• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

শনিবার, ১১ জুলাই ২০২০, ২৭ আষাঢ় ১৪২৭, ১৯ জিলকদ ১৪৪১

‘হাউডি মোদি’ সমাবেশে ট্রাম্প

সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়তে ভারত-যুক্তরাষ্ট্র বদ্ধপরিকর

সংবাদ :
  • সংবাদ ডেস্ক

| ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯

image

নরেন্দ্র মোদি ও ডোনাল্ড ট্রাম্প

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলায় যুক্তরাষ্ট্র ও ভারত বদ্ধপরিকর। উভয়েই নিজ নিজ দেশকে নিরাপদ রাখার প্রয়োজনীয়তা অনুধাবন করছে। আমাদের সীমান্ত সুরক্ষিত রাখতে হবে। স্থানীয় সময় রোববার বিকালে টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের বৃহৎ শহর হাউস্টনে টেক্সাসে এনআরজি স্টেডিয়ামে ইন্ডিয়া ফোরাম আয়োজিত ‘হাউডি মোদি’ (কেমন আছেন, মোদি) শীর্ষক সমাবেশে দেয়া ভাষণে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী মোদিকে নিয়ে ‘হাউডি মোদি’ নামের ওই জনসভার আয়োজন করেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিনিরা। এ অনুষ্ঠানকে যুক্তরাষ্ট্রে কোন বিদেশি নেতাকে দেয়া বৃহত্তম সংবর্ধনাগুলোর মধ্যে একটি বলে বর্ণনা করা হচ্ছে। এ সময় ৫০ হাজারের মতো মানুষ এতে যোগ দেন বলে জানিয়েছে সংবাদ মাধ্যম বিবিসিও রয়টার্স। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সেখানে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এ সময় মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, আজ আমরা যুক্তরাষ্ট্র ও ভারতের সামরিক বাহিনীর সব সাহসী সদস্যদের সম্মান জানাই, যারা আমাদের স্বাধীনতার সুরক্ষায় সম্মিলিতভাবে কাজ করছেন। সন্ত্রাসবাদের কবল থেকে নিরপরাধ মানুষদের সুরক্ষায় আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এ সময় মঞ্চে ট্রাম্পের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ট্রাম্পের ভাষায়, ‘প্রধানমন্ত্রী মোদি, আমি আপনার সঙ্গে কাজ করতে মুখিয়ে রয়েছি... আগের চেয়েও দেশকে আরও সমৃদ্ধ করতে চাই।

হোয়াইট হাউজে ভারতের জন্য ডোনাল্ড ট্রাম্পের চেয়ে ভালো বন্ধু আগে কখনও ছিল না।’ পুরো বিশ্ব মোদির নেতৃত্বে একটি শক্তিশালী, সার্বভৌম ভারত প্রত্যক্ষ করছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। গত জুনে ভারতের বিশেষ বাণিজ্যিক সুবিধা যুক্ত দেশের মর্যাদা কেড়ে নেয় ট্রাম্প প্রশাসন। পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে ২২টি মার্কিন পণ্যের ওপরে শুল্ক আরোপ করে দিল্লি। এ নিয়ে দুই দেশের সম্পর্কে তৈরি হওয়া অস্থিরতা দৃশ্যত ঢেকে দিয়েছে হাউডি মোদি অনুষ্ঠানের মঞ্চ। এদিনের অনুষ্ঠানে ট্রাম্প বলেন, আজকের মতো আমেরিকায় কখনও বিনিয়োগ করেনি ভারত।

অন্যদিকে আমরাও ভারতে সেটাই করছি। মোদির সঙ্গে একই মঞ্চে উপস্থিত হওয়াকে শক্তি ও বাণিজ্যিক ক্ষেত্রে বিশ্বের বৃহত্তম ও পুরনো গণতন্ত্রের সঙ্গে সম্পর্ক মজবুত করার একটি প্লাটফর্ম হিসেবে আখ্যায়িত করেন ট্রাম্প। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, আমরা বেশ কয়েকবার সাক্ষাৎ করেছি। প্রত্যেকবারই ট্রাম্প ছিলেন উষ্ণ, বন্ধুত্বপূর্ণ, গ্রহণযোগ্য, উৎসাহী এবং বুদ্ধিমান... তার নেতৃত্বের ক্ষমতা, আমেরিকার জন্য তার স্বপ্ন, প্রত্যেক আমেরিকান নাগরিকের জন্য উদ্বেগ, আমেরিকার ভবিষ্যৎ সম্পর্কে বিশ্বাস এবং যুক্তরাষ্ট্রকে আবারও মহান করে তোলার প্রচেষ্টা লক্ষ্য করেছি। তিনি ইতিমধ্যেই আমেরিকার অর্থনীতিকে শক্তিশালী করে তুলেছেন। বিশ্ব এবং আমেরিকার জন্য তিনি অনেক কিছু করেছেন।’ যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে একজন বিদেশি নেতার জন্য আয়োজিত বিরল এক জনসভায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি একই মঞ্চে অবস্থান করে পরস্পরের প্রশংসা করেছেন। ‘হাউডি মোদি!’ জনসভাকে ‘ঐতিহাসিক অনুষ্ঠান’ হিসেবে অভিহিত করেছেন তিনি।

মোদি ও ট্রাম্প মঞ্চে ওঠার আগে ৯০ মিনিটের একটি মনোজ্ঞ অনুষ্ঠানে ৪০০ জন শিল্পী অংশ নেন। এসময় উপস্থিত জনতার উদ্দেশে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, ‘আমেরিকার অন্যতম শ্রেষ্ঠ, সবচেয়ে একনিষ্ঠ এবং সবচেয়ে বিশ্বস্ত বন্ধু ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদির সঙ্গে এখানে টেক্সাসে এসে অত্যন্ত রোমাঞ্চিত বোধ করছি।’ অপরদিকে প্রধানমন্ত্রী মোদি তার ভাষণে হোয়াইট হাউজে ভারতের একজন ‘প্রকৃত বন্ধু’ আছে উল্লেখ করে ট্রাম্পকে ‘উষ্ণ, বন্ধুত্বপূর্ণ, সহজ, অত্যন্ত সক্রিয় ও অত্যন্ত বুদ্ধিমান’ বলে বর্ণনা করেন। ‘প্রধান নির্বাহী থেকে কমান্ডার ইন চিফ, শোবার ঘর থেকে ওভাল দফতর, স্টুডিও থেকে বিশ্ব মঞ্চ- সবখানেই দীর্ঘস্থায়ী প্রভাব রেখে চলেছেন তিনি’ বলে জানান মোদি।