• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ৪ বৈশাখ ১৪২৮ ৪ রমজান ১৪৪২

রূপগঞ্জে বসতবাড়িতে হামলা, ভাঙচুর, লুটপাট

বৃদ্ধ নারীসহ আহত ৫

সংবাদ :
  • প্রতিনিধি, রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ)

| ঢাকা , রোববার, ০২ ফেব্রুয়ারী ২০২০

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে জোরপূর্বক বাড়িঘর দখলের চেষ্টায় বাধা দেয়ায় প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা বৃদ্ধ ও নারীসহ একই পরিবারের ৫ জনকে পিটিয়ে আহত করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা বাড়িঘর ভাঙচুর ও শ্লীলতাহানি ঘটায়। গতকাল বিকেলে উপজেলার গোলাকান্দাইল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী জিয়াসমিন বেগম বলেন, তার স্বামী ফারুক মিয়া ও ভাসুর মো. রহুল আমিন গোলাকান্দাইল এলাকায় ১৭ শতাংশ জমি ওয়ারিশ সূত্রে মালিক হয়ে বসতবাড়ি নির্মাণ করে দীর্ঘদিন ধরে ভোগ দখল করে আসছেন। একই এলাকার আবদুল সোবহান, মোসা. জরিনা বেগম, রফিকুল ইসলাম, রবিন মিয়া ও রাকিমা বেগম বেশ কিছুদিন ধরে জিয়াসমিন বেগমদের দখলকৃত বাড়িটি দখলের পাঁয়তারা করে আসছে। এর জের ধরে শনিবার বিকেলে প্রতিপক্ষের লোকজনসহ অজ্ঞাত ৭-৮ জন চাপাতি, রামদাসহ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে জিয়াসমিন বেগমদের বসতবাড়ি দখল করতে বাড়িতে হামলা ভাঙচুর চালাতে থাকে। এ সময় জিয়াসমিন বেগম ও জা জাকিয়া বেগম বাধা প্রদান করলে হামলাকারীরা তাদের এলোপাতারি পিটিয়ে আহত করেন। এ সময় স্বামী ফারুক মিয়া, শ্বশুর আল হামিদ ও শাশুরি হাজেরা বেগম তাদের বাঁচাতে এগিয়ে এলে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা তাদেরও এলোপাতারিভ পিটিয়ে আহত করেন। প্রতিপক্ষের লোকজন জিয়াসমিন বেগম ও জাকিয়া বেগমকে শ্লীলতাহানি করেন। এ সময় হামলাকারীরা আলমারির তালা ভেঙে নগদ ৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা ও ২ ভরি স্বর্ণালঙ্কার লুট করে নিয়ে যায়। শুধু তাই নয়, প্রতিপক্ষ জরিনা জেসমিন বেগমের পরিবারের লোকজনকে মিথ্যা মামলা দিয়ে ফাঁসাবে বলেও হুমকি দেয়। উল্লেখ্য, গত ৩১ জানুয়ারিও প্রতিপক্ষের লোকজন বাড়ি দখল করতে জিয়াসমিন বেগমদের বাড়িতে হামলা ভাঙচুর চালায়। তাদের ডাক-চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে প্রতিপক্ষের লোকেরা বিভিন্ন হুমকি-ধামকি দিয়ে চলে যায়। পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসাপাতালে চিকিৎসা নেয়ায়। এ ব্যাপারে জিয়াসমিন বেগম বাদী হয়ে রূপগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দেন। প্রতিপক্ষ আবদুল সোবহান ও মোসা. জরিনা বেগমের নামে নারায়ণগঞ্জ জেলা জজ আদালতে প্রতারণার মামলা রয়েছে বলে জানা যায়।

এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ থানার ওসি মাহমুদুল হাসান বলেন, এ ধরনের অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত মোতাবেক ব্যবস্থা নেয়া হবে।