা-আবর্জনা মুক্ত করে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন নগর গড়তে ঠিক মতো কাজ হচ্ছে কি না তা দেখতে নিয়মিতভাবে বিভিন্ন স্থান মাঝে মাঝে পরিদর্শন করা হবে বলে জানান তিনি।

গতকাল সচিবালয়ে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে নিজ কার্যালয়ে সারাদেশে ডেঙ্গুসহ মশাবাহিত রোগ প্রতিরোধ কার্যক্রম পর্যালোচনা নিয়ে অনলাইনে এক আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় এ কথা বলেন তিনি। সভায় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম, দক্ষিণের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস, স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ ও বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং ঢাকা ওয়াসার এমডিসহ বিভিন্ন দফতরের প্রধানরা অংশ নেন। সভায় অ্যাডিস মশা নিধন প্রতিরোধ কার্যক্রমে সিটি করপোরেশন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, কৃষি মন্ত্রণালয়, তথ্য মন্ত্রণালয়, পূর্ত বিভাগ এবং ঢাকা ওয়াসাসহ অন্য মন্ত্রণালয় এবং বিভাগের ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালনে সন্তোষ প্রকাশ করে সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জানান মন্ত্রী।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অভিপ্রায় অনুযায়ী ঢাকা এবং এর আশপাশের বুড়িগঙ্গা, তুরাগসহ বিভিন্ন নদ-নদী দখলমুক্ত করে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে একটি মাস্টার প্ল্যান তৈরি করা হয়েছে। এ নিয়ে শীঘ্রই একটি সভা আহ্বান করার জন্য ওয়াসা কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন মো. তাজুল ইসলাম।

নগরবাসীকে নিজেদের বাড়ি ও এর আশপাশে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখার আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, অ্যাডিসের লার্ভা কোনক্রমেই যেন তৈরি না হয় সেদিকে সবাইকে নজর রাখতে হবে। মশার ওষুধ ছিটানোতে কারও কোন গফলতি সহ্য করা হবে না। সার্বক্ষণিক তদারকি এবং ব্যক্তিগতভাবে বিভিন্ন স্থান পরিদর্শন করায় কাজে গতি এবং স্বচ্ছতা এসেছে বলে জানান তিনি।