• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ১৩ সফর ১৪৪২, ১৬ আশ্বিন ১৪২৭

মানবতাবিরোধী অপরাধ

সৈয়দ কায়সারের মৃত্যুদণ্ড বহাল

    সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
  • | ঢাকা , বুধবার, ১৫ জানুয়ারী ২০২০

মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে সংঘটিত হত্যা, গণহত্যা ও ধর্ষণসহ মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে যুদ্ধাপরাধী সৈয়দ মো. কায়সারকে মৃত্যুদ-ের আদেশ বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ। কায়সারের আপিল আংশিক মঞ্জুর করা হলেও দুটি অভিযোগে সংখ্যাগরিষ্ঠের মতের ভিত্তিতে এবং একটি অভিযোগে সর্বসম্মত সিদ্ধান্তে সর্বোচ্চ সাজা বহাল থাকে। এই রায়ের ফলে জাতীয় পার্টির সাবেক প্রতিমন্ত্রী কায়সারকে ফাঁসির কাষ্ঠে যেতে হবে। তবে রিভিউ ও রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণ ভিক্ষা চাইতে পারবেন তিনি।

গতকাল প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার বিচারকের আপিল বেঞ্চ এই রায় ঘোষণা করেন। এই বেঞ্চের অন্য তিন সদস্য হলেন- বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী, বিচারপতি জিনাত আরা এবং বিচারপতি মো. নুরুজ্জামান।

কায়সারের আইনজীবী এসএম শাহজাহান সাংবাদিকদের বলেন, রায়ের অনুলিপি পেলে ভালো মতো দেখে রায় পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) আবেদন করা হবে।

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, এই রায়ে আমাদের দেশে ধর্ষণে সহযোগিতা করার দায়ে প্রথম কোন আসামিকে মৃত্যুদ- দেয়া হল। ওই অভিযোগের যে ভিকটিম, সে নিজে কোর্টে এসে সাক্ষ্য দিয়েছে এবং তার মেয়েও আদালতে সাক্ষ্য দিয়ে বলেছে দুর্দশার কথা। এই ১২ নম্বর অভিযোগটিতে চার বিচারপতিই একমত হয়ে মৃত্যুদ- বহাল রেখেছেন। আর ৫ ও ১৬ নম্বর অভিযোগে সংখ্যাগরিষ্ঠতার ভিত্তিতে মৃত্যুদ- দিয়েছেন।

২০১৩ সালের ১৫ মে ট্রাইব্যুনাল কায়সারের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করলে সেই রাতেই গ্রেফতার করা হয় মুসলিম লীগের এই সাবেক নেতাকে। বয়স ও স্বাস্থ্যগত পরিস্থিতি বিবেচনায় ট্রাইব্যুনালে তাকে শর্তসাপেক্ষে জামিন দেয়। যুদ্ধাপরাধের ১৬টি ঘটনায় অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে পরের বছর ২ ফেব্রুয়ারি সৈয়দ কায়সারের বিচার শুরু করে ট্রাইব্যুনাল। সেই বিচার শেষে ২০১৪ সলের ২৩ ডিসেম্বর তার মৃত্যুদ-ের রায় আসে। সেই রায়ের পর একাত্তরের এই যুদ্ধাপরাধীকে কারাগারে পাঠানো হয়।

পূর্ণাঙ্গ অনুলিপি প্রকাশের ১৫ দিনের মধ্যে রায় পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) আবেদন করতে পারবে আসামিপক্ষ। তবে রিভিউ যে আপিলের সমকক্ষ হবে না, তা যুদ্ধাপরাধে মৃত্যুদ-প্রাপ্ত জামায়াত নেতা আবদুল কাদের মোল্লার ‘রিভিউ’ খারিজের পূর্ণাঙ্গ রায়েই স্পষ্ট করা হয়েছে। রিভিউ আবেদনের নিষ্পত্তি হয়ে গেলে এবং তাতে মৃত্যুদ- বহাল থাকলে আসামিকে তা আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়ে সংবিধান অনুযায়ী রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার সুযোগ দেয়া হবে। তিনি স্বজনদের সঙ্গে দেখাও করতে পারবেন। রাষ্ট্রপতির ক্ষমার বিষয়টি ফয়সালা হয়ে গেলে সরকার কারা কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে সেই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করবে।

ট্রাইব্যুনালের পর্যবেক্ষণ

২০১৪ সলের ২৩ ডিসেম্বর সৈয়দ কায়সারের মামলার রায় ঘোষণা করে। রায়ের পর্যবেক্ষণে বলা হয়, সমাজ ও জাতিকে আরো মনে রাখতে হবে যে, বীরাঙ্গনা ও যুদ্ধশিশুরা যুদ্ধে সরাসরি ক্ষতিগ্রস্ত, মুক্তিযোদ্ধারা পরোক্ষভাবে ক্ষতিগ্রস্ত। সমাজ ও জাতির কোন স্বীকৃতি ছাড়াই এখনও সেই আত্মত্যাগের জন্য মানসিক ক্ষত বয়ে চলেছেন বেঁচে থাকা বীরাঙ্গনা ও যুদ্ধশিশুরা। ধর্ষণের শিকার এসব নারীদেরও মুক্তিযোদ্ধার সম্মান দেয়া উচিৎ, তাদের অব্যক্ত বেদনাকে আর অবহেলা করা যায় না। সরকারের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়, সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়, বিভিন্ন বেসরকারি ও সামাজিক সংগঠন বীরাঙ্গনা ও যুদ্ধশিশুদের সম্মান দেখাতে তাদের দুর্দশা কমানোর জন্য দ্রুত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবে বলে আদালত আশা করে। শুধু ধর্ষণের শিকার নারীদের ক্ষত দূর করার জন্য নয়, বরং আমাদের সমাজ ও জাতির ক্ষত সারিয়ে তোলার জন্যও এটি করা প্রয়োজন। তাই, তাদের মানসিক-সামাজিক নিরাপত্তা বিধানের জন্য বিস্তুত ও সুশৃঙ্খল মনোযোগ ও ব্যবস্থার ওপর জোর দিচ্ছি আমরা।

কে এই কায়সার

হবিগঞ্জের মাধবপুরের ইটাখোলা গ্রামের সৈয়দ সঈদউদ্দিন ও বেগম হামিদা বানুর ছেলে সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সার ওরফে মো. কায়সার ওরফে সৈয়দ কায়সার ওরফে এসএম কায়সারের জন্ম ১৯৪০ সালের ১৯ জুন। তার বাবা সৈয়দ সঈদউদ্দিন ১৯৬২ সালে সিলেট-৭ আসন থেকে কনভেনশন মুসলিম লীগের এমএলএ নির্বাচিত হন। ওই বছরই মুসলিম লীগের রাজনীতিতে যুক্ত হন তার ছেলে কায়সার। ১৯৬৬ থেকে ১৯৭১ পর্যন্ত কায়সার মুসলিম লীগ সিলেট জেলা কমিটির সদস্য ছিলেন। ১৯৭০ সালে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে তিনি পরাজিত হন। ১৯৭৮ সালে আবারও রাজনীতিতে সক্রিয় হন কায়সার। ১৯৭৯ সালে দ্বিতীয় জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-১৭ আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ভোটে দাঁড়িয়ে সাংসদ নির্বাচিত হন। পরে তিনি বিএনপিতে যোগ দেন এবং হবিগঞ্জ বিএনপির সভাপতি হন। ১৯৮২ সালে তিনি বিএনপির শাহ আজিজুর রহমান অংশের যুগ্ম মহাসচিবও হন। সামরিক শাসক হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের সময়ে কায়সার জাতীয় পার্টিতে যোগ দেন এবং হবিগঞ্জ শাখার সভাপতির দায়িত্ব পান। ১৯৮৬ ও ১৯৮৮ সালে হবিগঞ্জ-৪ আসন থেকে লাঙ্গল প্রতীকে নির্বাচন করে আবারও দুই দফা তিনি সংসদ সদস্য হন। ওই সময় তাকে কৃষি প্রতিমন্ত্রীরও দায়িত্ব দেন এরশাদ। এরপর ১৯৯১, ১৯৯৬ ও ২০০১ সালে জাতীয় পার্টি থেকে নির্বাচন করে পরাজিত হন কায়সার। এক পর্যায়ে এরশাদের দল ছেড়ে তিনি যোগ দেন পিডিপিতে।

  • গভীর খাদে পুঁজিবাজার

    নেমে গেছে ভিত্তি পয়েন্টের নিচে ম কোথায় গিয়ে থামবে জানা নেই কারও, বিনিয়োগকারীদের বিক্ষোভ

    newsimage

    ভিত্তি পয়েন্ট ৪০৫৫- এর নিচে নেমে গেছে দেশের বড় পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সূচক। গতকাল বড় পতনের মধ্য দিয়ে বাজারের

  • ক্ষণগণনা : আর ৬১ দিন

    ‘মুজিববর্ষ’ উদযাপনে নানা আয়োজনের মধ্যে খেলাধুলায় প্রথম প্রতিযোগিতার যাত্রা শুরু হচ্ছে আজ। মুজিববর্ষে ক্রীড়ায় প্রায় ১০০টি

  • মুদ্রণ ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটের লাগাম টানতে

    মাধ্যমিক ও অন্য স্তরে পাঠ্যবই মুদ্রণে ‘ই-জিপি’ টেন্ডার

    যে কোন মূল্যে সিদ্ধান্ত কার্যকরের নির্দেশ শিক্ষা সচিবের

    অসাধু মুদ্রাকরদের (প্রিন্টার্স) সিন্ডিকেটের লাগাম টানতে এবার মাধ্যমিক ও অন্যান্য শিক্ষা স্তরের পাঠ্যবই ছাপতে ‘ই-জিপি’ (ই-গভর্নমেন্ট

  • স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা দুর্নীতি সহায়ক

    টিআইবি

    স্বাস্থ্যসেবা সম্পর্কে গবেষণা, জরিপ ও অন্য কোন তথ্য ও সংবাদ সংগ্রহের জন্য কর্তৃপক্ষের অনুমতি গ্রহণ, বিনা অনুমতিতে স্থিরচিত্র বা ভিডিওচিত্র

  • ঢাকা সিটি নির্বাচন

    ভোট ৩০ জানুয়ারি

    আগামী ৩০ জানুয়ারিই অনুষ্ঠিত হবে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের নির্বাচন। এ সংক্রান্ত করা রিট আবেদনটি খারিজ করে দিয়ে

  • ঢাকা সিটি নির্বাচন

    বিএনপির নজর মেয়র পদে আ’লীগ কাউন্সিলর প্রার্থীরা ব্যস্ত বিদ্রোহী ঠেকাতে

    ঢাকার দুই (উত্তর ও দক্ষিণ) সিটি নির্বাচনে প্রচারণা জমে উঠেছে। মেয়র পদে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির চার প্রার্থী সমানতালে ভোটের মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। দুই দলের সমর্থিত কাউন্সিলররাও দিন-রাত

  • পূর্ণাঙ্গ সফরে পাকিস্তান যাচ্ছেন টাইগাররা

    খেলবেন ২টি টেস্ট, ১টি ওডিআই ও ৩টি টি-২০

    অনেক নাটকীয়তার অবসান ঘটিয়ে শেষ পর্যন্ত পাকিস্তান সফরে যাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। পাকিস্তানের সঙ্গে পূর্ণাঙ্গ সিরিজই খেলবে

  • পদ্মা সেতুতে বসল ২১তম স্প্যান

    এ মাসেই আরও ২টি বসানো হবে

    পদ্মা সেতুতে বসানো হয়েছে ২১ তম স্প্যান (ইস্পাতের কাঠামো)। গতকাল সেতুর ৩২ ও ৩৩ নম্বর পিয়ারে এই স্প্যানটি বসানো হয়। এর মাধ্যমের

  • প্রশ্নফাঁস-জালিয়াতি

    ঢাবির ৬৭ শিক্ষার্থী স্থায়ী বহিষ্কার

    ১২১ শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা

    ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস ও জালিয়াতির সঙ্গে জড়িত থাকা, অস্ত্র ও মাদকের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা, ছিনতাইসহ বিভিন্ন অভিযোগের প্রমাণ পাওয়ায়

  • মন্ত্রীর এপিএস আরিফুরের বিরুদ্ধে লুটপাটের অভিযোগ

    সাঈদ খোকনের এপিএস কুদ্দুসকে দুদকে তলব

    দুর্নীতি ও অনিয়মের মাধ্যমে শতকোটি টাকারও বেশি লুটপাটের অভিযোগে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এপিএস আরিফুর রহমান শেখকে তলব করেছে দুর্নীতি

  • খালেদার বিদেশে চিকিৎসা

    অনেক দিন সাজা খাটার পর সরকার বিবেচনা করতে পারে

    অ্যাটর্নি জেনারেল

    দুটি মামলায় কারাবন্দী বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিত করে তাকে দেশে বা বিদেশে চিকিৎসার সুযোগ দিতে সরকারের

  • প্রচার-প্রচারণায় প্রার্থীরা

    প্রতিশ্রুতি পাচ্ছেন, হিসাব কষছেন ভোটাররা

    আসন্ন ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে উন্নত ও আধুনিক ঢাকা গড়ার প্রতিশ্রুতি নিয়ে প্রচারণা চালাচ্ছেন আওয়ামী লীগে সমর্থিত দুই মেয়র প্রার্থী।

  • নোয়াখালী থেকে অপহরণ করে

    গৃহবধূকে আটকে রেখে এক মাস ধরে গণধর্ষণ

    চট্টগ্রাম থেকে উদ্ধার

    নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি থেকে অপহ্নত গৃহবধূকে চট্টগ্রাম থেকে উদ্ধার হয়েছে। সোনাইমুড়ি থানা পুলিশ গত রোববার গোপন খবরের