• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৯ আশ্বিন ১৪২৫, ১৩ মহররম ১৪৪০

বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের স্বাগত জানালো বেইজিং হুয়াওয়ে

| ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

image

প্রযুক্তি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ের সবচেয়ে বড় সিএসআর প্রোগ্রাম ‘সিডস ফর দ্য ফিউচার-২০১৮’-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে চীনের রাজধানী বেইজিংয়ে। গত ১১ সেপ্টেম্বর বেইজিংয়ের হুয়াওয়ে কার্যালয় প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০ জন আইসিটি শিক্ষার্থীকে স্বাগত জানায় বেইজিং হুয়াওয়ে কর্তৃপক্ষ। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিডা) চেয়ারম্যান কাজী মো. আমিনুল ইসলাম প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, সিডস ফর দ্য ফিউচার প্রতিযোগিতাটি মূলত দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার উন্নয়ন পরিকল্পনা কার্যকর করার অংশ, যা ২০০৮ সালে শুরু হয়। এখন পর্যন্ত বিশ্বের ১০৮টি দেশ ও অঞ্চলে সিডস ফর দ্য ফিউচার প্রতিযোগিতা চালু হয়েছে। এই প্রতিযোগিতার মূল উদ্দেশ্য বিশ্বমানের প্রযুক্তি উদ্ভাবনের জন্য নতুন নতুন আইসিটি মেধাবীদের দক্ষতা উন্নয়নে সহায়তা করা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিডা চেয়ারম্যান কাজী মো. আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘১৯৯৮ সাল থেকে হুয়াওয়ে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করছে। এই দীর্ঘমেয়াদি সুসম্পর্ক হুওয়াওয়ে ও বাংলাদেশ উভয়ের জন্য ফলপ্রসূ। আমি আশা করি দুই দেশের এই বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক দীর্ঘদিন বজায় থাকবে।’

অনুষ্ঠানে হুয়াওয়ের পাবলিক অ্যাফেয়ার্স অ্যান্ড কমিউনিকেশন ডিপার্টমেন্টের বেইজিং অফিসের পরিচালক ঝাও জিয়াওবিন বলেন, ‘সিডস ফর দ্য ফিউচার শিক্ষার্থীদের কারিগরি দক্ষতা এবং কর্মক্ষেত্রের দক্ষতা বাড়াতে সহায়তা করে। হুয়াওয়ে টেলিকম, আইটি এবং ব্যবসায়িক ক্ষেত্রগুলোতে শিক্ষার্থীদের দক্ষতা বিকাশে সহায়তা করার জন্য একটি রোল মডেল হয়ে উঠেছে। আমরা আশা করি, উন্নত প্রযুক্তিগত অবকাঠামো নির্মাণের জন্য আরও অনেক কোম্পানি আমাদের পদাঙ্ক অনুসরণ করবে।’

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বেইজিংয়ে বাংলাদেশ দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর মো. মাহফুজুল আলম খান বক্তব্য রাখেন।

উল্লেখ্য, গত ১৬ জুলাই রাজধানীর গুলশানে হুয়াওয়ের কাস্টমার সল্যুশন ইনোভেশন অ্যান্ড ইন্টিগ্রিশন এক্সপেরিয়েন্স সেন্টারে (সিএসআইসি) আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে এই প্রতিযোগিতা শুরু হয়। পরবর্তীতে বাংলাদেশ শীর্ষস্থানীয় ৫টি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাছাই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ১০ জন আইসিটি মেধাবী শিক্ষার্থীকে চূড়ান্ত করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে রয়েছে- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি, রাজশাহী প্রকৌশ ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। শিক্ষার্থীদের চীনে নিয়ে যাওয়ার আগে গত ৬ সেপ্টেম্বর সিএসআইসি সেন্টারে তাদের সংবর্ধনা দেয় হুয়াওয়ে বাংলাদেশ। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।