• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ২৮ বৈশাখ ১৪২৮ ২৮ রমজান ১৪৪২

গৌরনদীতে সরকারি গাছ কাটার অভিযোগে মামলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক, বরিশাল

| ঢাকা , শনিবার, ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২০

সড়কের পাশের সরকারি গাছ কেটে নেবার অভিযোগে বরিশালের গৌরনদী উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক এবং মাহিলাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা সৈকত গুহ পিকলুর বিরুদ্ধে হাইকোর্টে একটি রিট করা হয়েছে। বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কেএম হাফিজুল আলমের দ্বৈত বেঞ্চে ইউপি চেয়ারম্যান পিকলুর বিরুদ্ধে রিট আবেদনটি করেছেন উপজেলার মাহিলাড়া ইউনিয়ন পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির সভাপতি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আনোয়ার হোসেন রাঢ়ি। রিট আবেদনের শুনানি শেষে আদালত সড়কের পাশের সরকারি সড়কের গাছ কাটার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে আগামী ৬ মাসের মধ্যে আইনগত ব্যবস্থা নিতে দুদক চেয়ারম্যানের প্রতি নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

বাদী তার রিট আবেদনে অভিযোগ করেন, ২০১৯ সালের জুন মাসে গৌরনদী উপজেলার মাহিলাড়া ইউনিয়নের এফসিডি প্রকল্পের আওতায় ৪ কিলোমিটার বেড়িবাঁধের দুইপাশে বিভিন্ন প্রজাতির ৩৮০টি গাছ ছিল। চেয়ারম্যান সৈকত গুহ পিকলু কাউকে না জানিয়ে তার লোকজন দিয়ে ওই গাছগুলো কেটে নিয়ে আত্মসাৎ করেছেন। এ ছাড়া ২০১৬ সাল থেকে চেয়ারম্যান পিকলু কয়েক দফায় একই প্রকল্পের কয়েকশ গাছ কেটে আত্মসাৎ করেছেন। যার মূল্য প্রায় ১৫ লাখ টাকা বলে দাবী করে এ ঘটনায় উপজেলা এলজিইডি অফিস, বন বিভাগ, স্থানীয় থানা ও বরিশালের দুদক কার্যালয়ে অভিযোগ করা হলেও অজ্ঞাত কারণে চেয়ারম্যান পিকলুর বিরুদ্ধে কেউ কোন ব্যবস্থা নেয়নি বলে অভিযোগ করেন রিট পিটিশনকারী।

রিটকারীর অভিযোগকে সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন দাবি করে চেয়ারম্যান সৈকত গুহ পিকলু সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, সামাজিক বনায়ন কর্মসূচির আওতায় ১৯৯৯ সালে বরিশাল সড়ক বিভাগের সঙ্গে আমার একটি চুক্তি হয়েছিল। ওই চুক্তি বলে অর্ধেক গাছের মালিক আমি ও জমির মালিকরা। সম্প্রতি সড়কের পাশের ওই গাছগুলো জমির মালিকরা কেটে নিয়ে গেছে। এতে আমার কোন সংশ্লিষ্টতা ছিল না। একটি প্রভাবশালী মহল আমার ভাবমূর্তি নষ্ট করতে চেষ্টা চালাচ্ছে। এ ঘটনা তারই একটি অংশ বলেও দাবি করেন চেয়ারনম্যান পিকলু গুহ।