• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

বৃহস্পতিবার, ০৯ এপ্রিল ২০২০, ২৬ চৈত্র ১৪২৬, ১৪ শাবান ১৪৪১

জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাস স্থানান্তরের নিন্দা ওআইসি’র

সংবাদ :
  • সংবাদ ডেস্ক

| ঢাকা , রোববার, ০২ জুন ২০১৯

image

গত শুক্রবার মক্কায় ওআইসি সম্মেলনে একাংশ

বিতর্কিত শহর জেরুজালেমকে কেবলমাত্র ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার যুক্তরাষ্ট্রের সিদ্ধান্তের নিন্দা জানিয়েছে ইসলামী সহযোগিতা সংস্থা ওআইসি (অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কো-অপারেশন)। একইসঙ্গে এ পবিত্র শহরে যে দেশগুলো দূতাবাস স্থানান্তর করেছে তাদেরকে ‘বয়কট’ করারও আহ্বান জানানো হয়েছে। সৌদি আরবের আহ্বানে মক্কায় গতকাল অনুষ্ঠিত ৫৭ দেশের সমন্বয়ে গঠিত এ সংস্থাটির এক সম্মেলন এ আহ্বান জানানো হয়।

একই দিন সংস্থাটির পক্ষ থেকে দেয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সৌদির নেতৃত্বে পরিচালিত এ সম্মেলনে এদিন ‘জেরুজালেমে দূতাবাস স্থানান্তর করা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও গুয়েতেমালার প্রতি নিন্দা জ্ঞাপন করা হয়েছে’। পাশাপাশি এমন সিদ্ধান্ত নেয়া দেশগুলোর বিরুদ্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে সদস্য দেশগুলোর প্রতি আহ্বানও জানানো হয়েছে। মধ্যপ্রাচ্য শান্তি পরিকল্পনার অংশ হিসেবে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প প্রস্তাবিত ‘শতাব্দির সেরা চুক্তি’র (ডিল অব দ্য সেঞ্চুরি) প্রতি সমর্থন আদায়ের লক্ষ্যে ট্রাম্প প্রশাসনের পক্ষ থেকে জেষ্ঠ্য উপদেষ্টা ও তার জামাতা জেরেড কুশনার মধ্যপ্রাচ্যের মুসলিম দেশগুলো সফর করছেন। আগামী মাসের শেষ সপ্তাহে বাহরাইনে এ চুক্তির প্রথমাংশ প্রকাশকে সামনে রেখে ওআইসি এ বিবৃতি প্রকা করলো। গত ২০১৭ সালের ৬ ডিসেম্বর জেরুজালেমকে ইসরায়েলি রাজধানীর স্বীকৃতি দেয়ার ঘোষণা দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। ঘোষণা বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে গত বছরের মে মাসে জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাস তেল আবিব থেকে জেরুজালেমে সরিয়েও নেন তিনি। এরই ধারাবাহিকতায় অস্ট্রেলিয়া ও গুয়েতমালার পক্ষ থেকেও জেরুজালেমে দূতাবাস স্থানান্তর করা হয়। গত শনিবার ওআইসির বিবৃতিতে ‘জেরুজালেমে যুক্তরাষ্ট্র ও গুয়াতেমালার দূতাবাস স্থানান্তর’র নিন্দা জানানো হয় এবং এ নগরীতে দূতাবাস স্থাপনকারী দেশগুলোর বিরুদ্ধে যথাযথ পদক্ষেপ নিতে ওআইসির সব সদস্য রাষ্ট্রকে আহ্বান জানানো হয়। বেশ কিছুদিন ধরেই ট্রাম্প প্রশাসনের পক্ষ থেকে শতাব্দীর সেরা চুক্তি আখ্যা (ডিল আব দ্য সেঞ্চরি) দিয়ে ইসরায়েল ও প্যালেস্টাইনিদের সংকট নিরসনে একটি প্রস্তাব উপস্থাপন করার তৎপরতা চালিয়ে আসছে ট্রাম্প প্রশাসন। এ চুক্তির প্রতি সমর্থন আদায়ের লক্ষ্যে ট্রাম্প প্রশাসনের পক্ষ থেকে জেষ্ঠ্য উপদেষ্টা ও ট্রাম্প জামাতা জেরেড কুশনার মধ্যপ্রাচ্যের মুসলিম দেশগুলো সফর করছেন। তবে ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে যুক্তরাষ্ট্র জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার পর থেকে প্যালেস্টাইনিরা ট্রাম্প প্রশাসনের সঙ্গে সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্ন রেখেছে।

আগামী ২৫ ও ২৬ জুন বাহরাইনের রাজধানী মানামায় যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন একটি সম্মেলনে ট্রাম্পের প্রস্তাবিত এ চুক্তির প্রথম অংশ প্রকাশের কথা রয়েছে। চুক্তিটি মানতে প্যালেস্টাইনিদের বাধ্য করার প্রচেষ্টার অভিযোগও এসেছে সংবাদ মাধ্যমে। এরই ধারাবাহিকতায় মানামা সম্মেলনে অংশ নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন প্যালেস্টাইন কর্তৃপক্ষ।