• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

বুধবার, ১৫ জুলাই ২০২০, ০১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৩ জিলকদ ১৪৪১

আন্দোলনে যখন নামব আমাদের এটা হবে ডু অর ডাই

মওদুদ

সংবাদ :
  • প্রতিনিধি, নারায়ণগঞ্জ

| ঢাকা , রোববার, ২১ জানুয়ারী ২০১৮

বিএনপির স্থায়ী কমিটি সদস্য ও সাবেক আইনমস্ত্রী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ বলেছেন, এবার কোন ছাড় দেয়া হবে না। আন্দোলনে যখন নামব আমাদের এটা হবে ডু অর ডাই, হয় আমরা বাঁচবো, নয় আত্মহত্যা করবো। কিন্তু দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনবো। সেজন্য বিএনপির নেতাকর্মীদের প্রস্তুত থাকতে হবে। কারণ আওয়ামী লীগ সমঝোতায় বিশ্বাস করে না। কোন শান্তিপূর্ণ সমাধান তাদের কালচারে নেই। তারা চায় সংর্ঘষ। তাই আন্দোলন করেই নিরদলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন আদায় করা হবে। শনিবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জের বন্দর হেভেন কমিউনিটি সেন্টারে মহানগর বিএনপির কর্মী সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ বলেন, বর্তমান সকরকার নির্বাচিত না হয়েও একদলীয় শাসন ব্যবস্থা কায়েম করেছে। একদলীয় শাসনের অবসান আনতে হবে। দলীয় সরকারের অধীনে কোন নির্বাচন হতে দেয়া হবে না। আবার খালি মাঠে গোলও দিতে দেবো না। তিনি বলেন, একদলীয়ভাবে নির্বাচন করবেন, আর আমাদের কত দিন এভাবে বন্দী করে রাখবেন, আমি আপনাদের বলবো ধৈর্য্য ধরেন, সময় আসছে, যে সব বাঁধ তারা সৃষ্টি করেছে জনগণের জোয়ারে সব বাঁধ ভেঙে যাবে।

ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ বলেন, কষ্ট লাগে বেগম খালেদা জিয়াকে দিনের পর দিন আদালতের কাঠগড়ায় বসে থাকতে হয়। তিনি বলেন, আমার ৫০ বছরের আইনপেশা জীবনে কোনদিন শুনিনি, একজন সাধারণ লোকের ব্যাপারে সাত দিনের জামিন হয়। অথচ বেগম খালেদা জিয়াকে ২৪ ঘণ্টার জন্য জামিন দেয়া হয়। এমন নিষ্ঠুর আচরণ করছে সরকার। আমি বলবো এটা কাপুরুষের আচরণ।

তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়া যতদিন আদালতের কাঠগড়ায় বসে থাকবে ততই তার জনপ্রিয়তা বাড়বে। তিনি বেগম খালেদা জিয়াকে আগামী দিনের প্রধানমন্ত্রী আখ্যা দিয়ে বলেন, দেশের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হবেন বেগম খালেদা জিয়া। কারণ মানুষ এই সরকারের পরিবর্তন চায়।

নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট আবুল কালামের সভাপতিত্বে কর্মী সভায় বক্তব্য রাখেন মহানগর সহসভাপতি অ্যাডভোকেট হুমায়ুন কবির, অ্যাডভোকেট জাকির হোসেন, নুরুদ্দিন আহমেদ, বন্দর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মুকুল, সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল, কাউন্সিলর সুলতান আহমেদ, হান্নান সরকার, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মাহমুদা মালা, ছাত্রদল নেতা আবুল কাউসার আশাসহ অনেকে।