• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭ ২৩ রজব ১৪৪২

জাতীয় নির্বাচনে আনসার ও ভিডিপিকে প্রস্তুত থাকতে হবে

প্রধানমন্ত্রী

| ঢাকা , মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৮

image

গতকাল প্রধানমন্ত্রী আনসার একাডেমির সমাবেশে বীরত্ব ও সাহসিকতার জন্য আনসার ও ভিডিপি সদস্যদের পদক প্রদান করেন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী জাতীয় নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানে আনসার ও ভিডিপি সদস্যদের প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দিয়ে জনগণের সাংবিধানিক ভোটাধিকার যেন যথাযথভাবে প্রয়োগ হয় তা নিশ্চিত করার আহ্বান জানিয়েছেন। বাসস।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আসন্ন জাতীয় নির্বাচনকে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠানে আপনাদের প্রতিটি সদস্যকে সব সময় প্রস্তুত থাকতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা চাই আমাদের দেশের জাতীয় নির্বাচন আরও সমৃদ্ধ হোক, জনগণ যেন সঠিকভাবে তার সাংবিধানিক অধিকারটা প্রয়োগ করতে পারে। সে বিষয়টায় আপনাদের যথাযথভাবে নজর দিতে হবে।’

শেখ হাসিনা গতকাল গাজীপুরের সফিপুরে বাংলাদেশ আনসার একাডেমিতে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর ৩৮তম জাতীয় সমাবেশে প্রধান অতিথির ভাষণে একথা বলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীকে রাষ্ট্রীয় সালাম জানানো হয়। এ সময় তিনি বর্ণাঢ্য কুচকাওয়াজ পরিদর্শন করেন এবং সালাম গ্রহণ করেন।

শেখ হাসিনা আনসার সদস্যদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘মনে রাখবেন, মানুষের নিরাপত্তা, বিনিয়োগের নিরাপত্তা এবং শান্তির পরিবেশ ধরে রাখা আপনাদের পবিত্র শপথ এবং দায়িত্ব। জননিরাপত্তা বিধানের যে পবিত্র দায়িত্ব আপনাদের ওপর অর্পিত আছে তা সঠিকভাবে পালন করবেন। শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষার ক্ষেত্রে অশুভ শক্তিকে পরাভূত করতে সততা, সাহস ও আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করবেন।’

তিনি এ সময় দেশের সামগ্রিক উন্নয়নে স্থিতিশীল রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক পরিবেশ বজায় রাখার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

তিনি এই বাহিনীর সদস্যদের প্রশংসা করে বলেন, স্বাধীনতার পর থেকে প্রতিটি ক্ষেত্রে আপনারা সব সময়ই কর্মদক্ষতা ও সফলতার পরিচয় দিয়ে আসছেন। বিশেষ করে জাতীয় সংকটকালে এবং জরুরি মুহূর্তে আপনাদের কর্মতৎপরতায় এ বাহিনী সরকারের এক নির্ভরযোগ্য অংশে পরিণত করেছে। বিভিন্ন নির্বাচনে দায়িত্ব পালন ছাড়াও অপারেশন রেলরক্ষা, মহাসড়কে নাশকতা রোধ এবং মৌলবাদ ও জঙ্গিবাদ রুখতে আপনাদের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

প্রধানমন্ত্রী এ সময় সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রশ্নে তার সরকারের জিরো টলারেন্স নীতির পুনরোল্লেখ করে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ মোকাবিলায় সকল শ্রেণী-পেশার নাগরিকদের দিয়ে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার প্রসঙ্গ উত্থাপন করেন।

তিনি অভিভাবক ও শিক্ষকদের তাদের সন্তান ও শিক্ষার্থীরা কোথায় যায়, কার সঙ্গে মেশে, কি করে তা ভালোভাবে খোঁজখবর রাখার আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী আনসার ও ভিডিপি সদস্যদের মধ্যে বীরত্ব ও সাহসিকাপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ বাংলাদেশ আনসার পদক, রাষ্ট্রপতি আনসার পদক, রাষ্ট্রপতি ভিডিপি পদক, বাংলাদেশ আনসার সার্ভিস মেডেল, রাষ্ট্রপতি আনসার সার্ভিস মেডেল, বাংলাদেশ ভিডিপি সার্ভিস মেডেল এবং ভিডিপি সার্ভিস মেডেল বিতরণ করেন। এ সময় ১২৬ জনকে পদকে ভূষিত করা হয়।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ আনসারের প্যারেড গ্রাউন্ডে এসে পৌঁছলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান, জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দীন, বাংলাদেশ আনসারের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল শেখ পাশা হাবিব উদ্দিন এবং একাডেমির কমান্ড্যান্ট সাইফউদ্দিন মোহাম্মদ খালেদ প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান।

মন্ত্রিপরিষদ সদস্য, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা, সংসদ সদস্য, তিন বাহিনীর প্রধান, কূটনৈতিক এবং পদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তাবৃন্দ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

পরে আনসার ও ভিডিপির বিশেষ দরবারেও অংশগ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রী।