• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৫ রবিউস সানি ১৪৪১

ঈদযাত্রায় অতিরিক্ত ভাড়া আদায় নৈরাজ্য বন্ধের দাবি

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

| ঢাকা , রোববার, ১১ আগস্ট ২০১৯

image

ঈদযাত্রা : বাস সংকটে বসে আছে টার্মিনালের যাত্রীরা, অপেক্ষার পর অপেক্ষা (ডানে) অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে লঞ্চের ঝুঁকিপূর্ণ চলাচল -সংবাদ

ঈদযাত্রায় অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের নৈরাজ্য ও যাত্রী হয়রানি বন্ধের দাবি জানিয়েছে যাত্রী কল্যাণ সমিতি। একই সঙ্গে ফিটনেসবিহীন যানবাহন ও অদক্ষ চালক অপসারণ করে নিরাপদ, নির্বিঘœ ও দুর্ঘটনামুক্ত ঈদযাত্রা নিশ্চিত করার দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি। গতকাল ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি হলে ‘ঈদযাত্রায় ভাড়া নৈরাজ্য, যাত্রী হয়রানি, ফিটনেসবিহীন যানবাহন বন্ধের দাবিতে এক সংবাদ সম্মেলনে সমিতির মহাসচিব মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী উপরোক্ত দাবি জানান। দাবিগুলো হলো- সড়ক, নৌ ও আকাশপথে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের নৈরাজ্য বন্ধ করা, পশুবাহী ট্রাক থামিয়ে চাঁদাবাজি বন্ধ, সড়ক-মহাসড়কের ওপর বসা পশুর হাট-বাজার উচ্ছেদ, টোলপ্লাজা গুলো সবকটি বুথ চালু করে দ্রুত গাড়ি পাসিং করা, যানজট প্রবণ এলাকায় দ্রুত গাড়ি পাসিং করা, মোটরসাইকেলে ঈদযাত্রা নিষিদ্ধ করা, বেপরোয়া বাইকারদের নিয়ন্ত্রণ করা, ফুটপাত পরিষ্কার রাখা, পথচারীদের হাঁটার পরিবেশ নিশ্চিত করা, পথচারীদের নিরাপদে রাস্তা পারাপার নিশ্চিত করা, দুর্ঘটনা প্রতিরোধে স্প্রিন্টগান ব্যবহার, উল্টোপথে গাড়ি চলাচল বন্ধ করা, ফিটনেসবিহীন যানবাহন চলাচল বন্ধ করা, মহাসড়কে ব্যাটারিচালিত রিকশা, ইজিবাইক, প্যাডেলচালিত রিকশা, অটোরিকশা, নছিমন-করিমন বন্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ, রেলপথে টিকিট কালোবাজারি বন্ধ করা, ক্রাশ প্রোগ্রামের মাধ্যমে সড়ক মহাসড়ক প্রতি ইঞ্চি অবৈধ দখল ও পার্কিংমুক্ত করা, নৌপথে অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই ও অতিরিক্ত ভাড়া আদায় কঠোরভাবে নিষিদ্ধ করা দাবি জানায়।

সংবাদ সম্মেলনে মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী বলেন, রেলপথে টিকিট কালোবাজারি ও শিডিউল বিপর্যয়ের কারণে অবর্ণনীয় দুর্ভোগে পড়ছে বেশিরভাগ ঘরমুখো যাত্রীরা। সড়ক পথে ফিটনেসবিহীন ট্রাকে পশু বহন, ফিটনেসবিহীন বাসে যাত্রী বহনের কারণে দুর্ঘটনার ঝুঁকি বেড়েছে। একদিকে বর্ষায় ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তাঘাটের কারণে যানবাহনের গতি কমায় ধীরগতির কারণে উত্তরাঞ্চলসহ দেশের বিভিন্ন সড়ক-মহাসড়কে থেমে থেমে যানবাহন চলছে। অন্যদিকে মানবসৃষ্ট দুর্ভোগ নিরসনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও পুলিশের আইজি’র কড়া নিদের্শনা উপেক্ষা করে পথে পথে পশুবাহী ট্রাক থামিয়ে পুলিশ ও বিভিন্ন সংগঠনের নামে চাঁদাবাজির কারণে রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশের সড়ক-মহাসড়কে কৃত্রিম যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

তিনি বলেন, নৌ-পথে বৈরি আবহাওয়ার কারণে প্রবল স্রোতের কারণে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া, শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌ-রুটে ফেরি ও লঞ্চ পারাপার ব্যহত হচ্ছে। প্রতিবছর ঈদে ছোট-বড় অসংখ্য দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। সরকারের নিয়োজিত ইজারাদাররা অস্বাভাবিক যাত্রী হয়রানি ও অতিরিক্ত টোল আদায়ের নামে নৈরাজ্য চালাচ্ছে বিভিন্ন নৌ-বন্দরে ও খেলাঘাটে।

রেলপথে ৬৮ দশমিক ৩৫ শতাংশ ইঞ্জিন, ৪৬ দশমিক ১৪ শতাংশ কোচ মেয়াদ উত্তীর্ণ। এছাড়াও ৮০ শতাংশ ট্রেনে স্বাভাবিক সময়ে কোচ ও আসন সংকটে যাত্রীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে হেন্ডেলে ঝুলে বা ছাদে ভ্রমণে বাধ্য হচ্ছে। তাই ঈদযাত্রায় অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের নৈরাজ্য বন্ধের পাশাপাশি যাত্রী হয়রানি বন্ধের দাবি জানান তিনি।