• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

সোমবার, ১০ মে ২০২১, ২৭ বৈশাখ ১৪২৮ ২৭ রমজান ১৪৪২

তথ্যই অর্থনীতির শক্তি - আতিউর রহমান

    সংবাদ :
  • অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক
  • | ঢাকা , সোমবার, ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২১

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. আতিউর রহমান বলেছেন, তথ্যই অর্থনীতির শক্তি। বৃহত্তম পুঁজি ও ডেটা ম্যানেজমেন্টই বাংলাদেশে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স প্রয়োগের মূল চাবিকাঠি। গত বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত মাইক্রো ফিন্যান্স ক্রেডিট ইনফরমেশন ব্যুরো (এমএফ-সিআইবি) মাইক্রো ক্রেডিট খাতে বিষয়ে বিজনেস ফিন্যান্স ফর দ্য পুওর ইন বাংলাদেশ (বিএফপি-বি) প্রোগ্রামের একটি আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। যুক্তরাজ্য সরকারের ফরেন, কমনওয়েলথ এবং ডেভেলপমেন্ট অফিসের অর্থায়নে প্রোগামটি পরিচালিত হয়। অনুষ্ঠানে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ, মো. আসাদুল ইসলাম প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এফসিডিও-এর ডেপুটি টিম লিডার আফসানা ইসলাম, বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর কাজী সায়েদুর রহমান বিশেষ অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেছেন। ড. আতিউর রহমান বলেন, তথ্য হলো অর্থনীতির শক্তি এবং বৃহত্তম পুঁজি এবং ডেটা ম্যানেজমেন্টই বাংলাদেশে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স প্রয়োগের মূল চাবিকাঠি। আমরা মহামারী সংকট থেকে বেরিয়ে আসার যে স্বপ্ন দেখছি সেক্ষেত্রে বড় ভূমিকা রাখতে পারে মাইক্রো ফিন্যান্স।

প্রধান অতিথি সিনিয়র সচিব আসাদুল ইসলাম বলেন, এই সেক্টর অনানুষ্ঠানিক সেক্টরের ক্লায়েন্টদের সঙ্গে কাজ করে।

এ কারণেই আমাদের এই সেক্টরের তথ্যে সঠিক অ্যাক্সেস নেই। যেহেতু, আমাদের কাছে তাদের তথ্য নেই। আমরা তাদের কাছে পৌঁছাতে পারি না। ফলে তারা বেশিরভাগই আনুষ্ঠানিক খাতে সরবরাহ করা সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয়। মাইক্রো ফিন্যান্স ক্রেডিট ইনফরমেশন ব্যুরোর (এমএফ-সিআইবি) উদ্দেশ্য হলো ক্ষুদ্রঋণ খাত সম্পর্কিত তথ্য সংগ্রহ করা এবং এই তথ্য দিয়ে ক্ষুদ্রঋণ খাতে সুবিধা সরবরাহ করার কাজে সহযোগিতা করা।

এমআরএ-এর নির্বাহী ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক গর্ভনর মো. ফশিউল্লাহ বলেন, মাইক্রো ফিনান্স ক্রেডিট ইনফরমেশন ব্যুরোর (এমএফ-সিআইবি) ক্রেডিট তথ্য বিশ্লেষণ করে এবং ব্যবহার করে ক্ষুদ্রঋণ খাতটির বিকাশের মাধ্যমে আমরা প্রধানমন্ত্রীর দারিদ্র্য ও ক্ষুধা মুক্ত, উন্নত বাংলাদেশ এবং জাতির পিতার একটি সমৃদ্ধ সোনার বাংলার স্বপ্নকে সামনে নিয়ে যাবো।

বেসরকারি সেক্টরের উপদেষ্টা ও এফসিডিও-এর ডেপুটি টিম লিডার আফসানা ইসলাম তার বক্তব্যে বলেন, মাইক্রো ক্রেডিট খাতে তথ্যের অসামঞ্জস্যতা বরাবরই সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। ইউকে এইডের সাহায্যে, আমরা আশা করি মাইক্রো ফিনান্স ক্রেডিট ইনফরমেশন ব্যুরো বাংলাদেশের ছোট ঋণ গ্রহীতাদের মধ্যে এক বড় পরিবর্তন আনবে।

এমএফসিআইবি-এর আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞ জিম আজিজ, নাথান অ্যাসোসিয়েটসের গ্লোবাল প্র্যাকটিসেসের প্রধান বুদ্ধিকা সমরসিংহে, বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. আতিউর রহমান এবং অর্থ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ, অরিজিৎ চৌধুরীও অধিবেশনটির সঙ্গে সংযুক্ত ছিলেন।

বিজনেস ফিন্যান্স ফর দ্য পুওর ইন বাংলাদেশ (বিএফপি-বি) ২০১৮ সাল থেকে এমএফ-সিআইবি এর বাস্তবায়নে বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রযুক্তিগত সহায়তায় মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি অথরিটিরর (এমআরএ) সঙ্গে কাজ শুরু করে। বিগত ৩১ মাসের সময়কালে, এই প্রোগ্রামটি প্রয়োজনীয় সমস্ত বড় কার্যক্রমকে সমর্থন ও সম্পন্ন করেছে যা বাংলাদেশে আর্থিক অন্তর্ভুক্তকরণের জন্য একটি ঐতিহাসিক মাইলফলক।

বিজনেস ফিন্যান্স ফর দ্য পুওর ইন বাংলাদেশ (বিএফপি-বি) আর্থিক খাতে বাজার আচরণ পরিবর্তন করে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের জন্য অর্থনৈতিক সুযোগ তৈরি করার একটি সুবিধা। ২০১৫ থেকে ২০১৯ সাল থেকে সংস্থাটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের জন্য নীতি ও নিয়ন্ত্রক পরিবেশ উন্নয়নের লক্ষ্যে কাজ করেছে, বেসরকারি খাতের বিনিয়োগকে অর্থের সীমানা সম্প্রসারণে এবং ক্ষুদ্র ব্যবসায়ের ক্ষুদ্রঋণ যোগ্যতা বাড়ানোর লক্ষ্যে কাজ করে। বর্তমানে তারা মাইক্রো ফিনান্স খাতে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহীতাদের যোগ্যতা বাড়াতে মাইক্রো ফিনান্স ক্রেডিট ইনফরমেশন ব্যুরো (এমএফ-সিআইবি) প্রতিষ্ঠার জন্য মাইক্রো ক্রেডিট রেগুলেটরি অথরিটিকে সহায়তা করছে।