• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

শুক্রবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ৮ রবিউস সানি ১৪৪১

মায়ানমার থেকে আসছে বিপুল পরিমাণ পিয়াজ

সংবাদ :
  • নুরুল হক, টেকনাফ (কক্সবাজার)

| ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ০৩ অক্টোবর ২০১৯

মায়ানমার থেকে পিয়াজ আমদানি বৃদ্ধি ও বাজার নিয়ন্ত্রণে কক্সবাজারের টেকনাফ স্থল বন্দরে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে প্রতিনিধি দল ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন।

গতকাল বিকেল ৫টার দিকে বাণিজ্য মন্ত্রালয়ের (বস্ত্রসেল) এর যুগ্ম সচিব তৌফিকুর রহমানের নেতৃত্বে প্রতিনিধি দল টেকনাফ স্থল বন্দরে আমদানি কারকদের সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হন। এ সময় কক্সবাজার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (জেনারেল) মাসুদুর রহমান মোল্লা, টেকনাফ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল আলম, টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রবিউল হাসান, স্থল বন্দরের সিএন্ডএফ অ্যাসোসিয়েশন সাধারণ সম্পাদক এহতেশামুল হক বাহাদুর, ব্যবসায়ী মোহাম্মদ হাসেম উপস্থিত ছিলেন।

গতকাল মায়ানমার থেকে ৫৮৪ মেট্রিক টন পিয়াজ বন্দরে এসেছে। এছাড়া শ্রমিকের অভাবে খালাসের অপেক্ষায় নাফনদে ভাসছে ২১ হাজার ৭৫ বস্তার (৮৪৩ মেট্রিক টন) কয়েকটি পিয়াজের ট্রলার। গত মঙ্গলবার ৫৬৯ মেট্রিক টন পিয়াজ এসেছিল।

টেকনাফ শুল্ক স্টেশন সূত্রে জানায়, বুধবার মায়ানমার থেকে আসা ৫৮৪.৭৩২ মেট্রিক টন পিয়াজ ট্রলার থেকে খালাস করে দেশের বিভিন্ন স্থানে পাঠিয়ে দেয়। এসব পিয়াজ আমদানি করেন, এমএ হাশেম, যদু চন্দ্র দাস, মো. জব্বার, মো. সাদ্দাম, মো. কামাল, মো. কাদের, মো. শুক্কুর, কামরুল। এছাড়া শ্রমিকের অভাবে খালাসের অপেক্ষায় নাফনদে রয়েছে ৮৪৩ মেট্রিক টন পেয়াজ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক টেকনাফ স্থল বন্দরের এক কর্মকর্তা বলেন, মায়ানমারের প্রায় ৮’শ মেট্রিক টন পিয়াজ বুকিং রয়েছে। যা গত দুই এক দিনের মধ্যে স্থল বন্দরে পৌঁছার কথা রয়েছে।

আমদানিকারক এম এ হাশেম বলেন, পিয়াজ ট্রলার থেকে সরাসরি ট্রাকে তুলা হলেও বন্দর কর্তৃপক্ষ অন্যায় ভাবে চার্জ নিচ্ছেন। এছাড়া বন্দরের দূর্বলতার কারণে ব্যবসায়ীরা ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছে।

স্থানীয় প্রশাসন কক্সবাজারে ৬৫-৭০ টাকায় কেজি পিয়াজের খুচরা বিক্রয় মুল্যে নির্ধারণ করে দিয়েছে।