• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯, ৫ কার্তিক ১৪২৬, ২১ সফর ১৪৪১

লাশের পেটে ১১ প্যাকেট ইয়াবা

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

| ঢাকা , রোববার, ২৮ এপ্রিল ২০১৯

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্তের সময় লাশের পেটে ইয়াবা পাওয়া গেছে। গতকাল সকালে জুলহাস মিয়া (৩২) নামে এক মৃত ব্যক্তির পেটে ইয়াবাগুলো পাওয়া যায়। ঢামেক হাসপাতালটির ফরেনসিক বিভাগের প্রধান সহযোগী অধ্যাপক ডা. সোহেল মাহমুদ এ তথ্য জানান। সোহেল মাহমুদ জানান, মতিঝিল থেকে আসা একটি মৃতদেহ গতকাল সকালে ময়নাতদন্তের সময় তার পেটে ইয়াবার ১১টি প্যাকেট পাওয়া গেছে। যার প্রত্যেকটিতে আনুমানিক ২০-২৫ পিস করে ইয়াবা রয়েছে। তবে ইয়াবাগুলো গলে যাওয়ার কারণেই তার মৃত্যু হতে পারে। কয়েকটা ইয়াবা পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট আসলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।

মতিঝিল থানার ওসি মো. ওমর ফারুক জানান, শনিবার ভোরে কমলাপুরের সড়কে অসুস্থ হয়ে পড়েন ওই ব্যক্তি। আশপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে মুগদা হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে তার মৃত্যু হয়। পুলিশ পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে মরদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরির পর ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেকে পাঠানো হয়। ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক ও ঢামেকে থাকা মতিঝিল থানা পুলিশ আমাকে জানিয়েছে যে, মরদেহের পেট থেকে ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

এদিকে ভাইয়ের মৃত্যুর খবর পেয়ে জুলহাসের ছোট ভাই মেহেদী হাসান ঢামেক হাসপাতালে আসেন। মেহেদি জানান, তার ভাই দেশে কাঠের ব্যবসা করতেন। তবে কী কারণে তিনি ঢাকায় এসেছেন তা জানেন না। জুলহাসের বাড়ি নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার ভবানিপুর গ্রামে। গত ২১ এপ্রিল গ্রাম থেকে ঢাকার মিরপুরে আসেন তিনি। ২৪ এপ্রিল তার ভাইয়ের সঙ্গে শেষবার কথা হয়।