• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০ মহররম ১৪৪২, ১১ আশ্বিন ১৪২৭

শিথিল লকডাউন

সরকারের নির্দেশনা কার্যকর করবে কে

| ঢাকা , সোমবার, ১৮ মে ২০২০

নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধের লক্ষ্যে দেয়া সরকারের নির্দেশনা ও শর্ত মানা হচ্ছে না। গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর থেকে জানা গেছে, কিছু ব্যতিক্রম ছাড়া সংশ্লিষ্ট প্রতষ্ঠান বা ব্যক্তি সরকারি নির্দেশনা উপেক্ষা করে কার্যক্রম চালাচ্ছে। সাধারণ মানুষের মধ্যেও স্বাস্থ্যবিধি মানার প্রবণতা কম। জনমানুষের জীবনযাপন ও জীবিকার প্রশ্নে সরকার লকডাউন শিথিল করেছে। অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড চালু করার পূর্বে সরকারের তরফ থেকে সুনির্দিষ্ট শর্ত দেয়া হয়। বাস্তবে এসব শর্ত মানা হচ্ছে না। এ কারণে কোভিড-১৯ রোগের সংক্রমণ বাড়তে পারে বলে বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

লকডাউন শিথিল করা হলে যে কোভিড-১৯ রোগের সংক্রমণ বাড়বে সেটা বিশেষজ্ঞরা আগেই বলেছিলেন। বিশেষজ্ঞদের ভবিষ্যদ্বাণী উপেক্ষা করে তারপরও সরকার লকডাউন ব্যাপক হারে শিথিল করেছে। এখন করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা হুহু করে বাড়ছে, মৃত্যুও বাড়ছে। প্রশ্ন হচ্ছে, লকডাউনি শিথিল করা হয়েছিল কিসের ভরসায়। কিছু নির্দেশনা কাগজে লিখে বা মুখে বলে দিলেই কি কার্যকর হবে। লকডাউন শিথিল করার শর্ত মানা হচ্ছে কিনা সেটা নিশ্চিত করবে কে। লকডাউন শিথিল করার ফলে লাখো মানুষ প্রতিদিন পথে নামছেন। এত মানুষের কার্যক্রম কে মনিটর করবে। করোনাভাইরাস প্রতিরোধের লক্ষ্যে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী শুরুতে যে তৎপরতা দেখিয়েছিল সেটা এখন কমে এসেছে। এ অবস্থায় ব্যক্তি সচেতনতার বিকল্প নেই। নয়তো হার্ড ইমিউনিটি অর্জন ভিন্ন করোনাভাইরাসকে প্রতিরোধ করা যাবে না। হার্ড ইমিউনিটি অর্জনের জন্য কত মানুষকে প্রাণ হারাতে হবে আর কতজনকে রোগাক্রান্ত হতে হবে- সেটা একটা প্রশ্ন।

লকডাউন শিথিল করার শর্ত লঙ্ঘনের ঘটনায় সরকারের মধ্যেও হতাশা রয়েছে, শর্ত না মানার কারণে কিছু কিছু ক্ষেত্রে মার্কেট বন্ধ করা হচ্ছে। তবে কোন কারখানা বন্ধ করা হয়েছে বলে জানা যায়নি। বাস্তবতা হচ্ছে, লকডাউন শিথিল করে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করা কঠিন। করোনাভাইরাস সংক্রমণের চূড়া না দেখেই সরকার কেন কঠিন একটি পথ বেছে নিল সেটা আমাদের বোধগম্য নয়। এখনও সময় আছে। অন্তত চলতি মাসটা কঠোর লকডাউন মেনে চলা জরুরি। যেসব প্রতিষ্ঠান লকডাউনের শর্ত মানছে না সেসব প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা নিতে হবে। পুনরায় কঠোর লকডাউন আরোপ করা গেলে সবচেয়ে ভালো হয়।