• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

বৃহস্পতিবার, ০৫ আগস্ট ২০২১, ২১ শ্রাবণ ১৪২৮ ২৫ জিলহজ ১৪৪২

তিতাস ও বুড়ির নাব্য সংকট

সারাদেশের সঙ্গে নৌযোগাযোগ হুমকিতে

সংবাদ :
  • আসাদুজ্জামান কল্লোল, (ব্রাহ্মণবাড়িয়া)

| ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২০

image

নবীনগর, (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) : জোয়ারের অপেক্ষায় ঘাটে বাধা নৌকা -সংবাদ

অদ্ধৈত মল্ল বর্মণের সাড়া জাগানো উপন্যাস ‘তিতাস একটি নদীর নাম’। সেই তিতাসের অস্তিত্ব এখন হুমকির মুখে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরের তিতাস নদীর নাব্যতা না থাকায় সারাদেশের সঙ্গে নবীনগরের নৌপথে চলাচল বন্ধের পথে। লঞ্চ ও বড় নৌকা ভাটার সময় বন্ধ হয়ে যায়। ঘাটে বসে নারী, শিশু ও রোগীদের অপেক্ষা করতে হয় কখন নদীতে জোয়ার আসবে। এ এক চরম দুর্ভোগ। সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নবীনগর পৌর শহরের পূর্বপাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া তিতাস নদীর নাব্যতা হারিয়ে যাওয়ার কারণে একটি কাঠ বোঝাই নৌকা তিতাস নদীর ‘মনোবাবুর ঘাট’ এর সামনে আটকে যায়। নবীনগর লঞ্চঘাট থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ভৈরব, নরসিংদীতে কোন লঞ্চ ও কার্গোসহ অন্য নৌযান দেশের কোথাও নিয়মিত ছেড়ে যেতে পারে না। ফলে চরম ভোগান্তিতে পড়ে সাধারণ যাত্রী ও পণ্য আমদানিকারকরা। লঞ্চ চালক হানিফ ও কালাম জানান, নবীনগরের তিতাস নদী খনন করা হলে ও নদীতে পানি কমে যাওয়ায় আমাদের ২৭টি লঞ্চ চলাচল বন্ধের পথে। তিতাসের এক দিকে চর পড়ে নদীর প্রস্থ কমে যাওয়ায় একইসঙ্গে দুটি লঞ্চ অতিক্রম করতে পারে না। অপরদিকে তিতাস সংলগ্ন বুড়ি নদী নবীনগর থেকে কালিগঞ্জ পর্যন্ত ১৫ কিলোমিটার; নদীর তলদেশ শুকিয়ে যাওয়ায় হাজার হাজার একর জমির ইরি বোরো ধান ক্ষেত সেচ সঙ্কটে পড়েছে। বুড়ি নদীতে জোয়ারের সময় বোরো স্কিমের পাম্পগুলো চলে, ভাটার সময় বন্ধ থাকে। উপজেলা চেয়ারম্যান মো.মনিরুজ্জমান মনির বলেন, তিতাস ও বুড়ি নদী ড্রেজিং এর কাজ চলছে, সমস্যা হল বুড়ি নদীর শাখাগুলো। সাংসদ এবাদুল করিম বুলবুল বলেছেন, বুড়ি নদীর শাখাগুলো সরু হওয়ায় ড্রেজার দিয়ে কাটা সম্ভব না। তবে অচিরেই তা খননের ব্যবস্থা নেয়া হবে।