• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

সোমবার, ২৪ জুন ২০১৯, ১০ আষাঢ় ১৪২৫, ২০ শাওয়াল ১৪৪০

ব্রিস্টলে বৃষ্টিতে ভাসল বাংলাদেশের আশা

সংবাদ :
  • বিশেষ প্রতিনিধি

| ঢাকা , বুধবার, ১২ জুন ২০১৯

image

ব্রিস্টল মাঠে বাংলাদেশি প্রবাসীরা

টানা দুদিনের বৃষ্টিতে ভেসে গেছে বিশ্বকাপে গতকালের বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচ। পয়েন্ট ভাগাভাগি করেছে দুই দল। ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠানরত বিশ্বকাপে বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়া তৃতীয় ম্যাচ এটা। এর আগে পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কা এবং দক্ষিণ আফ্রিকা-ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচও ভেসে গিয়েছিল বৃষ্টিতে।

ব্রিস্টলের ম্যাচটা ভেসে যাওয়াতে অনেক বড় ক্ষতিই হয়ে গেল বাংলাদেশ দলের। চার ম্যাচে বাংলাদেশ দলের মাত্র একটা জয়। দুটি পরাজয়ের সঙ্গে যোগ হলো ড্র হওয়া ম্যাচ। ফলে একটা জয় ও ড্র হওয়া ম্যাচে পাওয়া একটি পয়েন্ট নিয়ে বাংলাদেশ দলের পয়েন্ট দাঁড়াল তিন। অন্যদিকে চার ম্যাচে শ্রীলঙ্কার পয়েন্ট চার। আফগানিস্তানের বিপক্ষে জয়ের পর পাকিস্তান এবং বাংলাদেশের সঙ্গে দুটি ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ায় আরও দুই পয়েন্ট লাভ করে লঙ্কানরা। দুই ম্যাচের দুই পয়েন্ট বিবেচনায় নিলে একটা জয়ের সমান পয়েন্ট। বলা যেতে পারে চার ম্যাচে শ্রীলঙ্কার জয় দুটি। লঙ্কানরা পরাজিত হয়েছিল নিউজিল্যান্ডের কাছে। ব্রিস্টলে এতটাই মুষলধারে গতকাল বৃষ্টি হয়েছে যে, সকালেও ছিল অনেকটা সন্ধ্যার আলো। বেলা সাড়ে ১০টার দিকে খেলা শুরুর কথা থাকলেও দুপুরের দিকে দুটি দলই হোটেলে ফিরে যায়। পঞ্চমবারের মতো বিশ্বকাপের আসর বসেছে ইংল্যান্ডে। টানা দুদিনে দুটি এবং এক সপ্তাহে মোট তিনটি ম্যাচ পরিত্যক্ত হতে দেখল ক্রিকেট বিশ্ব, যা কিনা এক টুর্নামেন্টে ইতিমধ্যে সর্বোচ্চ পরিত্যক্ত হওয়া ম্যাচের রেকর্ডে নাম লিখিয়েছে। এর আগে আর কোনো টুর্নামেন্টেই বৃষ্টির কারণে এত বেশি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়নি। সামনে এখনো প্রায় মাসখানেকের খেলা বাকি। এই সময়ে আর কোন ম্যাচ ভেসে গেলে, তা ইংল্যান্ড বিশ্বকাপকে সর্বাধিক পরিত্যক্ত হওয়া টুর্নামেন্টের তালিকায় অনেক দিন হয়তো শীর্ষে রাখবে।

টানা বৃষ্টির কারণে তিনবার পিচ পরিদর্শন শেষে ম্যাচ অফিসিয়ালরা খেলা পরিত্যক্ত ঘোষণা করতে বাধ্য হন। গ্রাউন্ড স্টাফরা আউটফিল্ডে জমে থাকা বৃষ্টির পানি যথাসাধ্য বের করে দিলেও ন্যূনতম ২০ ওভার খেলার মতো পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে পারেননি। ফলে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টার দিকে খেলা পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়।

পয়েন্ট ভাগাভাগি বাংলাদেশ দলকে অনেকটা ব্যাকফুটে তো এমনিতেই ঠেলে দিয়েছে। তার ওপরে যোগ হয়েছে চলতি বিশ্বকাপে ফর্মের তুঙ্গে থাকা সাকিব আল হাসানের ইনজুরি। সামনের ম্যাচ খেলার আগে পয়েন্ট টেবিলের হিসাব ছাড়াও সাকিবের ইনজুরি নিয়ে টিম ম্যানেজমেন্টকে বিব্রতকর সময় পার করতে হবে। অবশ্য মঙ্গলবার বল মাঠে গড়ালেও সাকিব খেলতে পারতেন কিনা, সে বিষয়ে সংশয় ছিল। উরুর ইনজুরিতে ভুগছেন এই বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

এদিকে ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ায় হতাশ টাইগার দলপতি মাশরাফি মর্তুজা বলেছেন, মাঠে এসে খেলতে না পারাটা যে কোন দলের জন্যই হতাশার। টুর্নামেন্ট কীভাবে চলছে দেখুন। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সম্ভাবনা জাগিয়েও জিততে পারিনি। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আমরা নিজেদের খুঁজে পাইনি। আর আজকের (মঙ্গলবার) দিনটা হতাশার। আশা করছি, সাকিব সুস্থ হয়ে উঠবে। পরের ম্যাচের আগে আরও চার-পাঁচ দিন হাতে আছে। টনটনের ছোট মাঠে পরের খেলা ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে। এই মাঠে ক্যারিবিয়ানদের সঙ্গে ম্যাচটা খুব সহজ হবে না। কঠিন লড়াইয়ের কোনো বিকল্প নেই আমাদের।

মাশরাফির কণ্ঠে, ‘মাঠে আসার পর খেলতে না পারা সব দলের জন্যই হতাশা আর আক্ষেপের। এভাবেই টুর্নামেন্ট এগিয়ে যাচ্ছে, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আমরা আমাদের সুযোগ পেয়েছিলাম। ইংল্যান্ড ম্যাচে পাইনি। কিন্তু আজ ছিল হতাশাজনক।’

আগামী সোমবার টনটনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। এই ম্যাচের আগে সাকিব সুস্থ হয়ে উঠবেন বিশ্বাস মাশরাফির, ‘আমি মনে করি সাকিব সুস্থ হয়ে উঠবে। সেরে উঠতে এখনও হাতে চার থেকে পাঁচ দিন আছে। হ্যাঁ, টনটন খুব ছোট মাঠ এবং এ জন্য ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে খেলা সহজ হবে না। কিন্তু কঠিন লড়াই করার বিকল্প নেই আমাদের কাছে।’

এক সপ্তাহের ব্যবধানে তৃতীয় ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেসে গেল। এর আগে গত মঙ্গলবার এই ব্রিস্টলেই শ্রীলঙ্কা-পাকিস্তান ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়। সোমবার ওয়েস্ট ইন্ডিজ-দক্ষিণ আফ্রিকার ম্যাচটি অমীমাংসিত হয়। সাউদাম্পটনের এই খেলায় অষ্টম ওভার পর্যন্ত ব্যাট করেছিল প্রোটিয়ারা।