• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১৩ কার্তিক ১৪২৭, ১১ রবিউল ‍আউয়াল ১৪৪২

জাপানে তুলে নেয়া হলো জরুরি অবস্থা

    সংবাদ :
  • সংবাদ ডেস্ক
  • | ঢাকা , রোববার, ১৭ মে ২০২০

করোনার সংক্রমণ একলাফে অনেকটা কমে আসায় জাপানে বেশিরভাগ এলাকা থেকেই জরুরি অবস্থা তুলে নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবে। গত বৃহস্পতিবার দেশটির ৪৭টি প্রশাসনিক এলাকার মধ্যে ৩৯টি থেকেই জরুরি অবস্থা প্রত্যাহার করা হয়েছে। তবে রাজধানী টোকিও, ওসাকা নগরী এবং উত্তরাঞ্চলীয় হোক্কাইডো দ্বীপে জরুরি অবস্থা বহাল রয়েছে। এসব জায়গায় প্রতিদিনই মানুষ করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন ।

এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের দেয়া সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, জাপানে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১৬ হাজার ৪৯ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৬৭৮ জনের। প্রাণঘাতী এ ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে একমাস আগে ৭ এপ্রিলে টোকিওসহ ৬ টি শহর এলাকায় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী অ্যাবে। পরে পুরো জাপানজুড়েই আগামী ৩১ মে পর্যন্ত বাড়ানো হয় জরুরি অবস্থা।

সম্প্রতি জাপানে করোনাভাইরাস সংক্রমণ কমে আসারই লক্ষণ দেখা যাচ্ছে। চলতি সপ্তাহের দেশটির সরকারি হিসাবমতে, দেশজুড়ে ৭ মে থেকে ৯ দিনে হাসপাতালে কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা ২০ শতাংশ কমেছে। আর রাজধানী টোকিওয় বুধবারের হিসাবে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ১০ জনে নেমে এসেছে। এমন পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী অ্যাবে বৃহস্পতিবার করোনা সংক্রান্ত টেলিভিশন সংবাদ সম্মেলনে জরুরি অবস্থা তোলার ঘোষণা দিয়ে জনগণকে সতর্ক থেকে চলাফেরা করা, মাস্ক পরা এবং সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার নির্দেশ দেন। তিনি আরো বলেন, ‘সম্ভব হলে ৩১ মে’র আগেই আমরা অন্য জায়গাগুলো থেকেও জরুরি অবস্থা তুলে নিতে চাই।’

জরুরি অবস্থা জারি থাকলে জাপানের স্থানীয় কর্তৃপক্ষ লোকজনকে বাড়িতে অবস্থান করার, স্কুল ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার আদেশ দেওয়ার অতিরিক্ত ক্ষমতা পায়। তবে আদেশ না মানলে জরিমানা করার সুযোগ তাদের নেই।