• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

মঙ্গলবার, ০৭ এপ্রিল ২০২০, ২৪ চৈত্র ১৪২৬, ১২ শাবান ১৪৪১

গাইবান্ধায় আদিবাসী মেলা ও সাংস্কৃতিক উৎসব

সংবাদ :
  • প্রতিনিধি, গাইবান্ধা

| ঢাকা , রোববার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

image

গাইবান্ধায় আদিবাসী যুব মিলনমেলা ও সাংস্কৃতিক উৎসব উপলক্ষে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা -সংবাদ

আদিবাসী সাঁওতাল, ওড়াও, মালপাহাড়ী, বুনো ইত্যাদি আদিবাসী জনগোষ্ঠীর নিজস্ব কৃষ্টি ও ঐতিহ্য, সামাজিক রীতিনীতি ও আচার অনুষ্ঠান তুলে ধরতে গতকাল গাইবান্ধায় আদিবাসী যুবমিলন মেলা ও সাংস্কৃতিক উৎসবের আয়োজন করা হয়। উৎসবে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্জ্বলন, আলোচনা সভা, স্মারকলিপি প্রদান ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এই উৎসব আয়োজন করে মিলনমেলা উদ্যাপন কমিটি ও অবলন্বন।

তেরেসা সরেনের সভাপতিত্বে এই উৎসবের আলাচনা সভায় আলোচক হিসেবে অংশ নেন ভারতীয় হাই কমিশনের (রাজশাহী) সহকারী হাই কমিশনার শ্রী সঞ্জীব কুমার ভার্টী, বাংলাদেশের সাবেক ডেপুটি হাই কমিশনার, সোহেলী মির্জা ক্যানসার ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও ফ্রিল্যান্স লেখক সালাম আজাদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. আলমগীর কবীর, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবদুল আউয়াল, সাদুল্যাপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ জহুরুল কাইয়ুম, আদিবাসী-বাঙালি পরিষদের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম বাবু, অবলন্বনের নির্বাহী পরিচালক প্রবীর চক্রবর্তী,আদিবাসী নেত্রী প্রিসিলা মুর্মু, রুমিলা হেমব্রম প্রমুখ।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রায় বলা হয়েছে, কোন জনগোষ্ঠীকে পিছিয়ে রেখে কোন স্থায়ী উন্নয়ন হতে পারে না। এ কারণে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে উন্নয়নের ধারায় সংযুক্ত করতে হবে।

গতকাল দিনভর আদিবাসী সম্প্রদায়ের যুবক যুবতীদের পদচারনায় মুখরিত হয়ে উঠে জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তন। নিজস্ব সাজসজ্জায় ওড়াও জনগোষ্ঠীর যুবক যুবতীরা পরিবেশন করে তাদের নিজস্ব সংগীত। নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে তারা যেমন তাদের নিজস্ব সংস্কৃতি তুলে ধরে, তেমনি সমাজ তথা রাষ্ট্রের অধিকার থেকে বঞ্চিত তাদের প্রতি বৈষম্যের কথাও তুলে ধরেন তারা। এ সময় আদিবাসীদের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকের নিকট স্মারক লিপি প্রদান করা হয়। উৎসবে স্বাগত সংগীত পরিবেশন করেন বিশ্বভারতীর শিক্ষার্থী ইন্দ্রানী মোদক। এর আগে উৎসবে ৫শতাধিক আদবাসী সাঁওতাল যুবক যুবতীরা বর্ণিল সাজে সজ্জিত হয়ে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রায় অংশ নেয়।

প্রসঙ্গত, আদিবাসী সাঁওতাল, ওড়াও, মালপাহাড়ী, বুনো ইত্যাদি আদিবাসী জনগোষ্ঠীর প্রায় সাত হাজার মানুষের বসবাস গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ ও সাদুল্যাপুর উপজেলায়।