• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবন ১৪২৫, ১৯ জিলকদ ১৪৪০

চার তরুণীকে আটকে রেখে ধর্ষণ

গ্রেফতার দুই

সংবাদ :
  • প্রতিনিধি, ফেনী

| ঢাকা , শুক্রবার, ১১ জানুয়ারী ২০১৯

ফেনী শহরের রামপুর এলাকার একটি বাসায় চার তরুণীকে আটকে রেখে দীর্ঘ ছয় মাস গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এক তরুণী বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়েরের পর গত বুধবার রাতে মো. ওমায়ের (১৯) ও আরিফুল ইসলাম প্রকাশ আরমান (৩৩) নামে দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে ফেনী মডেল থানায় পুলিশ। তবে প্রধান আসামি কাওসার বিন কাসেম পলাতক রয়েছে। গ্রেফতার হওয়া তার দুই সহযোগীকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে ১০ দিনের পুলিশি রিমান্ড চাওয়া হয়েছে।

তরুণীদের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, বিভিন্ন স্থান থেকে বিয়ের প্রলোভন ও প্রেমের অভিনয় করে অভিনব কৌশলে প্রধান আসামি কাওসার বিন কাসেম ও তার সহযোগীরা তাদের ওই বাসায় এনে দীর্ঘ ছয় মাস ধরে আটকে রেখে মাদক সেবন করিয়ে জোরপূর্বক গণধর্ষণ করে আসছে। এমনকি অজ্ঞাতনামা লোকজনকে বাসায় নিয়ে এসেও একই কায়দায় তাদের সঙ্গে দৈহিক মিলনে বাধ্য করা হতো।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ফেনী শহর পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. শাহজাহান জানান, শহরের রামপুরের ওই বাসা থেকে তরুণীদের উদ্ধার অভিযানের সময় বাসার বিভিন্ন কক্ষ থেকে ৫৩ পিস ইয়াবা বড়িসহ মাদক সেবনের বিভিন্ন সরঞ্জাম ও নির্যাতনের আলামত জব্দ করা হয়েছে। মাদক উদ্ধারের ঘটনায়ও থানায় পৃথক মামলা দায়ের হয়েছে।

ফেনী মডেল থানার ওসি (তদন্ত) শহীদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় অভিযুক্ত প্রধান আসামি কাওসার বিন কাসেমকে ধরতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে। ইতোমধ্যে তার দুই সহযোগীকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে ১০ দিনের পুলিশি রিমান্ড চাওয়া হয়েছে।

ফেনী সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা মো. আবু তাহের বলেন, গত সোমবার দুপুরে পুলিশ শারীরিক পরীক্ষা করানোর জন্য চার তরুণীকে হাসপাতালে নিয়ে আসলে তরুণীদের শারীরিক পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়েছে।