• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০, ২০ আষাঢ় ১৪২৭, ১২ জিলকদ ১৪৪১

রাজবাড়ী জেলায় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় চাই

| ঢাকা , শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০

বর্তমান পৃথিবীর চালিকাশক্তি হচ্ছে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি। আগামীতে যে দেশ যত বেশি নতুন নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবন করবে এবং তার যথাযথ প্রয়োগ করবে তাদের হাতেই চলে যাবে পৃথিবীর নিয়ন্ত্রণের চাবিকাঠি। তাই একটি দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের প্রধান শর্ত হিসেবে মানসম্মত আধুনিক শিক্ষাকে বিবেচনা করা হয়। কিন্তু ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার এ বাংলাদেশে প্রতিনিয়ত যে হারে ছাত্রছাত্রী বৃদ্ধি পাচ্ছে তার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে আধুনিক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি শিক্ষার প্রসার হচ্ছে না। তাই এই ক্রমবর্ধমান ছাত্রছাত্রীদের আধুনিক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি শিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তুলতে অধিকসংখ্যক মানসম্মত আধুনিক বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ও প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা একান্ত প্রয়োজন।

রাজবাড়ী জেলাটি নদীবেষ্টিত কৃষিনির্ভর একটি মনোমুগ্ধকর জনপদ। রাজবাড়ীকে ১৯৮৪ সালে জেলা হিসেবে ঘোষণা করা হয়। জেলা হিসেবে ঘোষণা করা হলেও রাজবাড়ীতে এখনো আধুনিক উচ্চশিক্ষার জন্য কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গড়ে ওঠেনি। যার ফলে রাজবাড়ীসহ আশপাশের জেলার ছাত্রছাত্রীরা উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত হওয়ার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে বিশেষ করে এই এলাকার মেয়েরা। এ কারণে রাজবাড়ী জেলার জনগণ আর্থ-সামাজিকভাবে দেশের অন্য জেলা থেকে পিছিয়ে পড়ছে। আমরা জানি কোন জেলায় একটি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপিত হলে ওই এলাকায় ধীরে ধীরে উচ্চশিক্ষার হার বেড়ে যেতে থাকে এবং গড়ে উঠতে থাকে অবকাঠামো। যার ফলে ওই এলাকার আর্থ-সামাজিক অবস্থার আমূল পরিবর্তন আসে। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার কাছে রাজবাড়ীবাসীর প্রাণের দাবি এ জেলায় একটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা হোক।

বাংলাদেশকে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের বাংলাদেশ বিনির্মাণে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিনির্ভর উচ্চশিক্ষা অপরিহার্য। বাংলাদেশ আজ ধাপে ধাপে উন্নত দেশের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে, এই উন্নয়নের ধারাকে আরো বেগবান করার জন্য তথ্য ও প্রযুক্তিনির্ভর শিক্ষার কোনো বিকল্প নেই। এই তথ্য ও প্রযুক্তিনির্ভর শিক্ষাই পারে আমাদের এই বিশাল জনগোষ্ঠীর কর্মসংস্থানের দ্বার উন্মোচন করতে। আমাদের পাশের দুইটি দেশ চীন এবং ভারত তাদের ছাত্রছাত্রীদের তথ্য ও প্রযুক্তিনির্ভর উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত করে সুফল পাচ্ছে। আজ সারা বিশ্বের বড় বড় তথ্য ও প্রযুক্তির প্রতিষ্ঠানগুলোতে চীন এবং ভারতে ছাত্রছাত্রীরা রাজত্ব করছে।

আমাদের দেশের জন্য আশার কথা হচ্ছে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার তথ্য ও প্রযুক্তি শিক্ষার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেছেন। ইতিমধ্যে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ও প্রকৌশল শিক্ষার সম্পসারণের জন্য প্রতিটি জেলায় একটি করে বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের ঘোষণা দিয়েছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী, অনেকগুলো জেলাতে বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপিত হয়েছে এবং আরো কিছু জেলায় বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের কাজ চলছে।

মানব জাতির সার্বিক উৎকর্ষ ও সমৃদ্ধি অর্জনের জন্য বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির ভূমিকা অপরিহার্য। তাই পশ্চাৎপদ এই রাজবাড়ী জেলার আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়নে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি শিক্ষার কোনো বিকল্প নেই। আমাদের রাজবাড়ী জেলায় ভালো পরিবেশে স্বল্পমূল্যে পর্যাপ্ত জমির ব্যবস্থা রয়েছে- যা একটি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জন্য অনেক সহায়ক ভূমিকা রাখবে।

বহুকৌণিক দিক থেকে রাজবাড়ীতে একটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন এখন সময়ের দাবিতে পরিণত হয়েছে। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে রাজবাড়ীবাসীর একান্ত চাওয়া- এই জেলাতে একটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের ঘোষণা দেয়া হোক। আমাদের এই দক্ষিণাঞ্চলের সব বড় বড় উন্নয়ন যেহেতু মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছাড়া হয়নি, তাই এই কাজটিও তার হাত ধরেই হবে- এটাই আমরা রাজবাড়ীবাসী প্রত্যাশা করছি।

রাজবাড়ীতে একটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জন্য রাজবাড়ী জেলার সব রাজনীতিবিদ, শিক্ষক, সাংবাদিক, শিল্প-সাহিত্যিক, সরকারি কর্মকর্তা, অন্যান্য পেশাজীবী এবং ছাত্রছাত্রীসহ সবাইকে যার যার অবস্থান থেকে যথাযথ ভূমিকা রাখার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি।

মোহাম্মদ আমজাদ হোসেন

সহকারী অধ্যাপক

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়