• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ৩০ চৈত্র ১৪২৭ ২৯ শাবান ১৪৪২

ঝড় কিয়ারার কবলে যুক্তরাজ্য বিপর্যস্ত জনজীবন

    সংবাদ :
  • সংবাদ ডেস্ক
  • | ঢাকা , মঙ্গলবার, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২০

যুক্তরাজ্য ঝড় কিয়ারার কবলে পড়েছে। এর প্রভাবে দেশটির বিভিন্ন স্থানে প্রবল বৃষ্টিপাতের কারণে বন্যা সৃষ্টি হয়েছে। দেশজুড়ে ১ লাখ ৩৭ হাজারেরও বেশি মানুষ গত রোববার রাত থেকে বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন। যাতায়াত-যোগাযোগ বিঘ্নিত হওয়ায় জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। বিবিসি।

সংবাদ মাধ্যমটি এক প্রতিবেদনে বলেছে, ঝড় কিয়ারায় বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ৯০ মাইল। এর প্রভাবে যুক্তরাজ্যের অধিকাংশ স্থানে প্রবল বৃষ্টিপাত হচ্ছে। বেশকিছু অঞ্চল প্রচণ্ড ঝড়ো হাওয়ার কবলে পড়তে পারে বলে সতর্ক করেছে আওহাওয়া দফতর। ইংল্যান্ডে এবং ওয়েলসে রোববার ঝড়ো হাওয়ার সতর্কতা জারি করা হয় বলে জানিয়েছে বিবিসি। বিভিন্ন জায়গার সঙ্গে ওয়েলসের রেল যোগাযোগও এদিন বন্ধ করে দেয়া হয়। ওয়েলস এর আগে কখনো এমন শক্তিশালী ঝড়ের কবলে পড়েনি।

এদিকে কনওয়ের একটি স্থানে ৪ ফুট উচ্চতার বন্যার পানিতে ভ্যানে আটকা পড়েছেন এক নারী। সেখানে কোমর পর্যন্ত পানি জমে আছে। ইতোমধ্যেই দেশজুড়ে ২৫০টিরও বেশি স্থানে বন্যা সতর্কতা জারি করা হয়েছে। গুরুতর বন্যা সতর্কতা জারি রয়েছে নর্থ ইয়র্কশায়ার এবং নর্দান ইংল্যান্ডে। ইংল্যান্ডে ২শ’টির বেশি স্থানে, স্কটল্যান্ডের ৬০ টি স্থান এবং ওয়েলসের ১৭টি স্থানে বন্যার আশঙ্কা করা হচ্ছে। এ ঝড়ের কারণে সড়ক, রেল, সাগরপথ এবং আকাশপথেও ভ্রমণ ব্যাহত হওয়ায় অভ্যন্তরীন ও আন্তর্জাতিক বহু ফ্লাইট বাতিল হয়েছে। কয়েকটি রেল প্রতিষ্ঠান যাত্রীদের এ সময় ভ্রমণ না করার আহ্বান জানিয়েছে। অপরদিকে আওহাওয়া দফতরের এক কর্মকর্তা বলেছেন, ‘দেশজুড়ে সতর্কতা জারি থাকার এমন ঘটনা সচরাচর দেখা যায় না। ঝড় কায়রা কতটা ব্যাপক প্রভাব ফেলতে পারে এ থেকেই তা অনুমেয়।’ গতকাল সোমবার ঝড়টি সরে যাওয়ার পরও এর দমকা বাতাসের প্রভাবে নর্দার্ন আয়ারল্যান্ড এবং স্কটল্যান্ডের বেশিরভাগ এলাকা লণ্ডভণ্ড হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।