• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

সোমবার, ০২ আগস্ট ২০২১, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৮ ২২ জিলহজ ১৪৪২

কলারোয়ায় মাছ চুরিতে বাধা : আহত দুই

সংবাদ :
  • প্রতিনিধি, কলারোয়া (সাতক্ষীরা)

| ঢাকা , রোববার, ০৭ জুলাই ২০১৯

কলারোয়ায় ফিরাজতুল্যা গাজী (৪৫) নামে এক মাছ চাষির ওপর সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। গত বুধবার রাত ৮টার দিকে তাকে গুরুতর জখম অবস্থায় কলারোয়া সরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এ ঘটনায় ৪ জন সন্ত্রাসীর নাম উল্লেখ্য করে কলারোয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের হয়েছে। অভিযোগ সূত্রে ও আহত মাছ চাষির ছেলে মোস্তফা কামাল জানান, উপজেলার আলাইপুর গ্রামে একটি মাছের ঘের আছে তাদের। সেই ঘের থেকে মাস খানিক যাবত মাছ চুরি হচ্ছে। এজন্য গত বুধবার রাতে ওই ঘেরে পাহারা দেন। রাত ৮টার দিকে উপজেলার আইলপুর গ্রামের মাজেদ গাজীর ছেলে ইউসুফ আলী (২৪) ও একই গ্রামের মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে হযরত মোড়ল (২২) তার ঘেরে জাল দিয়ে চুরি করে মাছ ধরে। এ সময় তিনি জালের শব্দ শুনে টর্চ লাইট মেরে উক্ত চোরদের তাড়া করেন। চোরেরা জাল নিয়ে দৌড়ে বাড়িতে চলে আসে। তখন ঘের মালিক ফিরাজতুল্লা চোরেদের পিছু নিয়ে তাদের বাড়িতে এসে ঘেরে মাছ ধরতে নিষেধ করলে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। এক পর্যায়ে মাছ চোর ইউসুফ গাজী, হযরত মোড়ল, মাজেদ গাজী, আকলিমা খাতুন দলবদ্ধ হয়ে লোহার রড ও সাবল দিয়ে এলোপাতাড়িভাবে পিটিয়ে সারা শরীর জখম করে মাথা ফাটিয়ে দেয়। পরে তার ডাকচিৎকারে ছেলে ব্যবসায়ী মোস্তফা কামাল এগিয়ে আসলে তাকেও ধরে বেধড়ক পিটিয়ে তার কাছে থাকা নগদ ২৫ হাজার ৮শ টাকা ছিনিয়ে নেয়।

পরে স্থানীয় লোকজন মাছ চাষি ফিরাজতুল্লা কে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। এদিকে ব্যবসায়ী মোস্তফা কামাল আরও জানান, হাতে নাতে মাছ চোর ধরে ফেলাতে তার পিতার ওপর এ সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। অন্যদিকে অভিযুক্ত ব্যক্তিদের ফোন বন্ধ থাকায় বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। এ বিষয়ে কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুনীর-উল-গীয়াস জানান আহতদের দেয়া একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন।