• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ৩০ চৈত্র ১৪২৭ ২৯ শাবান ১৪৪২

যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে রয়েছে ট্রাম্প

    সংবাদ :
  • সংবাদ ডেস্ক
  • | ঢাকা , শনিবার, ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২০

image

করোনাভাইরাসের কবল থেকে নিজেদের সুরক্ষা দিতে মাস্ক পরিহিত চীনারা -রয়াটার্স

যুক্তরাষ্ট্রে এখনও করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলে দাবি করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেন, চীনসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সঙ্গে আমরা নিবিড়ভাবে কাজ করছি। রয়টার্স, বিবিসি।

বার্তা সংস্থাটি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়ে বলেছে, চীনের ৩১টি প্রদেশের সবগুলোতে এবং বিশ্বের কমপক্ষে ১৮টি দেশে করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হওয়ার পর বৃহস্পতিবার গ্লোবাল হেলথ ইমার্জেন্সি ঘোষণা করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা ২১৩ জনে পৌঁছেছে আর আক্রান্ত হয়েছে ৯ হাজার ৬৯২ জন। এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগানে একটি অটোপার্স্ট নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠানের সামনে দাঁড়িয়ে ট্রাম্প বলেন, আমার মনে হয় আমাদের পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণেই রয়েছে। আমাদের খুব বেশি সমস্যা হয়নি।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রে প্রথমবারের মতো মানবদেহ থেকে মানবদেহ করোনাভাইরাস সংক্রমণের খবর পাওয়া গেছে। দেশটিতে এখন পর্যন্তও মোট ছয়জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার এমন একজনের আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে যিনি কখনই চীনে যাননি। সংবাদমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়ে বলেছে, যুক্তরাষ্ট্রে এর আগে করোনাভাইরাসের আক্রান্তরা সবাই সম্প্রতি চীনের উহানে ভ্রমণ করেছেন। গত ২১ জানুয়ারি শিকাগোর এক বাসিন্দার মধ্যে এ রোগের সন্ধান পাওয়া যায়। তার সঙ্গে বসবাসকারী মার্কিনির দেহেই এবার এ ভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত করা গেছে। তবে তারা দুজনেই স্বাভাবিক আছেন বলে জানিয়েছেন মার্কিন স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা।

চিকিৎসকরা জানান, নতুন এই রোগী কখনই চীনে যাননি। তিনি শিকাগোর বাসিন্দা। এ নিয়ে দেশটিতে মোট ছয়জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেল। এদিকে করোনাভাইরাসের পরিস্থিতি নিয়ে মার্কিন রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিকার কেন্দ্রের পরিচালক রবার্ট আর রেডফিল্ড বলেন, আমরা বুঝতে পারছি, এটা খুবই উদ্বেগের বিষয়। তবে এখনও পর্যন্ত আমরা যে লক্ষণ পেয়েছি তাতে মার্কিন নাগরিকদের ঝুঁকি বেশ কম।

তবে দেশটির রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিকার কেন্দ্র জানায়, তারা আশঙ্কা করছিলেন যে, মার্কিনিদের মধ্যে এ রোগের সংক্রমণ হতে পারে। শেষ পর্যন্ত এ আশঙ্কাই সত্যি হলো। সংস্থাটি আরও জানায়, ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর দুই থেকে ১৪ দিনের মধ্যে এর লক্ষ্মণগুলো প্রকাশ পেতে থাকে।