• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই ২০২০, ৩০ আষাঢ় ১৪২৭, ২২ জিলকদ ১৪৪১

কেরানীগঞ্জ

ব্যবসায়ীকে অপহরণের পর হত্যা : দোকান কর্মচারী আটক

সংবাদ :
  • প্রতিনিধি, কেরানীগঞ্জ (ঢাকা)

| ঢাকা , বুধবার, ০৩ এপ্রিল ২০১৯

কেরানীগঞ্জে এক কসমেটিকস ব্যবসায়ীকে অপহরণের পর শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। নিহত ব্যবসায়ীর নাম মো. আক্তার হোসেন (৬০)। রাজধানীর জুরাইন সেতু মার্কেট থেকে অপহরণ করে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার কোন্ডা ইউনিয়নের মির্জাপুর এলাকায় এনে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়। নিহত আক্তার হোসেনের বাড়ি দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের ইকুরিয়া মধ্য পাড়া এলাকায়। তার বাবার নাম মৃত আজিজ ঢালী। রাজধানী ঢাকার জুরাইনে সেতু মার্কেটে তার একটি কসমেটিকসের দোকান রয়েছে। দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ গত সোমবার রাতে কোন্ডা ইউনিয়নের ঘোষকান্দা মির্জাপুর এলাকায় একটি কলাবাগানের ভেতর থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে। মঙ্গলবার সকালে নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) আরাফাত হোসেন ও এসআই মোস্তাফিজুর রহমান জানান, নিহত কসমেটিকস ব্যাবসায়ী আক্তার হোসেনের দোকানের কর্মচারী রাকিব হোসেন পূর্ব পরিকল্পিতভাবে মোটা অংকের টাকার জন্য আক্তার হোসেনকে অপহরণের পরিকল্পনা করে। এই সূত্র ধরেই রাকিব হোসেন গত শনিবার রাতে তার মালিক আক্তার হোসেনকে বলে যে তার মায়ের সঙ্গে তার ঝগড়া হয়েছে। তাকে তাদের বাড়িতে যেয়ে মায়ের সঙ্গে ঝগড়া মিটাতে হবে। এই মিথ্যা কথা বলে দোকান কর্মচারী রাকিব হোসেন আক্তার হোসেনকে সিএনজিযোগে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের কোন্ডা ইউনিয়নের মির্জাপুর এলাকায় একটি কলা বাগানের ভেতর নিয়ে যায়। এ সময় রাকিব ও তার সহযোগীরা আক্তার হোসেনের পকেটে থাকা প্রায় ১৬ হাজার টাকা নেয়ার জন্য ধস্তাধস্তি করে। একপর্যায়ে রাকিব ও তার সহযোগীরা আক্তার হোসেনের হাত-পা বেঁধে ফেলে। পরে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে লাশটি ফেলে পালিয়ে যায়। নিহত ব্যবসায়ী আক্তার হোসেন শনিবার রাতে দোকান বন্ধ করে দোকান কর্মচারী রাকিব হোসেনের বাড়ি যাওয়ার কথা তার ছেলে রাজিবকে মোবাইল জানিয়েছিলেন। আক্তার হোসেন রাতে বাড়িতে না পৌঁছালে এবং তার মোবাইল ফোনটি বন্ধ থাকায় বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজির পর রোববার তার ছেলে রাজিব রাজধানী কদমতলী থানায় একটি জিডি করেন। এই জিডির ভিত্তিতে সোমবার দোকান কর্মচারী রাকিব হোসেনকে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জে কোন্ডা ইউনিয়নের ইস্টার্ন বাজার এলাকা থেকে আটক করে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ। রাকিবের স্বীকারোক্তি মোতাবেক সোমবার গভীর রাতে মির্জাপুর এলাকায় একটি কলাবাগানের ভেতর থেকে ব্যবসায়ী আক্তার হোসেনের লাশ উদ্ধার করা হয়।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ওসি মোহাম্মদ শাহজামান জানান, টাকার লোভে দোকানের কর্মচারী রাকিব হোসেন পূর্ব পরিকল্পিতভাবে আক্তার হোসেনকে অপহরণ করে। এবং তার কয়েকজন সহযোগীকে সঙ্গে নিয়ে আক্তার হোসেনকে শ্বাসরোধে হত্যা করে। মূল ঘাতক দোকান কর্মচারী রাকিব হোসেনকে আটক করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে। এ ব্যাপারে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় একটি মামলা হয়েছে।