• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০ মহররম ১৪৪২, ১১ আশ্বিন ১৪২৭

ইরানি হামলায় আহত ১০৯

পেন্টাগনের স্বীকারোক্তি

    সংবাদ :
  • সংবাদ ডেস্ক
  • | ঢাকা , বুধবার, ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২০

image

ইরাকে অবস্থিত একটি মার্কিন ঘাঁটিতে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় মস্তিষ্কে আঘাতজনিত সমস্যায় (ট্রমাটিক ব্রেইন ইনজুরি) আক্রান্ত সৈন্যের সংখ্যা বেড়ে ১০৯ জনে দাঁড়িয়েছে বলে স্বীকার করেছে পেন্টাগন। বিবিসি।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের নির্দেশে বাগদাদে ইরানি জেনারেল কাসেম সোলেইমানি ড্রোন (চালকবিহীন বিমান) হামলায় নিহত হওয়ার পর সৃষ্ট তীব্র উত্তেজনার মধ্যে প্রতিশোধ হিসেবে গত ৮ জানুয়ারি ওই হামলা চালায় ইরান। এতে ওই ঘাটিতে থাকা মার্কিন সেনারা আঘাতপ্রাপ্ত হয়। এর আগে তাদের ৬৪ জন সেনা আহত হয়েছে বলে জানালেও এবার সংখ্যাটি উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পেল জানিয়েছে মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতর পেন্টাগন। অথচ দেশটির প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ইরানের ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় মার্কিন কোন সৈন্য আহত হয়নি বলে প্রথমে দাবি করেন।

সংবাদ মাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে জানায়, আহত সেনাদের প্রায় ৭০ শতাংশ তাদের কর্মস্থলে ফিরে গেছে বলে তাদের দেয়া বিবৃতিতে যোগ করেছে পেন্টাগন। সংখ্যায় বাড়তে থাকা আহতদের সবার মৃদু আঘাত লেগেছে। আর সে কারণেই লক্ষণ স্পষ্ট হতে সময় নিচ্ছে বলে জানুয়ারিতে এক সংবাদ সম্মেলনে জানায় পেন্টাগন।

গত সোমবার রিপাবলিকান আইনপ্রণেতা জনি আর্নস্ট এ বিষয়ে আরও জবাবদিহিতার আহ্বান জানিয়েছেন। এক টুইটার বার্তায় তিনি বলেন, ‘আমি পেন্টাগনের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি, ইরাকে মোতায়েন আমাদের বাহিনীর সুরক্ষা ও সেবা নিশ্চিত করার জন্য যারা সম্ভবত ব্লাস্ট ইনজুরিতে আক্রান্ত।’

গত মাসে সুইজারল্যান্ডের দাভোস সম্মেলনে এ ঘটনার বিষয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি মস্তিষ্কে আঘাতজনিত সমস্যাকে খাটো করে দেখিয়েছিলেন। সে সময় প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘আমি শুনেছি তাদের মাথাব্যথাসহ হালকা কিছু সমস্যা দেখা দেয়, কিন্তু আমার কাছে ওগুলোকে বড় কোন সমস্যা মনে হয়নি।’

মস্তিষ্কে আঘাতজনিত সমস্যা যাকে ‘কনক্লুসিভ ইনজুরি’ বলা হয়, তাতে মাথা ধরা, মাথা ঘোরা, আলোক সংবেদনশীলতার মতো বেশ কিছু সমস্যা দেখা দিতে পারে।