• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

শনিবার, ০৮ আগস্ট ২০২০, ১৭ জিলহজ ১৪৪১, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭

মাদুরোকে হটাতে

ভেনিজুয়েলায় মার্কিন সামরিক হস্তক্ষেপ চেয়েছেন গুইদো

সংবাদ :
  • সংবাদ ডেস্ক

| ঢাকা , সোমবার, ১৩ মে ২০১৯

image

হুয়ান গুইদো

ভেনিজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোকে পদত্যাগ করতে বাধ্য করতে মার্কিন সামরিক বাহিনীর সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করেছেন দেশটির বিরোধীদলীয় নেতা ও স্বঘোষিত প্রেসিডেন্ট হুয়ান গুইদো। ইতোমধ্যেই নিজের রাজনৈতিক দূতকে মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতর পেন্টাগনের সঙ্গে সম্পর্ক শুরুর নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি। গুইদোর দূত কার্লোস ভেসিওকে রাষ্ট্রদূতের স্বীকৃতি দেয় ওয়াশিংটন। গত শনিবার গুইদো বলেন ভেসিওকে তিনি ভেনিজুয়েলায় সম্ভাব্য সামরিক হস্তক্ষেপের বিষয়টি সমন্বয় করতে সরাসরি যোগাযোগ শুরুর নির্দেশ দিয়েছেন। গার্ডিয়ান।

এক প্রতিবেদনে বলা হয়, গুইদোর এ মন্তব্য ভেনিজুয়েলার ক্রমবর্ধমান সংকটে মার্কিন সম্পৃক্ততার বিষয়ে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে জোরালো প্রকাশ্য বক্তব্য। নির্বাচনি কারচুপির অভিযোগ আর অর্থনৈতিক সংকটের বিরুদ্ধে চলতি বছরের শুরুতে ভেনিজুয়েলায় বিক্ষোভ শুরু হয়। বিক্ষোভের সুযোগে গত ২৩ জানুয়ারি নিজেকে অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেন গুইদো। যুক্তরাষ্ট্রসহ কমপক্ষে ৫০টি দেশ তাকে স্বীকৃতি দেয়। চলতি মাসের শুরুতে এক ভিডিও বার্তায় মাদুরো সরকারের বিরুদ্ধে আকস্মিকভাবে অভ্যুত্থানের ঘোষণা দেন গুইদো। একদিন পরেই ওই অভ্যুত্থান প্রচেষ্টা নস্যাতের দাবি করেন প্রেসিডেন্ট মাদুরো। এরপরেই মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও ভেনিজুয়েলায় সামরিক হস্তক্ষেপের ইঙ্গিত দেন। অবশ্য ফেব্রুয়ারিতে ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে গুইদো জানিয়েছিলেন ভেনিজুয়েলায় যুক্তরাষ্ট্র সামরিক হস্তক্ষেপ করতে চাইলে তা অনুমোদন করবেন তিনি। ভেনিজুয়েলায় সামরিক হস্তক্ষেপ নিয়ে ট্রাম্প প্রশাসনের সঙ্গে উত্তেজনার মধ্যেই গত শনিবার মাদুরো সরকারের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ওয়াশিংটনের বিরুদ্ধে জলসীমা লঙ্ঘনের অভিযোগ আনেন।

ভ্লাদিমির পাদ্রিনো দাবি করেন মার্কিন কোস্টগার্ডের একটি জাহাজ ভেনিজুয়েলার জলসীমায় অবৈধভাবে প্রবেশ করেছে। জলসীমায় প্রবেশের কোন প্রমাণ সরবরাহ না করে তিনি দাবি করেন ভেনিজুয়েলার যুদ্ধজাহাজ মার্কিন জাহাজটিকে জলসীমা ত্যাগে বাধ্য করে। যুক্তরাষ্ট্রের এ পদক্ষেপের নিন্দা জানান তিনি। পাদ্রিনো বলেন, ‘অন্য কোন প্রজাতন্ত্র নিজেদের এলাকায় এ ধরনের কোনও কর্মকা- সহ্য করবে কিনা জানি না, তবে আমরা করব না।’ যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণাঞ্চলীয় কমান্ডের মুখপাত্র কর্নেল আমান্দা আজুবুইক বলেন, ক্যারিবিয়ান সমুদ্রের আন্তর্জাতিক জলসীমায় মাদক প্রতিরোধক একটি অভিযান চালাচ্ছিল কোস্টগার্ডের জাহাজটি। তবে ভেনিজুয়েলার জলসীমায় প্রবেশের বিষয়ে আর কোন মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানান তিনি।