• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

শনিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০১৯, ৬ মাঘ ১৪২৫, ১২ জমাউল আওয়াল ১৪৪০

অবিলম্বে অ্যান্টি টেররিজম ইউনিটের বিধিমালা প্রণয়ন করুন

| ঢাকা , শনিবার, ১২ জানুয়ারী ২০১৯

জঙ্গি ও সন্ত্রাস দমনে গঠিত পুলিশের অ্যান্টি টেররিজম ইউনিটের (এটিইউ) বিধিমালা গত দুই বছরেও হয়নি। সংশ্লিষ্টরা বলেছেন, ইউনিট থেকে বিধিমালা তৈরি করে তা অনুমোদনের জন্য মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। এরপর আর কোন অগ্রগতি হয়নি। কবে এ বিধিমালা হবে তাও কেউ বলতে পারছেন না।

বিধিমালা না হওয়ায় জঙ্গি সংক্রান্ত মামলা যেমন তদন্ত করা যাচ্ছে না, তেমনি কারও সাহায্য ছাড়াও অভিযান করতে পারছে না এটিইউ। দেশে জঙ্গবাদ দমন ও জঙ্গিবাদ থেকে তরুণদের ফিরিয়ে আনার উদ্দেশ্যে সরকার পুলিশের এই বিশেষ শাখা গঠন করে।

২০১৭ সালের ১৯ অক্টোবর অ্যান্টি টেররিজম ইউনিট গঠন করা হয়। এ সংস্থার কয়েকজন কর্মকর্তা বলেছেন, বিধিমালা না থাকায় প্রায়ই ঝামেলায় পড়তে হয়। এতে স্বাভাবিক কর্মকা- ব্যাহত হচ্ছে। দেশে গত কয়েক বছরে যেভাবে জঙ্গিবাদ এবং সন্ত্রাস মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছিল এবং জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটেছিল, তাতে মনে হচ্ছিল দেশ জঙ্গিদের মূল আস্তানায় পরিণত হচ্ছে। কিন্তু আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সর্বাত্মক প্রচেষ্টায় বর্তমানে জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রণে আছে। কিন্তু সংশ্লিষ্ট আইনটির বিধিমালা না হলে এই ইউনিটের পক্ষে তাদের কাজ অব্যাহত রাখা কঠিন হয়ে পড়ছে।

এ ইউনিটের মূল কাজ হলো জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে অভিযান চালানো, অনুসন্ধান, তদন্ত ও তথ্য সংগ্রহ, জঙ্গিবাদ থেকে ফেরাতে উদ্বুদ্ধকরণ চেষ্টা ও জঙ্গিবাদে উদ্বুদ্ধ হওয়া লোকদের সমাজে ফিরিয়ে নেয়া। বর্তমান অ্যান্টি টেররিজম ইউনিটের সদস্যদের দক্ষতা বৃদ্ধির পাশাপাশি জঙ্গি কার্যক্রমের জন্য অভিযান, গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ, আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন (প্রসিকিউশন) জমা, বোমা উদ্ধার ও নিষ্ক্রিয় করা এবং সাইবার অপরাধ প্রতিরোধের প্রশিক্ষণ চলছে। এই ইউনিটের অনেক কর্মী ইতোমধ্যে বিদেশেও প্রশিক্ষণ নিয়েছেন।

বিধিমালা হয়ে গেলে সারা দেশের জঙ্গি সংক্রান্ত তদন্তাধীন মামলাগুলোর তদন্তে অগ্রগতি হবে।

তদন্তের পাশাপাশি আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন জমাও দিতে পারবেন। আমরা চাই, জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস দমনের স্বার্থে যত দ্রুত সম্ভব বিধিমালাটি প্রণয়ন করতে হবে।