• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৭ রবিউস সানি ১৪৪১

পহেলা বৈশাখ সামনে ইলিশের দাম চড়া

কমেনি মাংসের দামও

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

| ঢাকা , শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০১৯

image

পহেলা বৈশাখকে সামনে রেখে ইলিশের বিক্রি যেমন বেড়েছে, তেমনি বেড়েছে এর দামও। গত সপ্তাহের তূলনায় বেশ চড়া দামেই বিক্রি হচ্ছে ইলিশ মাছ। পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে প্রতি হালি ইলিশে দাম বেড়েছে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকারও বেশি। পাশাপাশি রাজধানীর বাজারগুলোতে দুই মাসের বেশি সময় ধরে চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে মুরগি, গরু ও খাসির মাংস। ফলে সপ্তাহের ব্যবধানে মাংসের দাম নতুন করে না বাড়লেও ক্রেতারা স্বস্তি পাচ্ছেন না। গতকাল রাজধানীর কাওরানবাজার, ফকিরাপুল কাঁচাবাজার, এজিবি কলোনি কাঁচাবাজার ঘুরে এ তথ্য পাওয়া গেছে। বাজার ঘুরে দেখা যায়, ৫০০ গ্রামের কম ওজনের ইলিশ প্রতি হালি বিক্রি হচ্ছে ১০০০ খেকে ১৫০০ টাকা। আর ৫০০ গ্রাম থেকে ৭০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ প্রতি হালি বিক্রি হচ্ছে ২৫০০ থেকে ২৮০০ টাকায় এবং ৮০০ খেকে ১ কেজি ওজনের ইলিশ প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪০০০ থেকে ৫৫০০ টাকা পর্যন্ত। অন্য মাছের দাম গত সপ্তাহের মতো এ সপ্তাহেও ২০০ টাকার নিচে পাওয়া যাচ্ছে না। শুধু মাঝারি আকারের তেলাপিয়া মাছ ১৮০ থেকে ২০০ টাকা এবং পাঙাশ মাছ বিক্রি হচ্ছে ১৮০ থেকে ২০০ টাকা কেজি। রুই মাছ ৩৫০ থেকে ৬০০ টাকা কেজি, পাবদা ৬০০ থেকে ৭০০ টাকা কেজি, টেংরা কেজি ৭০০ থেকে ৮০০ টাকা, শিং ৪০০ থেকে ৬০০ টাকা কেজি, বোয়াল ৫০০ থেকে ৮০০ টাকা কেজি, চিতল ৫০০ থেকে ৮০০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে।

মাংসের বাজার ঘুরে দেখা গেছে, বয়লার মুরগির কেজি আগের সপ্তাহের মতো বিক্রি হচ্ছে ১৬০ থেকে ১৭৫ টাকা। লাল লেয়ার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ২১০ থেকে ২২০ টাকা কেজি। আর কক মুরগী বিক্রি হচ্ছে ২৭০-২৮০ টাকা কেজি। মুরগির মত দাম অপরিবর্তিত রয়েছে গরু ও খাসির মাংসের দাম। বাজার ভেদে গরুর মাংস ৫৩০-৫৬০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। আর খাসির মাংস বিক্রি হচ্ছে ৭৫০-৮৫০ টাকা কেজি। এছাড়াও ফার্মের ডিম বিক্রি হচ্ছে প্রতি ডজন ১০০ টাকা আর দেশি মুরগির ডিম বিক্রি হচ্ছে প্রতি ডজন ১৭০-১৮০ টাকা ডজন।

কাঁজাবাজার ঘুরে দেখা গেছে, বেশ কিছুদিন ধরে তুলনামূলক কম দামে বিক্রি হওয়া পাকা টমেটো, কাঁচা পেঁপে ও শসার দাম হঠাৎ করেই বেড়েছে। টানা দুই সপ্তাহ বেড়ে এ তিনটি পণ্যের দাম প্রায় দ্বিগুণ হয়েছে। বিপরীতে দু-একটির দাম কিছুটা কমলেও বাজারে প্রায় সব ধরনের সবজির দাম বেশ চড়া। শসা, করলা, বেগুণ, বরবটি বিক্রি হচ্ছে ৭০ থেকে ৮০ টাকা কেজিতে। আর পটল, ঢেঁড়স, করলা, শিম বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৬০ টাকা দরে। এছাড়া, পাতাকপি প্রতি পিচ ৬০টাকা, লাউ ৫০-৬০ টাকা, কুমড়া ৩০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। গাজর বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকা কেজি, জালি ৫০ টাকা, পেপে ৪০ টাকা কেজি, মুলা ৪০ টাকা কেজি এবং ধুন্দল ৯০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। এদিকে আলু ২০-২৫ টাকা, রসুন ৬০ টাকা থেকে ১৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।