• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ৩০ চৈত্র ১৪২৭ ২৯ শাবান ১৪৪২

করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কার

ইঁদুরের ওপর পরীক্ষা শুরু

    সংবাদ :
  • সংবাদ ডেস্ক
  • | ঢাকা , মঙ্গলবার, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২০

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস মোকাবিলায় প্রতিষেধক আবিষ্কারে প্রাণপণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। শেষ পর্যন্ত দ্রুত সময়ের মধ্যে প্রতিষেধক আবিষ্কার করল আক্রান্ত দেশ চীন। কয়েক সপ্তাহ গবেষণা চালিয়ে এ প্রতিষেধক আবিষ্কার করেছে দেশটির বিজ্ঞানীরা। তবে এটি এখনি মানুষের শরীরে প্রয়োগের উপযোগী নয়। তাই এর কার্যকারিতা ও ভুলত্রুটি খতিয়ে দেখতে ইঁদুরের ওপর গবেষণা চালানো শুরু করেছেন দেশটির চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা। গতকাল রোববার থেকে এই কার্যক্রম শুরু করেছে চীন। রয়টার্স।

সংবাদ মাধ্যমটি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, কোন রোগের নতুন প্রতিষেধক তৈরি হলে মানুষের ক্ষেত্রে ব্যবহারের পূর্বে প্রথম ধাপ হিসেবে প্রাণীর ওপর পরীক্ষা করা হয়। চীনের সাংহাইয়ের তোংজি বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা স্বাস্থ্যবান ইঁদুরের ওপর করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন পরীক্ষা করছেন। তোংজি ইউনির্ভাসিটি স্কুল অব মেডিসিনের অন্তর্গত সাংহাই ইস্ট হাসপাতালের প্রেসিডেন্ট লিউ ঝোংমিন জানিয়েছেন, ইঁদুরের ওপর ভ্যাকসিন পরীক্ষা হলো প্রথম ধাপ। এটি সফল হলে এর চেয়ে বড় প্রাণী যেমন বানরের ওপর পরীক্ষা চালানো হবে। যদি সেটি সফল হয় তবেই এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা সম্ভব হবে।

প্রেসিডেন্ট লিউ জানান, প্রাথমিক ধাপে পরীক্ষা করতে অন্তত ১০০টি ইঁদুরের প্রয়োজন হবে। গতকাল রোববার থেকেই এই পরীক্ষা শুরু হয়েছে। এই ভ্যাকসিনের ডিজাইন ও গবেষণায় কাজ করেছে, চীনের সিডিসি, তোংজি বিশ্ববিদ্যালয় এবং সাংহাইয়ের একটি ভ্যাকসিন তৈরির কোম্পানি। জানুয়ারির শেষ দিকে চীনের সিডিসি এন্টিজেন পাওয়ার পর মাত্র দুই সপ্তাহে এ ভ্যাকসিন তৈরি করেছেন লিউ ও তার দল।

সাংহাইয়ের ওষুধ কোম্পানি স্টেমিরনা থেরাপিউটিকস এলএলসি এর সিইও ডা. লি হ্যাঙওয়েন বলেন, ‘তিনটি ধাপে পরীক্ষার পর ভ্যাকসিনের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া যাবে। এক্ষেত্রে কয়েক মাস থেকে শুরু করে কয়েক বছর পর্যন্ত সময় লেগে যেতে পারে।’ সাধারণ মানুষের চাওয়া খুব দ্রুত কোন কার্যকর প্রতিষেধক তৈরি করে করোনাভাইরাসকে চির বিদায় জানানো হোক। অপরদিকে বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, কোন ওষুধ তৈরি হলে তা কঠোর পরীক্ষা চালানোর পরই চূড়ান্ত ব্যবহার করতে হবে।