• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ১ বৈশাখ ১৪২৮ ১ রমজান ১৪৪২

বইমেলায় শহীদুল্লাহ সিকদারের দুই বই

    সংবাদ :
  • সাংস্কৃতিক বার্তা পরিবেশক
  • | ঢাকা , সোমবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২০

image

বঙ্গবন্ধু ও চিকিৎসা বিষয়ে অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদারের দুটি বই প্রকাশিত হয়েছে। গতকাল একুশের বই মেলায় গ্রন্থ দুটির মোড়ক উন্মোচন করা হয়। ‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাকে ধারণ করে শেখ হাসিনার পথ চলা’ এবং ‘চর্ম ও যৌন রোগ চিকিৎসা’ নামক বই দুটি প্রকাশিত হয়েছে।

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া, স্বাচিপের সভাপতি অধ্যাপক এম ইকবাল আর্সলান, সুপ্রিমকোর্ট বারের সভাপতি অ্যাডভোকেট আমিন উদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। কনক কান্তি বরুয়া বলেন, শহীদুল্লাহ সিকদারের লিখিত বই ‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাকে ধারণ করে শেখ হাসিনার পথ চলা’ গ্রন্থে ‘হাজার বছরের বাঙালির বঞ্চনার ইতিহাস, একটি স্বাধীন রাষ্ট্রের অভ্যুদয়, বঙ্গবন্ধুর ত্যাগ, সংগ্রামের গৌরব গাঁথা পথচলা যেখানে অজুত লাখ বাঙালির নিবেদন এক হয়ে কাজ করেছে চমৎকারভাবে ওঠে এসেছে। বঙ্গবন্ধুর দেশপ্রেম, জীবনবাজি রাখা সংগ্রাম, জেল-জুলুম সহ্য করা, দেশের মানুষের প্রতি গভীর মমত্ববোধ এবং দেশ নিয়ে তার স্বপ্ন আরও অনেক মুক্তিকামী বাঙালির মতো কিশোর বয়স থেকে আমার মনে গভীর রেখাপাত করে। পরবর্তীতে স্বাধীন বাংলার মাটিতে ঘাতকচক্রের হাতে সেই বাঙালির প্রাণপুরুষ বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে নির্মমভাবে প্রাণ দিতে হয়।

ইকবাল আর্সালান বলেন, একজন চিকিৎসক হয়েও অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদারের লেখা প্রবন্ধের বইটিতে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা এবং মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশের প্রতি তার যে অঙ্গিকার সেটি ফুটে ওঠেছে এবং চিকিৎসা বিজ্ঞানের বইটিতে সাধারণ মানুষের জন্য বাংলায় লিখিত চর্ম ও যৌন রোগের ওপর অতি প্রয়োজনীয় কিছু বিষয় অত্যন্ত সহজবোধ্য করে লেখা হয়েছে সেই জন্য তাকে ধন্যবাদ জানাই।

শহীদুল্লাহ সিকদার বলেন, মুক্তিযুদ্ধের পূর্ব এবং স্বাধীন বাংলাদেশের রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট আমার পেশাগত জীবনের পাশাপাশি দেশের এবং সমাজের জন্য কাজ করার প্রতি আমাকে দায়বদ্ধ করেছে। সেই দায় থেকেই জাতির জনকের স্বপ্নকে ধারণ করে প্রধানমন্ত্রী বিশ্বনন্দিত শেখ হাসিনা যে অঙ্গীকার নিয়ে কাজ করছেন আমি তার এই মহৎ কর্মের সঙ্গে থাকতে চাই। চিকিৎসা বিজ্ঞানের বইটি উৎসুক রোগীদের কিছু প্রশ্নের উত্তর যোগাবে বলে আমি বিশ্বাস করি। বই দুটি প্রকাশে যারা আমাকে সহযোগিতা করেছেন সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।