• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ৯ কার্তিক ১৪২৭, ৭ রবিউল ‍আউয়াল ১৪৪২

সড়ক দুর্ঘটনা

তিন জেলায় নিহত ৪

| ঢাকা , রোববার, ১৫ মার্চ ২০২০

পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় তিন জেলায়, ৪ জন নিহত হয়েছে। এর মধ্যে ময়মনসিংহের ভালুকায় ২ জন এবং নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ ও পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় একজন করে প্রাণ হারায়।

প্রতিনিধিদের পাঠারো খবরে এ তথ্য জানা গেছে।

ভালুকা (ময়মনসিংহ) : গতকাল সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়কের ভালুকা বাসস্ট্যান্ড এলাকার ইউটার্ন ঘোরার সময় বালু ভর্তি ড্রামট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে অজ্ঞাত রিকশাচালক (৪০) ও আনোয়ার হোসেন (৩০) নামে ২ জন নিহত হয়েছে। নিহত আনোয়ার হোসেন কুমিল্লা জেলার বুড়িচং উপজেলার জিয়ারপুর গ্রামের হারুনুর রশীদের ছেলে। সে ভালুকায় ভাড়া বাসায় থেকে স্থানীয় শেফার্ড মিলে কাজ করত। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ঘটনার সময় ভালুকা বাসস্ট্যান্ডের উত্তর পাশের ইউটার্নের উল্টোদিক থেকে আসা একটি রিকশা ভালুভর্তি ড্রামট্রাকের নিচে ঢুকে গেলে রিকশাচালক ও আরোহী আনোয়ার চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলে মারা যায়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ট্রাকের নিচ থেকে নিহতদের লাশ উদ্ধার করে। দুর্ঘটনার পর ট্রাকচালক পালিয়ে যায়।

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) : রূপগঞ্জে মোটরসাইকেল ও ইছারমাথা (ট্রাক্টর) মুখোমুখী সংঘর্ষে তানভির (১৬) নামে এক কিশোর মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছে। গতকাল সকাল ১০টার দিকে দাউদপুর ইউনিয়নের বীরহাটাব এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত তানভীর দাউদপুর ইউনিয়নের নোয়াগাঁও এলাকার জামান মিয়ার ছেলে। নিহত তানভীর দেবই কাজিরবাগ মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র।

রূপগঞ্জ থানার ওসি মাহমুদুল হাসান জানান, নিহত তানভীর তার নিজ বাড়ি থেকে মোটরসাইকেল নিয়ে বেলদী বাজারে যাচ্ছিলেন। এ সময় একটি ইটভাটা থেকে ইট বোঝাই করে সড়কে চলাচল নিষিদ্ধ ইছারমাথা (ট্রাক্টর) সড়কে উঠার সময় বীরহাটাব খান বাড়ির সামনে মোটরসাইকেল ও ইছারমাথার (ট্রাক্টর) মুখোমুখী সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই তানভীর নিহত হয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহত তানভীর ও দুর্ঘটনা কবলিত মোটরসাইকেল ও ইছারমাথা (ট্রাক্টর) উদ্ধার করে।

কুয়াকাটা : কুয়াকাটায় ইটবাহী ট্রলিগাড়ির চাপায় সোলায়মান (২২) নামে এক যুবক নিহত হয়েছে। গতকাল দুপুর ১২টায় কলাপাড়া উপজেলার পুনামাপাড়া এলাকায় এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটেছে। নিহত সোলায়মান ওই এলাকার ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেল চালক। দুর্ঘটনাস্থল থেকে কুয়াকাটা হাসপাতালে পৌঁছার আগেই সোলায়মান মারা গেছে বলে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক আরিফুল হক জানিয়েছেন।

মহিপুর থানার উপ-পরিদর্শ মনির হোসেন জানিয়েছেন, পুনামাপাড়া এলাকায় ইটবাহী ট্রলিগাড়ি মোটরসাইকেল আরোহী সোলায়মানকে চাপা দিয়ে যায়। এতে দুর্ঘটনাস্থলে সোলায়মান নিহত হয়। পুলিশ খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে। ট্রলিগাড়ি ও মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়েছে। পুনামাপাড়া এলাকার মোজাম্মেল হকের ছেলে নিহত সোলায়মান। একই এলাকার ইট, বালু, ব্যবসায়ী জাকির মল্লিক ও মিস্ত্রিপাড়া এলাকার নাসির গাজীর মালিকাধীন ট্রলি গাড়িতে এ দুর্ঘটনা ঘটায়। দুর্ঘটনার পরই ট্রলি চালক আব্বাস পালাতক রয়েছেন।

এ ব্যাপারে মহিপুর থানার ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পটুয়াখালী মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে এবং অপমৃত্যু মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।