• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

শনিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ৯ ফল্গুন ১৪২৬, ২৭ জমাদিউল সানি ১৪৪১

সোহরাওয়ার্দীতে যুবলীগ সম্মেলন আজ

    সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
  • | ঢাকা , শনিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৯

আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন আওয়ামী যুবলীগের সপ্তম সম্মেলন আজ। ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বেলা ১১টায় এই কংগ্রেসের উদ্বোধন করবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সম্প্রতি ক্যাসিনোকাণ্ডে জড়িতদের মূল হোতা হিসেবে যুবলীগের অনেক নেতার নাম এসেছে। ক্ষমতাসীন দলটির এই অংগ-সংগঠনের ভাবমূর্তি বেশ সংকটে রয়েছে। সম্মেলনের মাধ্যমে যুবলীগ আবারও ঘুরে দাঁড়াবে বলে প্রত্যাশা দলটির নেতাদের।

সম্মেলনে সভাপতিত্ব করবেন যুবলীগ সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সভাপতি চয়ন ইসলাম। পরে বিকেলে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে কাউন্সিল অধিবেশনে নতুন কেন্দ্রীয় কমিটি নির্বাচন করা হবে। ২০১২ সালের ১৪ জুলাই বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের ষষ্ঠ জাতীয় সম্মেলনে চেয়ারম্যান পদে ওমর ফারুক চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক পদে মো. হারুনুর রশিদ নির্বাচিত হন। ১৯৭২ সালের ১১ নভেম্বর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাগ্নে শেখ ফজলুল হক মনি ৩২ বছর বয়সে আওয়ামী যুবলীগ প্রতিষ্ঠা করেন। এরপর এ পর্যন্ত যুবলীগের ৬টি কেন্দ্রীয় কমিটি হয়েছে। বেশিরভাগ সময় শহীদ শেখ ফজলুল হক মনির নিকটাত্মীয়রা যুবলীগের নেতৃত্ব দিয়েছেন। এরমধ্যে চতুর্থ কংগ্রেসে শেখ ফজলুল করিম সেলিম, পঞ্চম কংগ্রেসে জাহাঙ্গীর কবির নানক এবং ষষ্ঠ কংগ্রেসে ওমর ফারুক চৌধুরী চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পান।

এবার ৭ম কংগ্রেসে যুবলীগের শীর্ষ নেতৃত্বে আসার আলোচনায় আ?ছেন, যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল হক মণির ছেলে শেখ ফজলে শামস পরশ ও তার ছোট ভাই ঢাকা-১০ আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস, শেখ মণির ছোট ভাই আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও যুবলীগের সাবেক চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল করিম সেলিমের দুই ছেলে শেখ ফজলে ফাহিম ও শেখ ফজলে নাইম। শীর্ষ পদের আলোচনায় আছেন- যুবলীগের বর্তমান কমিটির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আতাউর রহমান (আতা) ও বেলাল হোসাইন, যুগ্ম সম্পাদকদের মধ্যে মহিউদ্দিন আহমেদ (মহি), মনজুর আলম শাহীন, মামুন অর রশীদ ও সুব্রত পাল, সাংগঠনিক সম্পাদকদের মধ্যে মুহাম্মদ বদিউল আলম ও ফারুক হাসান তুহিন। সাবেক ছাত্রলীগ নেতাদের মধ্য থেকে আলোচনায় আছেন- ইসহাক আলী পান্না, বাহাদুর ব্যাপারী, অজয় কর খোকন, মাহমুদ হাসান রিপন, ও মাহফুজুল হায়দার চৌধুরী রোটন।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় একাধিক নেতা সংবাদকে বলেন, আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা যুবলীগের সাংগঠনিক নেত্রী হিসেবে যুবলীগের নতুন নেতৃত্ব চূড়ান্ত করবেন। দলের দুঃসময়ে যারা পাশে ছিলেন, পরিচ্ছন্ন ভাবমূর্তি সম্পন্ন, যুবলীগের বর্তমান নেতৃত্ব এবং ছাত্রলীগের সাবেক নেতাদের মধ্যে যারা ‘পরিচ্ছন্ন ভাবমূর্তি’ সম্পন্ন, তাদের মধ্য থেকেই এবার চেয়ারম্যান ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচন করা হবে। ভেতর থেকে, না বাইরে থেকে নেতা হবেন, তা নির্ধারণ করবেন শেখ হাসিনা।

যুবলীগের কেন্দ্রীয় সূত্র বলছে, বয়সসীমা ৫৫ করায় বর্তমান প্রেসিডিয়াম সদস্য ও কেন্দ্রীয় জেষ্ঠ্য নেতাদের বেশিরভাগই বাদ পড়ে যাবেন। ফলে এবারের কংগ্রেসের মাধ্যমে যুবলীগে হবে নতুন নেতৃত্বের জয়গান। বয়সের বিষয়টি বহাল থাকলে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক চয়ন ইসলাম ও সদস্য সচিব হারুনুর রশীদকে সম্মেলন শেষ করেই বিদায় নিতে হবে।