• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬, ২৩ মহররম ১৪৪১

বগুড়ায় ৪ শিশুসহ ৫ জন ধর্ষণের শিকার

সংবাদ :
  • সংবাদ ডেস্ক

| ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

পৃথক ঘটনায় দেশের বিভিন্ন স্থানে ধর্ষণ ও গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে বগুড়ার ধুনটে ৪ শিশু ধর্ষণ ও আদমদীঘিতে এক সন্তানের জননী গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন। অন্যদিকে টাঙ্গাইল ও বরিশালে ধর্ষণের অভিযোগে ২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

বগুড়া : চার শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ জয়নাল আবেদীনকে (৫২) গত মঙ্গলবার গ্রেফতার করেছে। দু’দিনের ব্যবধানে সে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়া ৪ শিশুকে ধর্ষণ করে। বুধবার ৪ শিশুকে পরীক্ষার জন্য বগুড়া মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গ্রেফতারকৃত জয়নাল শিশুদের ধর্ষণের কথা স্বীকর করেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। বুধবার তাকে আদালতে পাঠানো হয়।

পুলিশ জানায়, উপজেলার গোপালপুর খাদুলি গ্রামের জাহাঙ্গীর ভ্যানচালক। ৬ ও ৮ সেপ্টেম্বর সে একই এলাকার ৪ শিশুকে জলপাইসহ বিভিন্ন লোভনীয় খাবার দেয়ার কথা বলে ফুঁসলিয়ে তার বাড়িতে নিয়ে যায়। ৬ সেপ্টেম্বর দুপুরের দিকে দুই শিশুকে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে। এর দু’দিন পর আবার একই গ্রামের অন্য দুই শিশুকে একইভাবে ফুঁসলিয়ে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে। ঘটনার দু’দিনই তার বাড়িতে স্ত্রী ছিল না। ধর্ষক জয়নালের ৩ ছেলেমেয়ে রয়েছে। মেয়ের বিয়ে হয়েছে। দুই ছেলে কর্মস্থলে থাকেন। ধর্ষণের শিকার চার শিশু প্রথম থেকে তৃতীয় শ্রেণীর শিক্ষার্থী। ওই শিশুরা অসুস্থ হয়ে পড়ায় পরিবারের লোকজনের সন্দেহ হয়। পরে জিজ্ঞাসায় তারা ঘটনা খুলে বলে। প্রথমে একজন, পরে অন্য শিশুরাও মুখ খোলে। বর্বরোচিত ঘটনাটি জানতে পেরে শিশুদের পরিবারের পক্ষ থেকে মঙ্গলবার ধুনট থানায় অভিযোগ করা হয়। এরপরই বিকেলে জয়নাল আবেদীনকে পুলিশ ধুনটের মথুরাপুর বাজার এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয় বলে বগুড়ার শেরপুর-ধুনট সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজীউর রহমান জানান। এছাড়া আদমদীঘির সান্তাহারে স্বামী পরিত্যক্ত এক সন্তানের জননীকে গণধর্ষণের ঘটনায় মামলা করা হয়েছে। ঘটনার পরের দিন গত সোমবার রাতে ভিকটিম নিজে বাদী হয়ে ৫ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ৩ জনকে আসামি করে আদমদীঘি থানায় মামলা করেন। তিনি গত রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ভ্যানে প্রতিবেশী সম্পর্কে চাচাতো ভাই সুজনের সঙ্গে তিয়রপাড়া ব্রিজে পৌঁছালে আসামিরা পথরোধ করে সুজনকে মারধর করে ওই নারীকে মুখ বেঁধে খাড়ির পাড় দিয়ে নির্জন স্থানে নিয়ে গিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। খবর পেয়ে ওই রাতেই তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় পল্লী চিকিৎসালয়ে চিকিৎসা দিয়ে বাড়িতে নিয়ে আসে। পরে তার শারীরিক অবস্থা অবনতি হলে সোমবার সকালে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি করায়। এ মামলায় পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করেছে।

টাঙ্গাইল : টাঙ্গাইলের দেলদুয়ারে ৭ম শ্রেণীর এক ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় পুলিশ মঙ্গলবার রাতে লাউহাটি ইউনিয়নের লাউহাটি গ্রাম থেকে অভিযুক্ত ধর্ষককে গ্রেফতার করা করছে। গ্রেফতারকৃত ছানোয়ার হোসেন (১৬) লাউহাটি এম আজহার মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্র। ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রী একই বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করে। ওই স্কুলছাত্রীর মা বিদেশ থাকেন, বাবা ভ্যানচালক। গত বৃহস্পতিবার রাতে ওই স্কুলছাত্রীকে ঘরে একা পেয়ে পাশের বাড়ির ছানোয়ার হোসেন ঘরে প্রবেশ করে হাত-পা ও মুখ বেঁধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে ওই ছাত্রীর বাবা ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেন।

দেলদুয়ার থানার (এসআই) মনোয়ার হোসেন বলেন, মামলার পর পুলিশ রাতেই অভিযুক্তকে তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করেছে। পরে বুধবার সকালে তাকে টাঙ্গাইল আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। একই সঙ্গে সকালে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ওই ছাত্রীর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।

বরিশাল : বরিশাল র‌্যাব ৮-এর একটি বিশেষ আভিযানিক দল মঙ্গলবার রাতে মাদারীপুর জেলার ডাসার থানাধীন কাজীবাকৈ ইউনিয়নস্থ মেদাকুল বাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে মাদারীপুর জেলার সদর মডেল থানার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে করা মামলার পলাতক আসামি রনি মজুমদারকে (২০) গ্রেফতার করেছে। সে গত শনিবার রাতে পুরনো বাসস্ট্যান্ড এলাকার চতুর্থ শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রীকে নিজের বাসার সামনে থেকে আইসক্রিম খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করে। ভিকটিমের পরিবার বাদী হয়ে মাদারীপুর জেলার সদর মডেল থানায় রোববার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন এবং র‌্যাব নিজস্ব সোর্সের মাধ্যমে রনির অবস্থান নিশ্চিত হয়ে গ্রেফতার করে।