• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

বুধবার, ০৩ জুন ২০২০, ২০ জৈষ্ঠ ১৪২৭, ১০ শাওয়াল ১৪৪১

জাতীয় শিশু-কিশোর নাট্য ও সাংস্কৃতিক উৎসব

তৃতীয় দিনে নাটক আবৃত্তি ও একক অভিনয়

সংবাদ :
  • সাংস্কৃতিক বার্তা পরিবেশক

| ঢাকা , সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯

শিল্পকলা একাডেমিতে চলছে চতুর্দশ জাতীয় শিশু-কিশোর নাট্য ও সাংস্কৃতিক উৎসব। উৎসবের তৃতীয় দিনে বেশ কয়েকটি নাটক মঞ্চস্থ করা হয়েছে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা শিশুরা আবৃত্তি ও একক অভিনয়ও করে এদিন।

একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার পরীক্ষণ থিয়েটার হলে বিকেলে মঞ্চস্থ হয় দ্বিজেন্দ্রনাথ ব্যানার্জীর রচনায় ও কামরুল্লাহ সরকারের নির্দেশনায় ‘প্রসন্ন প্রকৃতি’। নাটকটি পরিবেশন করে ভোর হলো নাট্যদল। কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গল্প অবলম্বনে দিলীপ কুমার গৌরের নাট্যরূপ ও নির্দেশনায় নাট্যনিকেতন সিরাজগঞ্জের পরিবেশনায় মঞ্চস্থ হয় নাটক ছুটি। এছাড়া তারুণ্যের আহ্বান ও পাখির ডানা মঞ্চস্থ হয়।

স্টুডিও থিয়েটার হলে জয়পুরহাট চুয়াডাঙ্গা, রাজশাহী, নওগাঁ, নাটোর, রাঙ্গামাটি, মাদারীপুর, শরীয়তপুর ও দিনাজপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমির পরিবেশনায় আবৃত্তি, একক অভিনয় ও ৭ মার্চের ভাষণ মঞ্চায়িত হয়। দিজেন্দ্রনাথ ব্যানার্জীর রচনায় ও সম্মিলিত নির্দেশনায় জেলা শিল্পকলা একাডেমি শিশু নাট্যদল নওগাঁ মঞ্চস্থ করে নাটক চিড়িয়াখানা।

জাতীয় সংগীত ও নৃত্যকলা কেন্দ্রে বিকাল ৫টা থেকে রেবা সাহা ও এসএম সেলিমের রচনায় এসএম সেলিমের নির্দেশনায় আলমডাঙ্গা কলাকেন্দ্র চুয়াডাঙ্গা পরিবেশন করে নাটক বাল্যবিয়ে। স্বপন মাহামুদের রচনায় সানজিদা ইসলাম ডলির নির্দেশনায় জেলা শিল্পকলা একাডেমি শিশু নাট্যদল মাদারীপুর পরিবেশন করে নাটক আলোর পথে। রফিকুল হকের রচনায় বিভাষ রায়ের সির্দেশনায় ভোর হলো শিশু কিশোর (ইঙ্গিত থিয়েটার) নাটোরের পরিবেশনায় নাটক বই বই হইচই এবং আনিসুর রহমানের রচনায় সুজাতা রানী দের নির্দেশনায় জেলা শিল্পকলা একাডেমি শিশু নাট্যদল শরিয়তপুর পরিবেশন করে নাটক আমাদের মীনা।

এদিকে জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে সিরাজগঞ্জ, জয়পুরহাট, চুয়াডাঙ্গা, রাজশাহী, নওগাঁ, নাটোর, রাঙ্গামাটি, মাদারীপুর ও শরিয়তপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমি পরিবেশন করে সমবেত সংগীত, একক সংগীত ও সমবেত নৃত্য। এছাড়া একাডেমির জাতীয় চিত্রশালার চিত্রকলা স্টুডিওতে প্রতিদিন দুপুর ২টা থেকে বিকাল ৪টা জেলা থেকে আগত শিশুদের অংশগ্রহণে চিত্রাঙ্কন এবং একাডেমির জাতীয় সংকীত ও নৃত্যকলা প্রাঙ্গণে শিশুদের অংশগ্রহণে বঙ্গবন্ধু পুষ্পকানন নির্মাণ এবং আগত শিশুদের নিয়ে সমাবেশ, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, অ্যাক্রোবেটিক প্রদর্শনী ও মঞ্চকুড়ি পদক প্রদান করা হয়।

উৎসবের ৩য় দিনে বিভিন্ন আয়োজনে বরেণ্য নাট্যব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার, হাসান ইমাম, কেএস ফিরোজ, নাদিয়া আহমেদ, শারমিন লাকী, মাহিদুল ইসলাম, অভিজিৎ সেনগুপ্ত, মাসুম আজিজ, বৃন্দাবন দাস, রোজী সিদ্দিকী, তামান্না রহমান, দীপা খন্দকার, মুনমুন আহমেদ ও মীর বরকত আগত শিশুদের সনদপত্র প্রদান ও স্বাগত বক্তব্য রাখেন।