• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ৩০ চৈত্র ১৪২৭ ২৯ শাবান ১৪৪২

ইদলিবে যে কোন সময় সামরিক অভিযান এরদোগান

    সংবাদ :
  • সংবাদ ডেস্ক
  • | ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২০

image

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান বলেছেন, বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত ইদলিব প্রদেশে সরকারি বাহিনীর অভিযান ঠেকাতে সামরিক অভিযান শুরু করা সময়ের ব্যাপার মাত্র। বিবিসি।

সংবাদ মাধ্যমটি এ তথ্য জানিয়ে এক প্রতিবেদনে বলেছে, ২০১১ সাল থেকে সিরীয় প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদকে উৎখাতে শুরু হওয়া গৃহযুদ্ধে ইদলিব হলো বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রিত সর্বশেষ ঘাঁটি। সিরিয়ার সেনাবাহিনী ও দেশটির মিত্র রাশিয়া ২০১৮ সালের অস্ত্রবিরতি সীমানায় অগ্রসর না হতে অস্বীকৃতি জানিয়ে ইদলিবমুখী অভিযান শুরু করেছে। ১ ডিসেম্বর শুরু হওয়া এ অভিযানে ৯ লাখ বেসামরিক নাগরিক ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়েছেন। এদের বেশিরভাগই শিশু।

বাশারবিরোধী বিদ্রোহীদের সমর্থন দেয়া তুরস্ক আশঙ্কা করছে নতুন করে দেশটিতে শরণার্থী ঢল নামতে পারে। তাই তারা ইদলিবে সেনা ও সামরিক উপস্থিতি বাড়িয়েছে। তবে এতে করে রুশ বাহিনীর সহায়তায় সিরীয় বাহিনী ইদলিবের দিকে অগ্রসর হওয়া ঠেকাতে পারেনি আঙ্কারা। চলতি মাসের শুরুতে বেশ কয়েকজন তুর্কি সেনাকর্মী নিহত হওয়ার ঘটনায় সিরীয় বাহিনীকে দায়ী করে আসছে তুরস্ক। ফলশ্রুতিতে এরদোগান সিরীয় বাহিনীকে অগ্রসর না হতে হুঁশিয়ারি জানিয়েছেন। তা না করলে সিরীয় বাহিনীকে সামরিক পদক্ষেপের মুখোমুখি হতে বলেও সতর্ক করেন তিনি।

গত বুধবার তুরস্কের ক্ষমতাসীন একে পার্টি (জাস্টিস অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট পার্টি) আইনপ্রণেতাদের উদ্দেশে দেয়া এক ভাষণে এরদোগান বলেন, সিরীয় শাসকদের ইদলিবে প্রবেশ ঠেকানোর শেষ মুহূর্তের দিকে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি- এই বলে তিনি চূড়ান্ত সতর্কতা জানান। রাশিয়ার সঙ্গে আলোচনায় প্রত্যাশিত ফল আমার পাইনি বলেও এরদোগান অভিযোগ করেন। অতঃপর তিনি বলেন আলোচনা চলবে কিন্তু সত্য হলো টেবিলে আমাদের দাবি আদায় হওয়া থেকে অনেক দূরে আছি আমরা। তুর্কি প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, তুরস্ক নিজেদের অভিযান পরিচালনার সব প্রস্তুতি নিয়েছে। আমরা যে কোন মুহূর্তে সামরিক অভিযান শুরু করতে পারি। অন্যভাবে বললে, ইদলিবে অভিযান এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র। এরদোগান সতর্ক করে বলেছেন, সীমান্ত অঞ্চলকে যে কোনও মূল্যে নিরাপদ রাখা হবে।