• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০১৯, ৭ চৈত্র ১৪২৫, ১৩ রজব ১৪৪০

পুরান ঢাকায়

৪৫ টন মেয়াদোত্তীর্ণ কেমিক্যাল জব্দ

১৪ বছর আগেই বিক্রির মেয়াদ শেষ

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

| ঢাকা , শনিবার, ১৬ মার্চ ২০১৯

পুরান ঢাকার আরমানিটোলায় মালা কেমিক্যাল নামে একটি প্রতিষ্ঠান থেকে প্রায় ৪৫ টন মেয়াদোত্তীর্ণ কেমিক্যাল জব্দ করেছে র‌্যাব। পরে মেয়াদোত্তীর্ণ রাসায়নিক পদার্থ বিক্রি ও সংরক্ষণ করায় প্রতিষ্ঠানটিকে ৫০ লাখ টাকা জরিমানা করেন র‌্যাব-১০ এর ভ্রাম্যমাণ আদালত। র‌্যাব জানায়, জব্দ কেমিক্যালের অধিকাংশেরই মেয়াদ ২০০৫ সাল থেকে ২০১৪ সালের মধ্যে। কেমিক্যালের মেয়াদ শেষ হলেও বিনষ্ট না করে মজুত রেখে বিক্রি করা হচ্ছিল। এই মেয়াদোত্তীর্ণ কেমিক্যাল ব্যবহার করা হচ্ছিল ওষুধ, প্রসাধন শিল্পে ও খাদ্যপণ্যে। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে গতকাল ভোর ৫টা পর্যন্ত র‌্যাব সদর দফতরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলমের নেতৃত্বে এ অভিযান চালানো হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম জানান, পুরান ঢাকার আরমানিটোলা এলাকায় পরিচালিত প্রায় ১৪ ঘণ্টার নিরবচ্ছিন্ন অভিযান শেষ হয় ভোররাতে। তিনি জানান, অভিযানে গিয়ে বুঝলাম, প্রথমত বাংলাদেশে যত রাসায়নিক পদার্থ আমদানি করা হয়, তার বেশিরভাগই উৎপাদন ও মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখ বিহীন। এমনকি কোন কোম্পানি তৈরি করেছে, কোন দেশে তৈরি হয়েছে, তার নাম পর্যন্ত নেই। দ্বিতীয়ত মেয়াদোত্তীর্ণ হলেও কোন রাসায়নিক পদার্থ বিনষ্ট করা হয়নি। বরং খাবারে বা ওষুধে বা প্রসাধন শিল্পে বা অন্য যে কোন পণ্য তৈরি করতে ব্যবহার করার লক্ষ্যে মজুত রাখা হয়েছিল। বিক্রিও করে আসছিল প্রতিষ্ঠানটি। প্রশ্ন হলো- এসব পণ্য দেশে ঢুকল কিভাবে বা ব্যাবহার করছে কিভাবে। এসব প্রশ্নের উত্তর নিশ্চয় সংশ্লিষ্ট দফতরগুলোই দিতে পারবে। তবে বেশ কয়েকজন সৎ ব্যবসায়ী এ প্রবণতা বন্ধের উপায় বাতলে দিয়েছেন। ধন্যবাদ তাদের।

তিনি আরও জানান, অভিযানে দেখা গেছে, ১৪ বছর আগে মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে এমন কেমিক্যালও মজুত রাখা হয়েছে। কিসের স্বার্থে! বিক্রি করে মুনাফা অর্জন? কিন্তু এটা করতে গিয়ে খাদ্যপণ্যে ও প্রসাধনী শিল্পে ব্যবহার হয়ে আসছে মেয়াদোত্তীর্ণ রাসায়নিক। এসব কারণে মালা কেমিক্যালকে ৫০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জব্দ ৪৫ টন মেয়াদোত্তীর্ণ রাসায়নিক পদার্থ ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) স্যানিটারি ল্যান্ডফিল্ড ডেমরায় ধ্বংস করা হয়েছে।