• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

বৃহস্পতিবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ৫ রবিউল সানি ১৪৪০

সেলিনা পারভীন

| ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮

image

জন্ম : ৩১ মার্চ, ১৯৩১, কল্যাণনগর, ফেনী

মৃত্যু : ১৪ ডিসেম্বর, ১৯৭১, ঢাকা

সেলিনা পারভীন বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম শহীদ। তার বাবা মৌলবি আবিদুর রহমান, মা মোসাম্মৎ সাজেদা খাতুন। শৈশবে তার পিতৃদত্ত নাম ছিল মনোয়ারা বেগম মনি, পরবর্তীতে তিনি সেলিনা পারভীন নাম নেন। ফেনীর সরলা বালিকা বিদ্যালয়ে পড়াশোনা শুরু করলেও দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কারণে ১৯৪২ সালে শিক্ষাজীবন বিঘিœত হয়। ১৯৪৯ সালে ম্যাট্রিক পরীক্ষায় (প্রাইভেট) অংশগ্রহণ করলেও উত্তীর্ণ হতে পারেননি।

সেলিনা পারভীন ঢাকায় আসেন ১৯৫৬ সালে। নানান চড়াই-উৎড়াই পেরিয়ে ১৯৬৬ সালে সাপ্তাহিক বেগম পত্রিকায় যোগদান করেন। ১৯৬৭ সাল থেকে আমৃত্যু সাপ্তাহিক ললনা নামক একটি পত্রিকায় কাজ করেন। তিনি শিলালিপি নামে একটি পত্রিকা সম্পাদনা করতেন। মুক্তিযুদ্ধের সময় পত্রিকাটির প্রচ্ছদ ও অন্যান্য রচনা পাকিস্তানি শোষকদের কাছে গ্রহণযোগ্য হয়নি। এ কারণে তাকে হানদার বাহিনীর রোষানলে পড়তে হয়।

তিনি মুক্তিযুদ্ধের সময় ঢাকায় গেরিলা ও মুক্তিযোদ্ধাদের সক্রিয়ভাবে সহায়তা করেছেন। একাত্তরের ১৩ ডিসেম্বর আলবদর বাহিনীর লোকেরা তার সিদ্ধেশ্বরীর বাসা থেকে তাকে ধরে নিয়ে যায়। ১৪ ডিসেম্বর অন্যান্য দেশবরেণ্য বুদ্ধিজীবীদের মতো তাকেও রায়েরবাজার বধ্যভূমিতে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। ১৮ ডিসেম্বর শহীদ সেলিনা পারভীনের দাফন হয় আজিমপুর নতুন গোরস্তানে।

ইন্টারনেট