• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

মঙ্গলবার, ০৭ জুলাই ২০২০, ২৩ আষাঢ় ১৪২৭, ১৫ জিলকদ ১৪৪১

চীনকে মোকাবিলায় ভারত এ বছরই রুশ মিসাইল সিস্টেম পাচ্ছে

    সংবাদ :
  • সংবাদ ডেস্ক
  • | ঢাকা , মঙ্গলবার, ৩০ জুন ২০২০

image

এস ৪০০ মিসাইল সিস্টেম ভারতের হাতে আসার কথা ছিল ২০২১ সালের ডিসেম্বরে। তবে সাম্প্রতিক সীমান্ত পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে ভারত রাশিয়াকে অনুরোধ করেছিল এই মিসাইল সিস্টেম যেন আগেই হাতে পাওয়া যায়। সেই অনুরোধে সাড়া দিয়ে এ বছরই অত্যাধুনিক এস ৪০০ মিসাইল সিস্টেম ভারতের হাতে তুলে দিচ্ছে মস্কো। মস্কো টাইমস।

রুশ সংবাদমাধ্যমের বরাতে প্রকাশিত শনিবারের প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, ভারত সর্বাধিক সামরিক অস্ত্র আমদানি করে রাশিয়া থেকে। রাশিয়া থেকে বিশ্বের উন্নততর এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম এস ৪০০ কেনার ব্যাপারে ২০১৮ সালে চুক্তিতে সম্মত হয় দিল্লি-মস্কো।

এ বছর ফেব্রুয়ারিতে ‘ফেডারেল সার্ভিস অব মিলিটারি টেকনিক্যাল করপোরেশন অব রাশিয়া’র ডেপুটি ডিরেক্টর ভ্লাদিমির দ্রঝভ জানিয়েছিলেন, ২০২১ সালের মধ্যেই এস ৪০০ সিস্টেমের প্রথম চালান হাতে পাবে ভারত। তবে চীনের সঙ্গে সংঘাতময় পরিস্থিতির প্রেক্ষাপটে ভারতের অনুরোধে এ বছরের মধ্যেই ওই মিসাইল সিস্টেম পাঠানোর ব্যাপারে সম্মত হয়েছে রাশিয়া। প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞগণ মনে করেন, বিশ্বের সবচেয়ে আধুনিক ও শক্তিশালী এয়ার ডিফেন্স মিসাইল সিস্টেম এস ৪০০। এর একেকটি ইউনিটে থাকে ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপণযোগ্য মিসাইল, ব্যাটল ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম, দূরপাল্লার সার্ভিল্যান্স রাডার, অ্যাকুইজিশন অ্যান্ড এনগেজমেন্ট রাডার, কমান্ড ভেহিকল এবং ট্রান্সপোর্টার-ইরেক্টর-লঞ্চার ভেহিকল বা টেল ভেহিকল।

এবার এক লহমায় গুঁড়িয়ে দেবে চীনের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাকে! রাশিয়া থেকে ভারত কিনছে অত্যাধুনিক ও বিশেষ এস ৪০০ মিসাইল সিস্টেম, যা এবার দেশটির সুরক্ষায় থাকবে বলেও ভারতীয় গণমাধ্যম দ্য ইকোনমিক টাইমসের তথ্যে পাওয়া গেছে। এ প্রসঙ্গে কড়া হুঁশিয়ারি তো আগে দিয়েছেই ভারত, এবার চীনকে বাগে আনতে রাশিয়া থেকে বিধ্বংসী এস ৪০০ মিসাইল সিস্টেম কিনে ভারত অধিকতর সুরক্ষার ব্যবস্থা পোক্ত করছে অ্যান্টি-এয়ারক্রাফ্ট ওপেন সিস্টেম তথা সারফেস-টু-এয়ার মিসাইল সিস্টেমের মাধ্যমে। চীনের সঙ্গে সীমান্তে সংঘাত চরমে পৌঁছতেই প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং এ মিসাইল কেনার জন্য রাশিয়ার সঙ্গে কথা বলেছিলেন। প্রথমে অবশ্য রাশিয়া রাজি ছিল না।

এস ৪০০ মিসাইল সিস্টেম ভূমি থেকে আকাশে যে কোন টার্গেটে গিয়ে আঘাত করবে।

মুহূর্তের মধ্যেই গুঁড়িয়ে দেবে শত্রুপক্ষের কমব্যাট ফাইটার এয়ারক্রাফ্ট। একেবারে তিনশ’র বেশি ক্ষেপণাস্ত্র নিয়ে যেতে পারবে এই সিস্টেম। শত্রুপক্ষকে ঘায়েল করতে পারবে মিসাইল ছুড়ে।

১৯৯০ সালে রাশিয়া প্রথম এই মিসাইল সিস্টেম আবিষ্কার করে। প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিশ্বের সবচেয়ে আধুনিক ও শক্তিশালী এয়ার ডিফেন্স মিসাইল সিস্টেম হল এস ৪০০ ট্রায়াম্ফ। এ সিস্টেমের রাডার অন্ততপক্ষে ৬০০ কিলোমিটার পর্যন্ত টার্গেট দেখতে পায়। লাদাখে গালওয়ান উপত্যকায় ভারতীয় সৈন্যদের ওপর চীনের বর্বরোচিত আক্রমণের বদলা নিতেই তাদের স্কোয়াড আরও পাকাপোক্ত করে ঘাঁটি সাজাচ্ছে ভারত। দুর্বোধ্য ও শক্তিশালী করছে নিজেদের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাকে। শুধু কড়া হুঁশিয়ারিই নয়, প্রয়োজনে যে চীনকে কুপোকাত করতে প্রস্তুত ভারত, তা হুঁশিয়ারি দিয়ে বুঝিয়ে দিচ্ছে আগেভাগেই।