• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

বুধবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২১, ১৩ মাঘ ১৪২৭, ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

আফগান সেনার গুলিতে ২ মার্কিন সেনা নিহত আহত ৬

    সংবাদ :
  • সংবাদ ডেস্ক
  • | ঢাকা , সোমবার, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২০

আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলে দেশটির সেনাবাহিনীর পোশাক পরা এক ব্যক্তির মেশিনগানের গুলিতে দুই মার্কিন সেনা নিহত হয়েছে। এছাড়াও আরও ছয়জন আহত হয়েছেনস বলে জানিয়েছে মার্কিন সেনাবাহিনী। গত শনিবার নানগারহার প্রদেশে যুক্তরাষ্ট্র ও আফগানিস্তানের বাহিনীর ‘গুরুত্বপূর্ণ নেতৃত্বের যৌথ প্রশিক্ষণ’ শেষে গুলিতে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। রয়টার্স।

শনিবারের গোলাগুলির ঘটনাটি এমন সময়ে ঘটল, যখন নিরাপত্তা নিশ্চয়তার বিনিময়ে আফগানিস্তান থেকে বিদেশি বাহিনী প্রত্যাহার নিয়ে মার্কিন কূটনীতিকদের সঙ্গে তালেবানের কয়েক মাস ধরে আলোচনা চলছে। তবে দেড় যুগেরও বেশি সময় ধরে চলা যুদ্ধ বন্ধে দুই পক্ষের মধ্যে আলোচনা চললেও দেশটিতে সহিংসতা কমার কোন লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। এদিকে দেশটিতে মোতায়েন মার্কিন সামরিক বাহিনীর এক মুখপাত্রের বরাতে এক প্রতিবেদনে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, মার্কিন সামরিক বাহিনীর মুখপাত্র কর্নেল সনি লেগেট এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘আমরা এখনও তথ্য সংগ্রহ করছি। হামলার কারণ ও উদ্দেশ্য এখনও অজানা।’ নানগারহার প্রদেশের ঊর্ধ্বতন নিরাপত্তা কর্মকর্তা মুবারিজ খাদেম এর আগে যুক্তরাষ্ট্র ও আফগান সৈন্যদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে ও হতাহতের আশঙ্কা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছিলেন।

দেশটিতে আফগান নিরাপত্তা বাহিনীর ভিতরে থাকা ছদ্মবেশী হামলাকারীদের আক্রমণ নিয়মিত ঘটনা হলেও সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এ ধরনের হামলা কমে আসে। আফগানিস্তানের প্রতিরক্ষা বিভাগের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা বলেছেন, ঘটনাটি আফগান ও বিদেশি সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষের কারণে ঘটেছে, না কি জঙ্গি হামলা তা পরিষ্কার নয়।

প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানের সঙ্গে দীর্ঘ সীমান্ত থাকা নানগারহার দীর্ঘদিন ধরেই এ অঞ্চলে ইসলামপন্থি জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসের (ইসলামিক স্টেট) প্রধান ঘাঁটি হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। এখান থেকেই তারা রাজধানী কাবুলসহ আফগানিস্তানের বিভিন্ন এলাকায় বোমা হামলার পরিকল্পনা করে। প্রদেশটির কিছু অংশ এখনও দেশটির সশস্ত্র বিদ্রোহী গোষ্ঠী তালেবানের নিয়ন্ত্রণে। আফগান বাহিনীকে পরামর্শ, সহযোগিতা ও প্রশিক্ষণ এবং সন্ত্রাসবিরোধী অভিযানের উদ্দেশ্যে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন ন্যাটো মিশনের অংশ হিসেবে আফগানিস্তানে এখন ১৩ হাজারের মতো মার্কিন সেনা আছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।