• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬, ২২ মহররম ১৪৪১

হোয়াইট হাউজে বিভক্তি

দায়ী বিদেশি শক্তি ও সংবাদ মাধ্যম!

সংবাদ :
  • সংবাদ ডেস্ক

| ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০১৯

image

জন বল্টন

মার্কিন প্রেসিডেন্টের দফতর হোয়াইট হাউজে বিভক্তির জন্য বিদেশি শক্তি এবং মূল ধারার মার্কিন সংবাদ মাধ্যমগুলোকে দায়ী করেছেন দেশটির জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বল্টন। গত মঙ্গলবার রাজধানী ওয়াশিংটনে দেশটির প্রভাবশালী সংবাদ মাধ্যম ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল আয়োজিত সিএফও নেটওয়ার্ক বৈঠকে এমন অভিযোগ করেন তিনি। তবে এসময় নিজের দাবির সপক্ষে কোন প্রমাণ দেখাননি ট্রাম্প প্রশাসনের জ্যেষ্ঠ এ কর্মকর্তা।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় ও প্রভাবশালী কোম্পানির প্রধান অর্থবিষয়ক কর্মকর্তাদের (সিএফও) সমন্বয়ে গঠিত এ নেটওয়ার্ক। প্রতিবছর ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল সিএফও নেটওয়ার্ক বৈঠকের অয়োজন করে থাকে। চলতি বছরের (২০১৯ সিএফও নেটওয়ার্ক মিটিং) মঙ্গলবার আয়োজিত বৈঠকে এ সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদক ও সম্পাদকরা বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আসা অর্থ বিশেষজ্ঞদের পাশাপাশি ট্রাম্প প্রশাসনের শীর্ষ কর্মকর্তাদের বিভিন্ন প্রশ্ন করেন। এ বৈঠকে উপস্থিত অতিথিদের মধ্যে এদিন ছিলেন ট্রাম্প প্রশাসনের শিক্ষামন্ত্রী বেটসে দেভোস, মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বল্টন এবং হোয়াইট হাউজের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিক মালভানে। এ সময় নিরাপত্তা উপদেষ্টা বল্টনের কাছে প্রশ্ন রাখা হয়, ইরান ও উত্তর কোরিয়া ইস্যুতে মার্কিন প্রশাসন কেন সাংঘর্ষিক ও পরস্পরবিরোধী বিবৃতি দিচ্ছে। জবাবে বল্টন এ ধরনের বিভক্তির জন্য বিদেশি শক্তি ও নিজ দেশের মূলধারার গণমাধ্যমকে দায়ী করেন। তিনি বলেন, আমাদের বিশ্বাস করার বাস্তবিক কারণ রয়েছে যে- ইরান, উত্তর কোরিয়া, ভেনিজুয়েলা, রাশিয়া ও চীন সিদ্ধান্ত নিয়েছে মার্কিন প্রশাসন সম্পর্কে তারা ভুল তথ্য তুলে ধরবে। তারা দেখানোর চেষ্টা করবে, ট্রাম্প প্রশাসনে বিভক্তি রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের মূল ধারার সংবাদ মাধ্যমগুলোর কর্মী সাংবাদিকদের ‘শ্রুতিলেখক’ বলে আখ্যায়িত করে বল্টন বলেন, এসব সাংবাদিক সরকারের মধ্যকার বিভক্তির কথা বাইরে ছড়াচ্ছেন। ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল, পার্স টুডে, ব্লুমবার্গ।