• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২

করোনায় আক্রান্ত

বাংলাদেশ-ভারত ও পাকিস্তানে একই সময়ে ১০ হাজারে পৌঁছালো

সংবাদ :
  • রাকিব উদ্দিন

| ঢাকা , মঙ্গলবার, ০৫ মে ২০২০

যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত করার পর এক মাস তিন দিনেই এ সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়ে যায়। এরপর স্পেন এক মাস দু’দিন, ইতালি মাত্র ২৪ দিন ও যুক্তরাজ্যে এক মাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়ে যায়। তবে করোনার উৎপত্তিস্থল চীনে আক্রান্তের সংখ্যা ১০ হাজার পৌঁছে প্রায় আড়াই মাসে। তবে বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানে প্রায় একই গতিতে সংক্রমণ ঘটাচ্ছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। এরমধ্যে প্রথম রোগী শনাক্ত করার পর বাংলাদেশে এক মাস ২৫ দিন, পাকিস্তান এক মাস ২৪ দিন এবং ভারতে প্রায় দু’মাসে ১০ হাজার ছাড়িয়ে যায় করোনা রোগী শনাক্ত করার সংখ্যা।

ওয়ার্ল্ডওমিটার এবং বিভিন্ন দেশের সরকারের দেয়া করোনাভাইরাস সংক্রান্ত তথ্য বিশ্লেষণ করে এ পরিসংখ্যান পাওয়া গেছে। গতকাল সন্ধ্যা নাগাদ বিশ্বের ২১২টি দেশ ও অঞ্চলে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঘটেছে। সারাবিশে^ করোনায় আক্রান্ত মোট রোগী শনাক্ত হয়েছে ৩৫ লাখ ৮৮ হাজার ৩৪৮ জন। এরমধ্যে মারা গেছে দুই লাখ ৪৮ হাজার ৮১৮ জন। তবে করোনাভাইরাসের সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। এরপর স্পেন, ইতালি ও যুক্তরাজ্যসহ বিভিন্ন দেশে ব্যাপক সংক্রমণ ও মৃত্যু ঘটছে করোনায়।

যুক্তরাষ্ট্রে গত ফেব্রুয়ারিতে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। গত ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত দেশটিতে ১৫ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এরপর এক মাস তিন দিনে এ সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়ে যায়, অর্থাৎ আমেরিকায় গত ১৯ মার্চ পর্যন্ত করোনা রোগী শনাক্ত হয় ১৩ হাজার ৮৯৮ জন। ১৯ মার্চ পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যায় ২৩৯ জন। সর্বশেষ গতকাল পর্যন্ত ওয়ার্ল্ডওমিটারের হিসেবে, যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত শনাক্ত হয় ১১ লাখ ৮৮ হাজার ৮৭০ জন। এই সময়ে দেশটিতে মারা গেছে মোট ৬৮ হাজার ৬০৬ জন।

ইউরোপের দেশ স্পেনে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় গত ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২ জন। এরপর এক মাস দু’দিনে গত ১৭ মার্চ পর্যন্ত স্পেনে করোনা রোগীর সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়ে যায়, ওইদিন পর্যন্ত দেশটিতে ১১ হাজার ৮২৬ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়। ১৭ মার্চ পর্যন্ত স্পেনে মারা যায় ৫৩৩ জন। গতকাল পর্যন্ত স্পেনে করোনা রোগী শনাক্ত হয় দুই লাখ ৪৭ হাজার ১২২ জন। এই স্পেনে মারা গেছে ২৫ হাজার ২৬৪ জন।

ইতালিতে গত ১৫ ফেব্রুয়ারি করোনায় আক্রান্ত রোগী ছিল মাত্র তিনজন। এরপর ১০ মার্চ মাত্র ২৪ দিনে এ সংখ্যা দাঁড়ায় ১০ হাজার ১৪৯ জনে। আর ১০ মার্চ পর্যন্ত ইতালিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যায় ৬৩১ জন। গতকাল পর্যন্ত ইতালিতে করোনা রোগী শনাক্ত হয় দুই লাখ ১০ হাজার ৭১৭ জন। আর এই সময়ে ইতালিতে মারা গেছে ২৮ হাজার ৮৮৪ জন।

যুক্তরাজ্যে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় ফেব্রুয়ারির প্রথম দিকে। গত ১৫ ফেব্রুয়ারি দেশটিতে পর্যন্ত করোনা রোগী ছিল ৯ জন। এরপর গত ২৬ মার্চ এ সংখ্যা ১০ হাজার পেড়িয়ে দাঁড়ায় ১১ হাজার ৬৫৮ জনে। ২৬ মার্চ পর্যন্ত যুক্তরাজ্যে করোনায় মারা যায় ৮৭৭ জন। গতকাল পর্যন্ত যুক্তরাজ্যে করোনা রোগী শনাক্ত হয় এক লাখ ৮৬ হাজার ৫৯৯ জন। এ সময়ে যুক্তরাজ্যে করোনায় মারা গেছে ২৮ হাজার ৪৪৬ জন।

চীনের উহান রাজ্যে গত ডিসেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে করোনাভাইরাসের উৎপত্তি হয়, প্রথম রোগীও শনাক্ত হয়। গত ২২ জানুয়ারি পর্যন্ত চীনে রোগী শনাক্ত হয় ৫৭১ জন করোনা রোগী। এরপর প্রায় আড়াই মাসে গত ৩১ জানুয়ারি চীনে করোনা রোগী শনাক্তের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়ে দাঁড়ায় ১১ হাজার ৭৯১ জনে। ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত চীনে করোনায় মারা যায় ২৫৯ জন। গতকাল পর্যন্ত চীনে করোনা রোগী শনাক্ত হয় ৮২ হার্জা ৮৮০ জন। এই সময়ে চীনে মারা গেছে চার হাজার ৬৩৩ জন।

ভারতে গত ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছিল তিনজন। ১ মার্চ পর্যন্ত ভারতে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়েনি। এরপর প্রায় দুই মাসে গত ১৩ এপ্রিল দেশটিতে করোনা রোগী শনাক্তের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়ে যায়, অর্থাৎ ১৩ এপ্রিল এ সংখ্যা ছিল ১০ হাজার ৪৫৩ জন। এই সময় পর্যন্ত ভারতে করোনায় মারা গিয়েছিল ৩৫৮ জন। গতকাল পর্যন্ত ভারতে করোনা রোগী শনাক্ত হয় ৪২ হাজার ৬৬০ জন। এই সময়ে ভারতে মারা গেছে এক হাজার ৩৯৫ জন।

পাকিস্তানে গত ২৬ ফেব্রুয়ারি প্রথম দু’জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়। গত ২২ এপ্রিলে এক মাস ২৪ দিনে পাকিস্তানে করোনা রোগী শনাক্তের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়ে যায়, অর্থাৎ ওইদিন পর্যন্ত দেশটিতে করোনা শনাক্ত হয়েছিল ১০ হাজার ৭৬ জন। আর ২২ এপ্রিল পর্যন্ত দেশটিতে মারা যায় ২১২ জন। গতকাল পর্যন্ত পাকিস্তানে করোনা রোগী শনাক্ত হয় ২০ হাজার ১৮৬ জন। এই সময়ে দেশটিতে মারা গেছে ৪৬২ জন।

আর গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এরপর এক মাস ২৫ দিনে দেশে করোনা রোগী শনাক্তের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়ে যায়, সরকারের স্বাস্থ্য অধিদফতরের হিসেবে, গতকাল পর্যন্ত দেশে ১০ হাজার ১৪৩ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়।