• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ৬ ফল্গুন ১৪২৬, ২৪ জমাদিউল সানি ১৪৪১

গুলিস্তান ও পুরানা পল্টনে বসানো বিলবোর্ড দ্রুত অপসারণ করুন

| ঢাকা , শুক্রবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২০

রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ সড়কে ফের বিলবোর্ড বসানো শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে গুলিস্তান ও পুরানা পল্টনে চারটি বড় আকারের বিলবোর্ড স্থাপন করা হয়েছে। অথচ ৪ বছর আগে নগরে বিলবোর্ড, ব্যানার, ফেস্টুন লাগানো অবৈধ ঘোষণা করেছিল ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)। কিন্তু এসব বিলবোর্ড কে স্থাপন করেছে-খোদ ডিএসসিসিই তা বলতে পারছে না। গত বুধবার এ নিয়ে সহযোগী দৈনিক সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

২০১৫ সালের ডিসেম্বরে নগরের সব বিলবোর্ড, ব্যানার, ফেস্টুন অপসারণ করেছিল ডিএসসিসি। কিন্তু এখন আবার বসানো শুরু হলেও ডিএসসিসির কোন তৎপরতা দেখা যাচ্ছে না।

বিলবোর্ড নাগরিক নিরাপত্তার জন্য খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। বড় ধরনের ঝড়-তুফান হলে তা ভেঙে পথচারীদের ওপর পড়ার আশঙ্কা থাকে। এছাড়া বিলবোর্ড শহরের সৌন্দর্যও নষ্ট করে। বিলবোর্ড যে ঝুঁকিপূর্ণ নাগরিক নিরাপত্তার জন্য, সেটা জেনেই ৪ বছর আগে বিলবোর্ড বসানো অবৈধ ঘোষণা করেছিল ডিএসসিসি। এখন ডিএসসিসিই বলতে পারছে না যে এগুলো কে বসিয়েছে। যারা বসিয়েছে তাদের খুঁজে বের করে আইনি ব্যবস্থা নিতে হবে ডিএসসিসি কর্তৃপক্ষকেই। বস্তুত এসব বিলবোর্ড অবৈধভাবে বসিয়ে পুনরায় বাণিজ্য করছে একটি কুচক্রী ও প্রভাবশালী মহল।

অতীতেও অর্থাৎ বিলবোর্ড অবৈধ ঘোষণার আগেও রাজধানীজুড়ে বিলবোর্ড বসিয়ে রমরমা বাণিজ্য করেছিল তখনকার ব্যবসায়ীরা। এখন থেকে যদি বিলবোর্ড অপসারণ করা না হয়, তাহলে সেই আগের মতোই অবস্থা হবে এতে কোন সন্দেহ নেই। তাদের তো উচিত ছিল বিষয়টি জানার পরপরই আইনি ব্যবস্থা নেয়া। সেটাও বা তারা করল না কেন?

আমরা চাই, অবিলম্বে গুলিস্তান ও পুরানা পল্টনের চারটি বিলবোর্ড বসানোর কাজ অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে। কে বা কারা এর সাথে জড়িত, সেটা বের করে ব্যবস্থা নিতে হবে। বিলবোর্ড যাতে আর না বসানো হয়, সেদিকে কঠোর নজরদারি রাখতে হবে।