• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী ২০২১, ৮ মাঘ ১৪২৭, ৮ জমাদিউস সানি ১৪৪২

২০২১ সালের মধ্যে ই-গভর্নেন্স প্রতিষ্ঠায় কাজ চলছে পররাষ্ট্রমন্ত্রী

    সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
  • | ঢাকা , সোমবার, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২০

দক্ষতার সঙ্গে বিশ্বমানের ‘স্টার্টআপস’ ব্যবসা চালু করতে অনিবাসী বাংলাদেশিদের (এনআরবি) প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন। গত শনিবার একটি হোটেলে ‘স্টার্টআপ ওয়ার্ল্ড কাপ ২০২০’-এর চূড়ান্ত বাংলাদেশ রাউন্ডে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমরা প্রত্যাশা করছি প্রবাসী বাংলাদেশি এবং এনআরবিরা বাংলাদেশ সরকারের অত্যন্ত আকর্ষণীয় সুযোগ-সুবিধা গ্রহণ করে এখানে তাদের ‘স্টার্টআপস’ ব্যবসা প্রতিষ্ঠা করবেন। বাংলাদেশ ২০২১ সালের মধ্যে ২০ লাখ আইসিটি দক্ষ ব্যক্তি গড়া, ই-গভর্নেন্স প্রতিষ্ঠা এবং পাঁচ বিলিয়ন মার্কিন ডলার উপার্জনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে এবং এসব লক্ষ্য অর্জনে সহায়তায় ২০২৪ সাল পর্যন্ত কর অবকাশ, হার্ডওয়্যার শিল্পের জন্য মাত্র এক শতাংশ আমদানি শুল্ক কর, আইসিটি রফতানির জন্য ১০ শতাংশ ব্যতিক্রমী ইনসেন্টিভ ঘোষণা করেছে। আমি আশা করি যে কেবল স্থানীয় উদ্যোক্তারা নন, বিদেশি উদ্ভাবকরাও সরকার ঘোষিত বিরল সুযোগ-সুবিধা গ্রহণ কররে এখানে তাদের স্টার্টআপ ব্যবসা চালু করতে উৎসাহিত হবেন।

স্টার্টআপ হলো একটি একক পণ্য বা পরিসেবা উৎপাদন এবং বাজারে আনার লক্ষ্যে এক বা একাধিক উদ্যোক্তা দ্বারা প্রতিষ্ঠিত একটি নতুন সংস্থা। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, আইসিটি বিভাগ, ভেনচার ক্যাপিটাল এবং প্রাইভেট ইক্যুইটি বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন (ভিসিপিইএবি), ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্স করপোরেশন (আইএফসি) এবং ই-জেনারেশন মুজিববর্ষের সূচনা উপলক্ষে স্টার্টআপ ওয়ার্ল্ড কাপ -২০২০ এর আয়োজন করে।

বেশিরভাগ স্টার্টআপ সফটওয়্যার ভিত্তিক উল্লেখ করে মোমন তরুণ উদ্ভাবকদের এর পাশাপাশি সামাজিক, অর্থনৈতিক, শিল্প ও শিক্ষামূলক স্টার্টআপ ব্যবসা সূচনার আহ্বান জানান। পররাষ্ট্রমন্ত্রী দারিদ্র্য হ্রাস, শিক্ষা, জলবায়ু পরিবর্তন ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা, নারী ক্ষমতায়ন, এসডিজি অর্জন, অভিবাসন ও শ্রম এবং বাণিজ্য সহজ করার মতো অগ্রাধিকার ক্ষেত্রে স্টার্টআপ শুরু করার আহ্বান জানান। প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প এবং বিনিয়োগ উপদেষ্টা, আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক এবং পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেনও অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন। গেজ টেকনোলজি তাদের বুদ্ধিমান ভিডিও বিশ্লেষণমূলক সফটওয়্যার প্ল্যাটফর্মের জন্য বাংলাদেশে প্রতিযোগিতার আঞ্চলিক ফাইনাল জিতেছে। স্টার্টআপ ওয়ার্ল্ড কাপ-২০২০ প্রতিযোগিতার চ্যাম্পিয়ন শিরোপার জন্য তারা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালি যাবে।

‘অ্যালটারইয়ুথ’ এবং ‘ট্রাক লাগবে’ প্রতিযোগিতায় যথাক্রমে প্রথম ও দ্বিতীয় রানার আপ হয়েছে। চতুর্থ ও পঞ্চম হয়েছে পশাপেটস ও কুকআপস। আইসিটি বিভাগের সহায়তায় এসব কোম্পানি সিলিকন ভ্যালি যাবে।