• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৬ রবিউস সানি ১৪৪২

ট্রাইব্যুনাল গঠন করে ৫৬ হাজার মাদক মামলার নিষ্পত্তি করুন

| ঢাকা , বুধবার, ২৪ জুলাই ২০১৯

সারা দেশে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে দায়ের হওয়া প্রায় ৫৬ হাজার মামলার কার্যক্রম আটকে গেছে বলে জানা গেছে। নতুন আইন পাস হওয়ার পর ৭ মাস কেটে গেলেও সরকার আইন অনুযায়ী ট্রাইব্যুনাল গঠন করেনি। কাজ চালাচ্ছিল পুরনো আইনে। এ বিষয়টি আদালতের নজরে এলে আটকে যায় মামলার কার্যক্রম।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১৮ পাস হয় গত বছরের ২৭ ডিসেম্বর। ওই আইনের ৪৪ ধারায় বলা হয়েছে- আইনের উদ্দেশ্যে পূরণে সরকার সরকারি গেজেট প্রজ্ঞাপন দিয়ে মাদকদ্রব্য অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনাল স্থাপন করতে পারবে। অতিরিক্ত জেলা জজ পদমর্যাদার কর্মকর্তারা ট্রাইব্যুনালের বিচারক হবেন। আর ট্রাইব্যুনাল স্থাপিত না হওয়া পর্যন্ত সরকার প্রজ্ঞাপন জারি করে সংশ্লিষ্ট জেলার যে কোন অতিরিক্ত জেলা জজ বা দায়রা জজকে তার নিজ দায়িত্বের অতিরিক্ত ট্রাইব্যুনালের দায়িত্ব দিতে পারবে।

৭ মাস পেরিয়ে যাওয়ার পরও সরকার কেন ট্রাইব্যুনাল গঠনে উদ্যোগ নেয়নি- সেটাই প্রশ্ন। পাশাপাশি আইনের ধারাটি সংশোধনে আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সুপারিশও গ্রাহ্য করেনি। যে কারণে এ সমস্যা তৈরি হয়েছে। সরকার ট্রাইব্যুনাল গঠন না করার কারণেই মামলাগুলো আটকে আছে এবং মামলা নিষ্পত্তি হচ্ছে না। সরকার যদি সঙ্গে সঙ্গে ট্রাইব্যুনাল গঠন করত তাহলে ৫৬ হাজার মামলা আটকে থাকত না। ট্রাইব্যুনাল গঠন না করার কারণে মাদক মামলার আসামিরা ছাড়া পেয়ে যাচ্ছে এবং পুনরায় মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ছে। সরকার মাদকের বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি ঘোষণা করেছে। অথচ ট্রাইব্যুনাল গঠন করেনি বিগত ৭ মাসেও। ট্রাইব্যুনাল গঠন না করলে মামলা আটকে থাকাটাই স্বাভাবিক।

আমরা চাই, দ্রুত ট্রাইব্যুনাল গঠন করা হোক। মামলাগুলোকে ট্রাইব্যুনালের আওতায় এনে দ্রুত নিষ্পত্তি করা হোক। মামলার আসামিরা ছাড়া পেয়ে যাতে পুনরায় মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে না পড়ে সেজন্য আর কালক্ষেপণ না করে দ্রুত এ কাজটি সম্পন্ন করতে হবে।