• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

শনিবার, ২৩ মে ২০২০, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ২৯ রমজান ১৪৪১

আলোচনা সভায় বক্তারা

বাংলা কবিতায় নতুন স্বাদ এনেছেন শামসুর রাহমান

সংবাদ :
  • সাংস্কৃতিক বার্তা পরিবেশক

| ঢাকা , শুক্রবার, ২৫ অক্টোবর ২০১৯

image

শামসুর রাহমান নীবিড় সমাজ পর্যবেক্ষক এবং সময়ের সাক্ষী ছিলেন বলে মন্তব্য করেছেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন। গতকাল বাংলা একাডেমিতে কবি শামসুর রাহমানের ৯১তম জন্মদিন উপলক্ষে অনুষ্ঠিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

কবি শামসুর রাহমান ফাউন্ডেশন আয়োজিত সভায় সভাপতিত্ব করেন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার তৌফিকুর রাহমান। সভায় বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক হাবীবুল্লাহ সিরাজী, নাট্যজন মামুনুর রশীদ, ফাউন্ডেশনের পরিচালক সামিয়া নওশীন আলম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। এ সময় শামসুর রাহমানের পুত্রবধূ টিয়া রাহমান উপস্থিত ছিলেন।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, শামসুর রাহমানের কবিতায় খুঁজে পাওয়া যায় যৌবন, প্রতিবাদ, স্বাধীনতার গন্ধ। তিনি তার কবিতায় সময়কে ধারণ করেছেন। হাবীবুল্লাহ সিরাজী বলেন বাংলা কবিতায় নতুন স্বাদ এনেছিলেন শামসুর রাহমান। বাংলা ভাষা ও সাহিত্যে তিনি অনন্য দিগন্ত উন্মোচন করেছিলেন। এ দিগন্ত রেখা ধরে আমরা বাংলা ভাষা ও বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাব।

মামুনুর রশীদ বলেন, শামসুর রাহমানের কাব্যসত্ত্বা ছিল বিশুদ্ধ। তিনি নিপীড়িত মানুষকে ভালোবাসতেন। তাদের জন্য কবিতা লিখতেন।

প্রসঙ্গত, বাংলা সাহিত্যের অন্যতম শীর্ষ কবি শামসুর রাহমানের ৯১তম জন্মদিন ছিল ২৩ অক্টোবর। বিংশ শতাব্দীর দ্বিতীয়ভাগে দুই বাংলায় ব্যাপক জনপ্রিয়তা ও শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করা এই কবির জন্ম ১৯২৯ সালের ২৩ অক্টোবর পুরানো ঢাকার মাহুতটুলির ৪৬ নম্বর বাড়িতে। পৈত্রিক বাড়ি নরসিংদী জেলার রায়পুরা থানার পাড়াতলী গ্রামে। কবির মায়ের নাম আমেনা খাতুন এবং বাবার নাম মুখলেসুর রহমান চৌধুরী। ২০০৬ সালের ১৭ আগস্ট কবি ঢাকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন।