• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

বুধবার, ১৮ জুলাই ২০১৮, ৩ শ্রাবণ ১৪২৫, ৪ জিলকদ ১৪৩৯

দিনলিপি : ২০১০

তানভীর মোকাম্মেল

| ঢাকা , বুধবার, ১৮ জুলাই ২০১৮

জুন ২৫, ২০১০
আষাঢ় ১১, ১৪১৭

আজ সারা দিনটা কাটল সম্পাদনা কক্ষে। আগামী কয়েকটা দিন হয়তো সে রকমই কাটবে। আজ তোফায়েল আহমেদ ও ড: কামাল হোসেনের সাক্ষাৎকারগুলি নিয়ে কাজ করলাম। দু’জনেই ১৯৭১ সালে ওঁদের নিজ নিজ অভিজ্ঞতা নিয়ে অনেক কথা বলেছেন। তোফায়েল আহমেদের এই তথ্যটি কৌতূহলোদ্দীপক যে ১৯৬৯ সালে লন্ডনে বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে ভারতীয় প্রতিনিধির সাক্ষাৎ ঘটেছিল এবং চিত্তরঞ্জন সুতারের সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর নিয়মিত যোগাযোগ ছিল। তোফায়েল-রাজ্জাকদের কলকাতায় চিত্তরঞ্জন সুতারের ঠিকানা বঙ্গবন্ধু দিয়ে রেখেছিলেন এবং বলেছিলেন বিপদে পড়লে সুতারবাবুর সঙ্গে যোগাযোগ করতে।

হরিপ্রভা তাকেদার উপর ছবিটার ব্যাপারে যে প্রস্তাবনাটা লিখেছি সেটার খসড়া আজ জাপানে মঞ্জু ভাইকে পাঠালাম। আর এক কপি পাঠাতে চাই ওয়াতানাবেকে। এই দু’জনই হরিপ্রভাকে নিয়ে সবচে’ ভালো গবেষণার কাজ করেছেন।

পাটের উপর বড় প্রামাণ্যচিত্রটার প্রস্তাবটা আজ মোস্তাক সাহেবকে পাঠালাম। আগামী সপ্তাহেই ওঁর সঙ্গে একদিন বসে বিষয়টা চূড়ান্ত করব।

জুন ২৬, ২০১০
আষাঢ় ১২, ১৪১৭

আজ মূলত: ড: কামাল হোসেন ও আওয়ামী লীগের আবদুর রাজ্জাকের সাক্ষাৎকারের অংশগুলি নিয়ে কাজ করলাম। “১৯৭১” ছবিটা ক্রমশ: রূপ পাচ্ছে।

পাটের উপরে ছবিটার প্রস্তাবনাটা মোস্তাক সাহেবকে পাঠানো হয়েছে। সঙ্গে চুক্তিপত্রের একটা খসড়া। দু’তিনদিনের মধ্যেই ওঁর সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে বসব।

এনটিভি-তে আজ সকালে “লালন” ছবিটা দেখাল। হয়তো অঞ্জন চৌধুরী সাহেবের অফিস থেকে পাঠিয়েছিল। ওঁরা এনটিভি-র সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে সম্পৃক্ত। তবে আমাকে আগে জানানো ওদের কর্তব্য ছিল। এদেশের লোকজনের ভদ্রতাবোধের বেশ অভাব !

রাতে জুলিয়াস টেলিফোন করেছিল। ও এখন গৃহায়ণ মন্ত্রণালয়ের সচিব হয়েছে। বলল, একদিন দেখা করতে চায়। জুলিয়াস পুরনো বান্ধব। দেখা হলে ভাল লাগবে।

সন্ধ্যায় ফিল্ম ইনস্টিটিউটে ক্লাস নিলাম। আজ পড়ালাম “চলচ্চিত্রের ভাষা”। আগামীকাল এই বিষয়ের উপর আরেকটা ক্লাস নেব।

বিএনপি আগামীকাল হরতাল ডেকেছে। অর্থহীন এক হরতাল। গরীব বাংলাদেশের আরেকটি কর্মদিবস নষ্ট!

জুন ২৭, ২০১০
আষাঢ় ১৩, ১৪১৭

জাপানে ফোন করলে মঞ্জু ভাই জানালেন যে উনি হরিপ্রভার উপরে ছবির ব্যাপারে আমার প্রস্তাবটা পেয়েছেন। বললেন, উনি ওয়াতানাবেকে একটা কপি পাঠাবেন।

“১৯৭১” ছবিটার ব্যাপারে আজ রাজারবাগে পুলিশদের প্রতিরোধ ও জগন্নাথ হলের গণহত্যা অংশগুলি নিয়ে সম্পাদনা টেবিলে কাজ করলাম। মধুদার হত্যার বিষয়টি নিয়েও।

সন্ধ্যায় ফিল্ম ইনস্টিটিউটে “চলচ্চিত্রের ভাষা”-র উপরে ক্লাস নিলাম। আজ পড়ালাম “ক্যামেরা মুভমেন্ট”।

মহাদেব রবীন্দ্রনাথের বিদেশ ভ্রমণের উপরে একটা প্রামাণ্যচিত্র বানাবে। বর্তমানে ও এ ব্যাপারে গবেষণা করছে। ও মুরাদের সঙ্গে বিষয়টি আলাপ করার জন্যে আর্ট সেন্টারে গেল। সন্ধ্যাবেলা মুরাদ ওখানে বসে। আমার বাসার কাছে। ধানমন্ডী লেকের ওপারেই।

সরকার গার্মেন্টস শ্রমিকদের নি¤œতম মজুরীর ব্যাপারে একটা কমিশন বসিয়েছে। শ্রমিকদের দাবী নি¤œতম মজুরী হওয়া উচিৎ পাঁচ হাজার টাকা। মালিকপক্ষ বলছে দুই হাজার। ভাবছি নি¤œতম মজুরী নিয়ে একটা লেখা লিখব।

জুন ২৮, ২০১০
আষাঢ় ১৪, ১৪১৭

সারাদিনটা সম্পাদনা কক্ষে। আজ পঁচিশে মার্চের পরে চট্টগ্রামে মেজর রফিকের ইপিআর বাহিনীর প্রতিরোধ, থানাপাড়া ও চুকনগরের গণহত্যার অংশগুলি নিয়ে কাজ করলাম। চুকনগর ও থানাপাড়া এই দু’টোই হয়তো সংখ্যার বিচারে ১৯৭১ সালে বাংলাদেশে সংঘটিত সবচে’ বড় দু’টি গণহত্যা। থানাপাড়া গণহত্যা সম্পর্কে বললেন গণহত্যা থেকে বেঁচে যাওয়া জিন্নাতুল আলম আর চুকনগর গণহত্যা সম্পর্কে বলেছেন প্রত্যক্ষদর্শী নিতাই গায়েন।

হরিপ্রভার উপরে ছবিটার প্রস্তাবনার একটা কপি আজ জাপানে ওয়াতানাবেকে পাঠালাম। এর আগে এক কপি মঞ্জু ভাইকেও পাঠিয়েছি।

টোকিওর ইন্টারন্যাশনাল হাউজের পত্রিকার জন্যে আমার জাপান ভ্রমণের উপর ওঁরা একটা লেখা চেয়ে পাঠিয়েছিলেন। লেখাটা পাঠিয়েছিলাম। ছাপা হয়েছে। ওঁরা পত্রিকাটার তিনটে কপি পাঠিয়েছেন আমাকে।

পাটের উপর ছবিটার ব্যাপারে আজ মোস্তাক ভাই ও রিমির সঙ্গে টেলিফোনে কথা হোল। তিরিশ তারিখে এ ব্যাপারে ওঁদের সঙ্গে বসতে পারি।

জুন ২৯, ২০১০
আষাঢ় ১৫, ১৪১৭

আজও সারাদিন সম্পাদনা কক্ষে। আজ কিশোরগঞ্জের বড়–ইতলা গণহত্যা, বরিশালের পেয়ারাবাগানের গণহত্যা, জয়পুরহাটের পাগলা দেওয়ান ও সিলেটের চা-বাগানের গণহত্যার অংশগুলি নিয়ে কাজ করলাম। এছাড়া করলাম ধর্ষিতা নারীদের অংশগুলি। তবে এই বিষয়টা নিয়ে হয়তো আগামীকালও কাজ করতে হবে।

সরকার খুব শীগ্গিরই গার্মেন্টস শ্রমিকদের নি¤œতম মজুরী ঘোষণা করতে যাচ্ছে। শ্রমিকদের দাবী হচ্ছে নি¤œতম মজুরী হওয়া উচিৎ পাঁচ হাজার টাকা। আসলে এই টাকার নীচে বর্তমান বাজার দরে চারজনের পরিবারের খেয়েপড়ে বেঁচে থাকা কঠিন। ওদিকে মালিকপক্ষ দুই হাজারের বেশী দিতে চাইছে না। বিষয়টি নিয়ে একটা লেখা লিখেছি। তবে এটা নিতান্তই খসড়া। দু’একদিনের মধ্যেই লেখাটা চূড়ান্ত করব।

আগামীকাল সকালে অস্ট্রেলিয়ার ভিসার জন্যে আমার সাক্ষাৎকার। আজ তাই এ ব্যাপারে একগাদা কাগজপত্র যোগাড় করতে হোল।