• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ৪ বৈশাখ ১৪২৮ ৪ রমজান ১৪৪২

চার জেলায়

সড়কে ঝরল ১০ প্রাণ

    সংবাদ :
  • সংবাদ ডেস্ক
  • | ঢাকা , রোববার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২০

পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় চার জেলায় ১০ জন নিহত ও ৮ জন আহত হয়েছে। নিহতদের মধ্যে টাঙ্গাইল ও ময়মনসিংহে ৪ জন করে ৮ জন এবং ঝিনাইদহ নোয়াখালীতে আরও ২ জন প্রাণ হারায়।

প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) : ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের মির্জাপুর উপজেলার ধেরুয়া এলাকায় এক মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় ৩ নারীসহ ৪ জন নিহত এবং আহত হয়েছে ৩ জন। গতকাল ভোর ৬টার দিকে মহাসড়কের ওই এলাকার জুঁই যুথী ফিলিং স্টেশনের সামেনে একটি কাভার্ডভ্যান লেগুনাকে পেছন দিক থেকে ধাক্কা দিলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত সবাই কারখানা শ্রমিক।

নিহতরা হলেন গাইবান্ধা জেলার সাদুল্যাপুর থানার গবিন্দরায় গ্রামের সুলতান মিয়ার স্ত্রী জাহানুর (১৮), একই গ্রামের অমল্য চন্দ্র দাসের ছেলে তপন চন্দ্র দাস (২৫), টাঙ্গাইলের গোপালপুর থানার আল আমিন মিয়ার স্ত্রী মর্জিনা বেগম (২৭), রংপুর জেলার রাশেদা বেগম (৩৫)। দুর্ঘটনায় আহতরা হলেন হেলেনা বেগম, পারভীন বেগম ও রেজিয়া আক্তার। আহত ৩ জন কুমুদিনী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে বলে জানা গেছে। পুলিশ জানায়, ভোর ৬টার দিকে উপজেলার গোড়াই এলাকা থেকে যাত্রী নিয়ে একটি রেগুনা (গাজীপুর-ঠ-১১-১৪৫) জুই যুথী পাম্পে জ্বালানি নিতে যাওয়ার সময় পেছন থেকে একটি কাভার্ডভ্যান ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে দুইজন মারা যান। স্থানীয়দের সহায়তায় ৫ জন যাত্রীকে কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও ২ জনের মৃত্যু হয়। নিহতরা সবাই স্থানীয় নাসির গ্লাস ওয়ার অ্যান্ড টিউব ইন্ডাস্ট্রির শ্রমিক বলে জানা গেছে।।

গোড়াই হাইওয়ে থানার ওসি মো. মনিরুজ্জামান জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে কাভার্ডভ্যানকে আটক করা সম্ভব হয়নি। ঘাতক কাভার্ডভ্যানটি আটকের চেষ্টা চলছে। নিহতদের পরিবারের কাছে মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে তিনি জানান।

ফুলপুর (ময়মনসিংহ) : হালুয়াঘাট-ময়মনসিংহ মহাসড়কের হালুয়াঘাটে সড়ক দুর্ঘটনায় চারজন নিহত ও ৫ জন হয়েছে। গত শুক্রবার বিকেল ৫টার দিকে হালুয়াঘাটের রঘুনাথপুর নামক স্থানে এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে। আহত হয়েছেন আরও পাঁচজন। হতাহতরা সবাই ময়মনসিংহ উত্তর ও উপজেলা ছাত্রদলের নেতাকর্মী। ভাষা দিবসের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে তারা হালুয়াঘাট যাচ্ছিল। জানা যায় হালুয়াঘাট থেকে ছেড়ে আসা যাত্রীবাহী ইমাম নামের একটি বাস পেছন থেকে ছাত্রদল নেতাকর্মীদের বহন করা একটি অটোরিকশাকে ধাক্কা দিলে অটোটি দুমড়ে-মুচড়ে যায় এবং ঘটনাস্থলেই দু’জন নিহত হয়। হাসপাতালে নেয়ার পথে আরও দু’জনের মৃত্যু ঘটে। নিহতরা হলেন উপজেলার বিলডোরা ইউনিয়নের রহেলা গ্রামের নূর ইসলামের ছেলে আরিফুল ইসলাম (২০) ও নজরুল ইসলামের ছেলে সাকিব (২০) এবং একই ইউনিয়নের নিশ্চিন্তপুর গ্রামের সোহাগ মিয়ার ছেলে মিজানুর রহমান (২৫)। এছাড়া অপরজন একই উপজেলার নড়াইল ইউনিয়নের বাঘমার গ্রামের নূর ইসলামের ছেলে সজিব (১৮)। এ ঘটনায় আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। পোস্টমর্টেম শেষে নিহতদের লাশ আনা হলে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। গতকাল নিহতদের জানাজায় হাজার হাজার লোক অংশগ্রহণ করে। জানাজায় অংশগ্রহণ শেষে নিহতদের বাড়িতে স্বজনদের সান্ত¡না দিতে যান হালুয়াঘাট উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মাহমুদুল হক সায়েম, সহকারী কমিশনার (ভূমি) তানভীর আহমেদ, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) কেন্দ্রীয় কমিটির বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক (ময়মনসিংহ) সৈয়দ এমরান সালেহ্ প্রিন্স, ফুলপুর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আবুল বাশার আকন্দ, হালুয়াঘাট উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক আলহাজ আলী আজগর, যুগ্ম আহবায়ক আলহাজ সালমান ওমর রুবেল, ইউপি চেয়ারম্যান মো. জাহাঙ্গীর হোসেনসহ আরও অনেকে।

নোয়াখালী : নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলায় নিজের বিয়ের কার্ড বিলি করতে গিয়ে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার তাসলিমা আক্তার (২৩), নামে এক স্কুল শিক্ষিকার মৃত্যু হয়েছে। গতকাল সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার ৮নং মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডে চৌরাস্তা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

মোহাম্মদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আবুল কালাম আজাদ জানান, নিজের বিয়ের দাওয়াত কার্ড নিয়ে পাশের একটি স্কুলে দাওয়াত দেয়ার জন্য মোটরসাইকেলযোগে যাওয়ার পথে চৌরাস্তা এলাকায় কুকুরের সঙ্গে মোটরসাইকেলের ধাক্কা লেগে মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে ঘটনাস্থলেই ওই শিক্ষিকার মৃত্যু হয়। নিহত শিক্ষিকা চরক্লার্ক ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের কেরামতপুর গ্রামের মৃত নূর রহমানের মেয়ে এবং নোয়াখালী সরকারি কলেজে পড়ালেখার পাশাপাশি উপজেলার দক্ষিণ পূর্ব চর লক্ষী আশ্রয়ণ বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। বুধবার তার বিবাহের দিন ধার্য ছিল।

চরজব্বর থানার ওসি শাহেদ উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

ঝিনাইদহ : ঝিনাইদহ সদর উপজেলার হলিধানী বাজারে বাস চাপায় পিষ্ট হয়ে হলিধানী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক শওকত হোসেন (৮০) নিহত হয়েছেন।

গতকাল বিকেলে চুয়াডাঙ্গা থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী মামুন পরিবহন চালক দ্রুতগতিতে গাড়ি চালানোর সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত শওকত হোসেন হলিধানী ইউনিয়নের কোলা গ্রামের মৃত আহমদ হাজী খন্দকারের ছেলে।

ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি তদন্ত এমদাদ হোসেন জানান, শওকত হোসেন বাইসাইকেলযোগে বাজারের দিকে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে হলিধানী বাজারে পৌঁছালে চুয়াডাঙ্গা থেকে ছেড়ে আসা মামুন পরিবহন একটি বাস তাকে পিছন দিক থেকে ধাক্কা দেয়। স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় বাসটি আটক করলেও চালক পলাতক রয়েছে।